হত্যা মামলার তদন্ত কর্মকর্তা বদলীতে এসপিকে রিকশা চালকের আবেদন

সিটি করেসপন্ডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ ১০:১৩ পিএম, ১৭ নভেম্বর ২০২০ মঙ্গলবার

হত্যা মামলার তদন্ত কর্মকর্তা বদলীতে এসপিকে রিকশা চালকের আবেদন

সোনারগাঁ থানার একটি হত্যা মামলায় পিবিআইয়ের বিরুদ্ধে হয়রানির অভিযোগ এনে নারায়ণগঞ্জ জেলা পুলিশ সুপারের কাছে তদন্ত কর্মকর্তা পরিবর্তনের আবেদন করেছেন দরিদ্র রিক্সাচালক দুলাল মিয়া। ১৫ নভেম্বর সোনারগাঁয়ের রাউৎগাঁও এলাকার মৃত টুকু মিয়ার ছেলে মোঃ দুলাল মিয়া এই আবেদন করেন।

আবেদনের দুলাল মিয়া উল্লেখ করেন, আমি একজন রিক্সা চালক। আমি আমার আপন ভাই মোঃ শিমুল হত্যার ঘটনায় ফারুক সহ ৫ জনের বিরুদ্ধে সোনারগাঁ থানায় মামলা দায়ের করি। মামলাটি বর্তমানে পিবিআইয়ের তদন্তাধীন রয়েছে। কিন্তু তদন্তকারী কর্মকর্তা জাহাঙ্গীর আলম প্রতিপক্ষের দ্বারা প্রভাবিত হয়ে আমাকে হয়রানী করার উদ্দেশ্য বিভিন্ন সময় পিবিআই অফিসে ডেকে নানা রকম ভয়ভীতি প্রদর্শন করে। ফলে আমার কাজে ব্যঘাত ঘটছে। আর কাজে ব্যঘাতের কারণে আমার পরিবার মানবেতর জীবন যাপন করছে।

তিনি আরও উল্লেখ করেন, পিবিআই স্বল্প সময়ের মধ্যে তদন্ত কাজ শেষ করলে আমি তার তলবে রাজী আছি। কিন্তু তদন্তকারী কর্মকর্তা আমাকে একাধিকবার ডাকিয়া নিয়া মামলার তদন্তের বিষয়ে কোনো কথাবার্তা না বলে আমাকে মিথ্যা মামলায় জড়ানোর ভয় ভীতি ও হুমকি প্রদর্শন করে মামলা থেকে বিরত থাকার জন্য জোর জবরদস্তি করছে। এমতাবস্থায় আমার মামলাটির তদন্তভার সংশ্লিষ্ট অন্য কোনো তদন্তকারী কর্মকর্তাকে প্রদান করিলে আমি ন্যায় বিচারের আশা রাখি। অন্যথায় আমি ন্যায় বিচার থেকে বঞ্চিত হবো।

এদিকে মামলার অভিযোগপত্রে দুলাল উল্লেখ করেছিলেন, তার ভাই পলাশ তাস খেলার কারণে তার স্ত্রীর সাথে প্রায় সময়ই ঝগড়া হইতো। আর এ নিয়ে ২০১৯ সালের ২০ আগস্ট শিমুল ও তার স্ত্রীর মধ্যে ঝগড়া হয় এবং স্ত্রী ঘর থেকে বের হয়ে মার ঘরে চলে যায়। এরই মধ্যে রাতে বের হইলে দেখে তার স্বামীর লাশ ঘরের আড়ার সাথে ঝুলতে থাকে। কিন্তু লাশের ময়না তদন্তের রিপোর্টে আরে শিমুলকে মারধর করে গলা চেপে ধরে হত্যা করেছে। আর এই ঘটনায় মোঃ ফারুক, সবুজ, মুক্তার, বাবুল ও ফারুকে আসামী করে মামলা দায়ের করা হয়।


বিভাগ : আইন আদালত


নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আরো খবর
এই বিভাগের আরও