নারায়ণগঞ্জে শীতে বাড়ছে ডায়রিয়া

স্পেশাল করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ ১০:৪২ পিএম, ৮ জানুয়ারি ২০২১ শুক্রবার

নারায়ণগঞ্জে শীতে বাড়ছে ডায়রিয়া

করোনার সময়ে বন্ধ করে দেওয়া নারায়ণগঞ্জ ৩০০ শয্যা হাসপাতালের সকল রোগের চিকিৎসা কার্যক্রম। করোনার জন্য বিশেষায়িত হাসপাতাল হিসেবে ঘোষণা করা হয় হাসপাতালটিকে। সেখানে স্থাপন করা হয় আইসিইউ।

তবুও সকল রোগের জন্য চিকিৎসা সেবা দেয়ায় ১০০ শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালে (ভিক্টোরিয়া হিসেবে পরিচিত) রোগীর চাপটা একটু বেশি। রোগী বেড়েছে সেখানে জনবল বাড়েনি।

১০০ শয্যা বিশিষ্ট নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতাল সরেজমিনে পরিদর্শনকালে দেখা যায়, সকাল ৯ টা থেকে আউটডোরে রোগীদের দীর্ঘ লাইন। টিকিট কাউন্টারে মানুষের ভিড়। এখানে মানুষকে স্বাস্থ্যবিধি লংঘন করতে দেখা যায়। হাসপাতালের লোকজন মাস্ক ছাড়া সেবা দেয় না। এ নিয়েও বচসা চোখে পড়ে। জরুরী বিভাগে সারাক্ষণ ভিড়। খানপুর হাসপাতালে শুধু করোনার চিকিৎসা দেয়া হয় বিধায় জেনারেল হাসপাতালে রোগী বেড়েছে কয়েকগুন। বর্তমানে ডায়রিয়া রোগী বাড়ছে। শীতেও ডায়রিয়ার প্রকোপ বেড়েছে। প্রতিদিন গড়ে ৪০ থেকে ৫০ জন ডায়রিয়া রোগী হাসপাতালে আসে। এদের মধ্যে বেশির ভাগ শিশু।

ডায়রিয়া বেড়ে যাওয়ার কারণ জানতে চাইলে কয়েকজন স্বাস্থ্যকর্মী জানান, করোনাকালীন সময়ে ডায়রিয়া রোগী ছিল না। এখন ডায়রিয়ার রোগী বেড়েছে। কারণ মানুষ এখন বাইরের খাবার খায়। বাইরের খাবারে ডায়রিয়া ছড়াচ্ছে।

জেনারেল হাসপাতালের একটা মৌলিক সমস্যা হচ্ছে সিকিউরিটি সমস্যা। ইনডোরে গিয়ে দেখা গেল প্রতিটি ওয়ার্ডেই রোগী কম। সার্জারীতে ২৮ জন রোগী, শিশু বিভাগ খালি, মেডিসিনে ১৯ জন, লেবার ওয়ার্ডে রোগী নেই। গাইনী বিভাগে ৫ জন ভর্তি। গাইনী বিভাগে অন্যান্য সময়ে রোগী বেশি থাকে। এখন কম। এর কারণ এই হাসপাতালের দু’জন এ্যানেসথেসিয়ার ডাক্তারের মধ্যে একজন করোনায় আক্রান্ত। একজনে সামলাতে পারছে না।


বিভাগ : স্বাস্থ্য


নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আরো খবর
এই বিভাগের আরও