চাষাঢ়ায় জনসভা ও বঙ্গবন্ধু গ্রেপ্তার

এস এম শহিদুল্লাহ (লেখক ও গবেষক) : || ০৩:৫৮ পিএম, ৭ জুন ২০২১ সোমবার

চাষাঢ়ায় জনসভা ও বঙ্গবন্ধু গ্রেপ্তার

ছয় দফাকে বলা হয়ে থাকে বাঙালির মুক্তির সনদ। ছয় দফা আন্দোলনে স্বাধীনতার বীজ নিহিত ছিল। ছয় দফার পক্ষে গণজাগরণের উদ্দেশ্যে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান দেশব্যাপী জনসভা করেন। তিনি ২০ মার্চ থেকে ৮ মের মধ্যে ৫০ দিনে ৩২টি জনসভায় ভাষণ দেন। সর্বশেষ নারায়ণগঞ্জ টাউন হল মাঠে (বর্তমান এখানে শহীদ জিয়া হল প্রতিষ্ঠিত) ১৯৬৬ সালের ৮ মে (১৯৬৬) বিরাট জনসভায় তিনি একটি ভাষণ দেন। সে রাতেই শেখ মুজিব ও আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক জনাব তাজউদ্দিন আহমদ ও বিশিষ্ট আওয়ামী লীগ নেতা খোন্দকার মোস্তাক আহমদকে দেশ রক্ষা আইনে গ্রেফতার করা হয়। এছাড়াও দলের প্রায় ৩৫০০ নেতা-কর্মীকেও গ্রেফতার করা হয়।

সে কথা সংবাদপত্র থেকে উদ্ধৃত করা হলো: শেখ মুজিব তাজুদ্দীন ও মুস্তাক গ্রেফতার : গতরাত (রবিবার দিবাগত) ২টার দিকে পূর্ব পাকিস্তান আওয়ামী লীগের সভাপতি শেখ মুজিবর রহমান, সাধারণ সম্পাদক জনাব তাজুদ্দীন আহমদ ও বিশিষ্ট আওয়ামী লীগ নেতা খোন্দকার মুশতাক আহমদকে গ্রেফতার করা হইয়াছে বলিয়া জানা গিয়াছে। পুলিস তিনজন নেতার গৃহেই যুগপৎভাবে হানা দেয়। তাঁহাদিগকে পাকিস্তান দেশরক্ষা বিধি অনুযায়ী গ্রেফতার করা হইয়াছে বলিয়া প্রকাশ। (দৈনিক ইত্তেফাক, ৯ মে ১৯৬৬ খ্রি.)

৭ জুনের হরতাল : শেখ মুজিবুর রহমান ও আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীদের গ্রেফতারের প্রতিবাদে আওয়ামী লীগ ও ছাত্রলীগ ৭ জুন (১৯৬৬) সারা দেশে ধর্মঘট আহ্বান করে। ৭ জুনের হর। হরতালে ঢাকা ও নারায়ণগঞ্জের শ্রমিকরা জড়িয়ে পড়ে। ৭ জুন ঢাকা, নারাঢয়ণগঞ্জ ও তেজগাঁয় পুলিশের গুলিতে ১১ জন নিহত ও অগণিত মানুষ আহত হয়। তাছাড়া দেড় হাজার ব্যক্তিকে কারাগারে আটক করা হয়। ১৬ জুন ইত্তেফাক নিষিদ্ধ এবং নিউ নেশন প্রিন্টিং প্রেস বাজেয়াপ্ত করা হয়। (‘নারায়ণগঞ্জের স্মৃতিতে বঙ্গবন্ধু’ গ্রন্থ’ থেকে সংকলিত)


বিভাগ : ফিচার


নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আরো খবর
এই বিভাগের আরও