‘১৫ লাশ নিজে দাফন করেছি’

স্টাফ করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ ০৬:৪১ পিএম, ৮ সেপ্টেম্বর ২০২০ মঙ্গলবার

‘১৫ লাশ নিজে দাফন করেছি’

নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলার ফতুল্লা পশ্চিম তল্লা বায়তুস সালাত জামে মসজিদে বিষ্ফোরণের ঘটনায় সার্বিক সহযোগিতায় স্বেচ্ছাসেবী হিসেবে কাজ করে যাচ্ছেন যুবলীগ নেতা জানে আলম বিপ্লব। দল মত নির্বিশেষে যুবসমাজকে এগিয়ে আসার নির্দেশনাও দিয়েছেন।

৭ সেপ্টেম্বর সকালে বিষ্ফোরিত ওই মসজিদের পাশে খোঁড়াখুঁড়ির কাজ চলাকালীন অবস্থায় তার সহযোগিতার নানা দৃশ্য দেখা যায়। সেসময় নিউজ নারায়ণগঞ্জের প্রতিবেদকের সাথে কথা হয় এই যুবলীগ নেতার।

যুবলীগ নেতা জানে আলম বিপ্লব বলেন, ওই দিন এশার নামাজের দুই রাকাত ফরজ নামাজের পর সুন্নত নামাজ পড়া শুরু করে মুসল্লিরা। বেতের নামাজের আগে অনেক মুসল্লিরা বের হয়ে যায়। প্রায় শতাধিক মুসল্লি ছিল। আর যারা বেতের নামাজ পড়ছিল সেসময় ৪০-৪৫ জন মুসল্লি ছিল। আমার বাড়িটা ১শ গজ দূরত্বে। এমন সময় ফোন আসে আমার কাছে। আমাদের এলাকার ছোট ভাই আলামিন, বাবু ফোন করে আমাকে জানায় মসজিদে আগুন লাগছে আপনি তাড়াতাড়ি আসেন। ২ থেকে ৩ মিনিটের মধ্যে আমি ঘটনস্থলে পৌঁছাই। সেখানে পৌঁছে বিভীষিকাময় দৃশ্য দেখি। সবাই দগ্ধ, বিভৎস্য অবস্থা তাদের শরীরে কাপড় নেই। সেসময় বিভিন্ন গ্যারেজ থেকে রিকশা ও অটোরিকশা বের করে হাসপাতালে পাঠানোর ব্যবস্থা করলাম। সেসময় আমি যুব সমাজকে নির্দেশনা দিলাম যে যেভাবে পার ঝাপিয়ে পড়। পরে দগ্ধ ৩৭ জনকে ঢাকা শেখ হাসিনা বার্ণ ইন্সিটিটিউটে পাঠানো হয়। অনেকে মারা গেছেন। বাকিরা চিকিৎসাধীন অবস্থায় আছে।

তিনি আরো বলেন, আমি নিজ হাতে ১৫ জনের কাফন দাফনের ব্যবস্থা করেছি। আশেপাশের ২০ টি মসজিদ থেকে লাশের খাট সংগ্রহ করেছি যাতে আমরা দ্রুত কাফন দাফনের কাজ করতে পারি। পাঠানটুনী কবরস্থান ও মাসদাইর কবরস্থানে যারা কবর করার কাজ করে তাদের সার্বিক সহযোগিতা করেছি।

তিনি বলেন, এসব কাজের পাশাপাশি বিষ্ফোরণের ঘটনায় আহত ও নিহতদের স্বজনদের শান্তনা দিয়েছি, খোঁজ খবর নিয়েছি। যতটুকু পেরেছি সাহায্য সহযোগিতা করেছি। যেমন আমাদের বাহাউদ্দিন ভাই দলীয় লোক ছিল। আমার বাড়ির একজন ভাড়াটিয়া থাকে আজিজ উনি বার্ণ ইউনিটে ভর্তি আছেন, মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে। তার পরিবার স্বজনদের খোঁজ খবর নিচ্ছি। আমার আরেক ভাই হান্নান উনি আইসিইউতে ভর্তি আছে। তিনি আমার সম্পর্কে আত্মীয়। এছাড়া রাত ৩-৪ টা পর্যন্ত অপেক্ষায় থাকি কখন আবার লাশ আসবে, আসলে কাফন দাফনের ব্যবস্থা করতে হবে। এই এলাকার যুবসমাজ ও তরুণ সমাজ সবাই এগিয়ে এসেছে।


বিভাগ : সাক্ষাৎকার


নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আরো খবর
এই বিভাগের আরও