৫ টাকায় পেটভরে আহার

স্টাফ করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ ১০:৫৯ পিএম, ৪ জুন ২০২১ শুক্রবার

৫ টাকায় পেটভরে আহার

‘সাদা ভাত, আলু ডিমের তরকারি ও ডাল। একের পর এক প্লেট সাজিয়ে খাবার দেওয়া হচ্ছে। একজন দিচ্ছেন লবন আর অন্যজন পানি। পেট ভরে এ খাবারের দাম মাত্র ৫টাকা। বিশ্বাস না হলেও এটা সত্য করেছে অরাজনৈতিক ও সামাজিক সংগঠন ‘মুক্ততরী’। মুক্ততরী সংগঠনের সদস্যরাই এ খাবার বিতরণ করছেন অসহায় সুবিধা বঞ্চিত শিশু, নারী ও পুরুষদের মধ্যে।’

৩ জুন বৃহস্পতিবার দুপুরে শহরের চাষাঢ়ায় শহীদ জিয়া হল প্রাঙ্গনে ‘৫ টাকায় পঞ্চতৃপ্তি’ নামে ওই খাবার খাওয়ানো হয়। করোনা সুরক্ষায় মাস্ক ব্যবহার, হাত ধোয়া ও সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে স্বাস্থ্যবিধি মেনে খাবার দেয়া হয়। তবে এসময় যারা ৫টাকাও দিতে পারেননি তাদেরকেও খাবার দিয়েছেন সদস্যরা নিজেদের পকেট থেকে ৫টাকা ফান্ডে জমা দিয়ে। খেতে আসা কোন মানুষকেই না খেয়ে ফিরে যেতে হয়নি।’

মুক্ততরী সংগঠনের সদস্যরা জানান, ‘মুক্ততরী সংগঠনের দুই বছর পূর্তি ও তৃতীয় বর্ষে পদার্পণ উপলক্ষ্যে নারায়ণগঞ্জ সহ তিনটি জেলায় এ খাবার দেওয়া হচ্ছে। তিন জেলায় শতাধিক সদস্যের অনুদানের টাকায় আয়োজন করে নিজেরা বাসায় রান্না করে এসব খাবার দেওয়া হচ্ছে। ২৫ থেকে ৩০ জন সদস্যের মাধ্যমে ১ জুন থেকে শুরু হওয়া কার্যক্রম বৃহস্পতিবার নারায়ণগঞ্জ ছিল তৃতীয় দিন। ফলে শুক্রবার থেকে মুন্সিগঞ্জ ও ঢাকায় আরো দুটি ইভেন্ট চালু হবে। যার জন্য নারায়ণগঞ্জে এ কার্যক্রম বন্ধ থাকবে। তারপর নারায়ণগঞ্জে আবার আমরা শুরু হবে। প্রতিদিন নির্ধারিত ৫০ জনকে খাওয়ানো হয়। তবে এর বেশিও হয়ে থাকে। তবে আমাদের ফান্ডের উপর ভিত্তি করে আরো ১০ থেকে ১৫ দিন চালিয়ে নিয়ে যেতে পারবো। তারপর আমাদের কার্যক্রম বন্ধ করে দিতে হবে। আর্থিক সংকটের জন্য। যদি কারো কাছ থেকে আমরা আর্থিক সহযোগিতা পাই তাহলে সেটা ধারাবাহিক ভাবে চালিয়ে নিয়ে যাবো।

মুক্ততরী সংগঠনের প্রতিষ্ঠাতা ও সমন্বয়ক জয় দত্ত বলেন, ‘২০১৯ সালে আমরা সুবিধা বঞ্চিত শিশুদের নিয়ে কাজ শুরু করি। এ ২০২১ সালের পহেলা জুন আমাদের দুই বছর পূর্ণ হয়েছে। যার জন্যই আমরা নতুন একটি কার্যক্রম শুরু করেছি, যার নাম ‘পঞ্চতৃপ্তি’। যেখানে ৫ টাকার বিনিময়ে সুবিধা বঞ্চিত ও নি¤œ আয়ের মানুষের জন্য খাবারের আয়োজন করা হয়েছে। আমরা মূলত বিভিন্ন সংগঠনের মাধ্যমে প্যাকেট খাবারগুলো দেই। সেই খাবার চাহিদা অনুযায়ী সেই পায় না। তাই আমরা এখানে হোটেলের আদলে আয়োজন করেছি। এখানে অসহায় বা নি¤œ আয়ের মানুষ তার পছন্দ মতো খেতে পারবে এবং যেই খাবার যতটুকু প্রয়োজন সেটা নিতে পারবে। বুফে যেমন আমরা চাহিদা মত খেতে পারি সেই একই ভাবে এখানে আয়োজন করা হয়েছে।’

তিনি বলেন, ‘এর আগে থেকে মুক্ততরী সংগঠনের উদ্যোগে ২ টাকার হাসি নামে একটি প্রজেক্ট শুরু করেছি। যেখানে দুই টাকার মাধ্যমে পোশাক, দুই টাকার মাধ্যমে খাবার ও দুই টাকার চিকিৎসা সহ বিভিন্ন কার্যক্রম করা হয়। তারাই ধারাবাহিকতায় এবার ৫টাকায় ভিন্ন আয়োজন করা। এর পাশাপাশি নবীগঞ্জ খেয়াঘাটে ‘মুক্ত বিদ্যাপীঠ’ নামে আমাদের একটি স্কুল আছে যেখানে আমরা সুবিধা বঞ্চিত শিশুদের পড়াই। এভাবেই আমরা কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছি।’

তিনি আরো বলেন, ‘প্রথম দিন, ভাত, মুরগির মাংস, ডাল ছিল। আজকে মেনু পরিবর্তন করে ভাত, ডিম আলু তরকারি, ডাল দেওয়া হচ্ছে। সবার জন্য বিশুদ্ধ খাবার পানি। এর ধারাবাহিকতায় আমরা প্রতিদিন খাবার পরিবর্তন করছি। কোন দিন মাছ, কোন দিন মাংস, কোন দিন সবজি এভাবে দেওয়া হচ্ছে।

ফান্ডের বিষয়ে জয় দত্ত বলেন, ‘হয়তো বা আমরা এটা কোন অল্প পরিসরে চালাতে হচ্ছে। কারণ আমরা সবাই শিক্ষার্থী। যার জন্য আমাদের ফান্ডও অনেক কম। এরকম যদি কোন স্বহৃদয়বান ব্যক্তি থাকে যিনি আমাদের মধ্যমে এসব মানুষের সহযোগিতায় আসতে চান তাদেরকে আমরা আহবান জানাবো। তাদের সহযোগিতায় আমরা এ আয়োজনটা যেন আরো এগিয়ে নিয়ে যেতে পারি। এটা যেন দীর্ঘদিন মানুষ স্থায়ীভাবে খেতে পারে।’

এসময় উপস্থিত ছিলেন মুক্ততরী সংগঠনের সহ প্রতিষ্ঠাতা রুবাইদ সায়মন, প্রীতম কুমার দাস, রাকিব হাসন, স্বরূপ, জয় সাহা, পুষ্পিতা, চাঁদনী, তানমিন, অভি কর, সুধাকর, উদয় প্রমুখ।


বিভাগ : ফিচার


নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আরো খবর
এই বিভাগের আরও