নারায়ণগঞ্জ বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে বিক্ষোভ : বেশী টাকা আদায়


স্টাফ করেসপনডেন্ট | প্রকাশিত: ১১:০০ পিএম, ০৫ এপ্রিল ২০২১, সোমবার
নারায়ণগঞ্জ বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে বিক্ষোভ : বেশী টাকা আদায়

শিক্ষা বোর্ডের নির্দেশ উপেক্ষা করে করোনাকালেও নারায়ণগঞ্জ শহরের আমলাপাড়াস্থ নারায়ণগঞ্জ বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের ২০২১ সালের এসএসসি পরীক্ষার্থীদের কাছ থেকে ফরম পুরণের জন্য আদায় করা হচ্ছে অতিরিক্ত ফি। অভিযোগ রয়েছে সরকার ফি নির্ধারণ করে দিলেও স্কুল কর্তৃপক্ষ নানা অজুহাতে অতিরিক্ত ফি আদায় করছে। সোমবার ৫ এপ্রিল ওই ঘটনায় স্কুলে বিক্ষোভ প্রদর্শনও করেন কয়েকজন শিক্ষার্থী। এসময় তারা স্কুলের কর্মকর্তা ও শিক্ষকদের কাছে অতিরিক্ত অর্থ নেয়ার কারণ জানতে চাইলেও তারা কোন সদুত্তর দিতে পারেনি।

জানা গেছে, ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের অধীনে ২০২১ সালের এসএসসি পরীক্ষায় বিজ্ঞান বিভাগের জন্য ১৯৫০টাকা এবং মানবিক ও ব্যবসায় বিজ্ঞানের জন্য ১৮৫০টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে। করোনাকালে গেল এক বছরে কোন ধরনের ক্লাস হয়নি। অথচ ফরম ফিলাপের সময়ে অতিরিক্ত অর্থ আদায় করছে শহরের আমলাপাড়াস্থ নারায়ণগঞ্জ বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের কর্তৃপক্ষ। জানা গেছে, টেস্ট পরীক্ষার নামে ৫০০ টাকা এবং চতুর্থ শ্রেণীর কর্মচারীদের নামে ১৫০ টাকা করে আদায় করছে স্কুল কর্তৃপক্ষ। স্কুলটিতে বাণিজ্য বিভাগে ৫৬ জন, মানবিক বিভাগে ৫১ জন ও বিজ্ঞান বিভাগে ১৫ জন পরীক্ষার্থী রয়েছে। অর্থাৎ মোট ১২২ জন পরীক্ষার্থীর কাছ থেকে ৬৫০টাকা বেশী হিসেবে ৭৯ হাজার ৩০০ টাকা অতিরিক্ত আদায় করছে স্কুল কর্তৃপক্ষ। সোমবার ৫ এপ্রিল দুপুরে অতিরিক্ত অর্থ নেওয়ার প্রতিবাদে স্বুলটির একাউন্টস রুমের সামনে বিক্ষোভ করেন শিক্ষার্থীরা। এসময় তারা স্কুলটির শিক্ষক রঞ্জিত মিত্র ও একাউন্টস অফিসারের কাছে অতিরিক্ত অর্থ নেওয়ার কারণ জানতে চান। তবে তারা কোন সদুত্তর দিতে পারেনি।

স্কুলটির পরীক্ষার্থীরা জানান, একেতো করোনা মহামারী চলছে। তার উপর লকডাউন। এসএসসি পরীক্ষার ফরম পূরণের টাকা যোগাড় করতে তাদের অভিভাবকরা হিমশিম খাচ্ছেন। গেল এক বছরে কোন ধরনের ক্লাস না হলেও বেতন ভাতা ঠিকই আদায় করেছে স্কুল কর্তৃপক্ষ। এরই মধ্যে গেল বছরে যে পরীক্ষা হয়েছিল তার ফিও আমাদের কাছ থেকে আদায় করেছে। কিন্তু এবছর আবারো টেস্ট পরীক্ষার নামে অতিরিক্ত ফি আদায় করছে। আমরা স্কুল কর্তৃপক্ষের কাছে প্রতিবাদ করেছি জেলা প্রশাসনেও লিখিত অভিযোগ দিয়েছি কিন্তু কোন প্রতিকার পাইনি।

জানা গেছে, নারায়ণগঞ্জ বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক শীতল চন্দ্র নানা ঘটনায় বিতর্কিত। তবে সাম্প্রতিক সময়ে তিনি অসুস্থ থাকায় অফিসে আসেননা বলে জানা গেছে।

বর্তমানে নারায়ণগঞ্জ বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের দায়িত্বে আছেন সহকারী প্রধান শিক্ষক নিলুফা ইয়াসমিন। তিনি জানান, গেল বছরের শেষ দিকে তারা মডেল টেষ্ট পরীক্ষা নিয়েছিলেন। তার জন্য ৫০০ টাকা ফি নির্ধারিত হয়েছিল। যারা তৎকালে ফি দেয়নি তাদেরকে ফি দেয়ার জন্য নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। এছাড়া ৪র্থ শ্রেণীর কর্মচারীদের জন্য ১৫০ টাকা করে নেওয়া হচ্ছে। তবে এটা বাধ্যতামূলক নয় ঐচ্ছিক। কেউ দিতে না চাইলে আমরা জোর করছিনা।

নারায়ণগঞ্জ জেলা শিক্ষা অফিসার শরীফুল ইসলাম জানান, সরকার নির্ধারিত ফি এর চেয়ে বেশী নেওয়ার নিয়ম নেই। তারপরেও অনেক স্কুল থেকে আমরা নানা অজুহাতে অতিরিক্ত ফি আদায়ের অভিযোগ পাচ্ছি। স্কুলের পরীক্ষার্থীদের পক্ষ থেকে লিখিত অভিযোগ পেলে আমরা ব্যবস্থা নিব।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
newsnarayanganj-video
আজকের সবখবর