ভ্যানচালক স্বামীকে হারিয়ে অন্ধকার দেখছেন কুলসুম

সিটি করেসপন্ডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ ০৯:৫৮ পিএম, ১২ সেপ্টেম্বর ২০২০ শনিবার

ভ্যানচালক স্বামীকে হারিয়ে অন্ধকার দেখছেন কুলসুম

স্বামী মিজান ভ্যানচালিয়ে যা পেতেন তা দিয়েই মোটামুটিভাবে চলে যেত সংসার। স্বামী শহরে ম্যাসে থেকে ভ্যান চালাতেন আর স্ত্রী কুলসুম গ্রামে থেকে সংসার চালাতেন। প্রতিমাসে স্বামীর পাঠানো সামান্য কিছু টাকা দিয়ে দুই মেয়েই ও ১৮ মাস বয়সী ছেলেকে নিয়ে কোনোরকমভাবে সংসারের খরচ চালিয়ে যেতেন।

এরই মধ্যে হঠাৎ করেই খবর পান স্বামী মিজান নামাজ আদায় করতে গিয়ে বিস্ফোরণে গুরুতর আহত হয়েছেন। আর এমন খবর পেয়েই শহরে ছুটে আসেন স্ত্রী কুলসুম। স্বামীকে দেখতে ছুটে যান হাসপাতালে। স্বামীকে দেখতে পেলেও স্বামীকে আর ফেরত পাননি তিনি। স্বামীকে সুস্থ্যভাবে ফেরত আনার বদলে লাশ নিয়ে গ্রামে নিয়ে দাফন করতে হয়েছে।

তবে স্বামীকে ভালোভাবে কাফন দাফন করতে পারলেও এখন নিজে কিভাবে বাঁচবেন তার কোনো দিশা পাচ্ছেন না কুলসুম। স্বামীর ছিল না তেমন কোনো সহায় সম্বল। ভ্যান চালিয়ে যে টাকা গ্রামে পাঠাতেন সেই টাকা দিয়েই কোনোরকম তার সংসার চলে যেত। এখন আর স্বামী নেই। দুই মেয়ে আর এক ছেলেকে নিয়ে কোথায় যাবেন তার কোনো পথ খুঁজে পাচ্ছেন না কুলসুম।

দুই মেয়ের মধ্যে এক মেয়ে বিবাহযোগ্য। কিন্তু সেই মেয়ের বিয়ে দিয়ে যেতে পারলেন না মিজান। এর আগেই এক দুর্ঘটনার শিকার হয়ে তাকে বিদায় নিতে হয়েছে।

কুলসুম বলেন, আগে মেয়েদেরকে নিয়ে একসাথেই সবাই শহরে থাকতাম। কোনোরকম সংসার চলতো। পরে সংসারের খরচ কমিয়ে আনার লক্ষ্যে আমি গ্রামে চলে যাই। আর স্বামী শহরে থেকে যা আয় করতেন তা দিয়েই চলতো সংসারের খরচ। কিন্তু এখন তো তিনি নেই। আমি আমার দুই মেয়ে আর ছেলেকে নিয়ে কোথায় যাবো তার কোনো দিশা পাচ্ছি না। জানি না আল্লাহ আমাদের কপালে কি রাখছে। এখনও তেমন কোনো সহযোগিতা পাচ্ছি না।

জানা যায়, গত ৪ সেপ্টেম্বর ফতুল্লার পশ্চিমতল্লা এলাকার বাইতুস সালাত জামে মসজিদে বিকট শব্দে বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে। আর এই ঘটনায় দগ্ধ অবস্থায় ৩৭ জনকে জাতীয় শেখ হাসিনা বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে ভর্তি করা হয়। এদের মধ্যে একে একে ৩১ জন মারা গেছেন। এদের মধ্যে ভ্যানচালক মিজানও রয়েছেন। আর বাকীদের অবস্থাও আশঙ্কাজনক।


বিভাগ : ফিচার


নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আরো খবর
এই বিভাগের আরও