শকুর সহায়তায় পুলিশ গুড়িয়ে দিল মাদকের ৩ আস্তানা


স্টাফ করেসপনডেন্ট | প্রকাশিত: ০৫:১৪ পিএম, ১৭ নভেম্বর ২০২০, মঙ্গলবার
শকুর সহায়তায় পুলিশ গুড়িয়ে দিল মাদকের ৩ আস্তানা

নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের ১২নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর শওকত হাসেম শকুর সহায়তায় ফতুল্লা থানা পুলিশ তল্লা রেললাইন মাউরাপট্টি শিকশন বাড়ী এলাকায় মাদকের অভিযান চালায়। এ সময় রেললাইন জায়গা দখল করে মাদকের ৩টি আস্তানা উচ্ছেদ করা হয়েছে। বরিশাল্লাই শাহিন ও উজ্জলের বসত ঘর থেকে মাদক উদ্ধার করে পুলিশ। অভিযানের সংবাদে শাহিন ও উজ্জল সহ বিক্রেতারা পালিয়ে যায়।

মঙ্গলবার (১৭ নভেম্বর) বেলা দেড় টায় এই অভিযান চালিয়ে আধা কেজি গাজাঁ ও ৭০টি পুরিয়া মাদক উদ্ধার করা হয়। এ সময় উক্ত এলাকায় ‘মাদকের কোন হাট বা বিক্রি করতে দেয়া হবে না’ বলে স্লোগান দেয় এলাকাবাসী।

ঘটনাস্থলের অভিযানে এস আই আরিফ জানান, নাসিক ১২নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর শওকত হাসেম শকু ও এলাকাবাসী সহায়তায় মাদক বিরোধী অভিযান পরিচালনায় সরকারী জমি দখল করে মাদক বিক্রি আস্তান গুড়িয়ে দেয়া হয়েছে। তাদের সাহসী কারণে এই মাদক উদ্ধার করা হয়েছে। এভাবে তাদের সাহসিতায় ধারাবাহিকতায় এই এলাকা মাদকমুক্ত করতে পারবো।

এলাকার ইলিয়াছ মিয়া জানান, এই মাদকের আস্তানাগুলো কারণে ছেলেমেয়েদের নিয়ে বসতবাস করার কষ্টকর ছিল। স্থানীয় কাউন্সিলর ও পুলিশের এমন মহৎ উদ্যোগ নেয়া তাদের সাধুবাদ জানায়। কাউন্সিলর শওকত হাসেম শকু মাদকের বিরোধী অভিযানকে আমরা সব সময় সহযোগিতা করবো।

স্থানীয় কাউন্সিলর শওকত হাসেম শকু জানান, তল্লা রেললাইন এলাকা মাদকের আস্তানা দীর্ঘদিন যাবৎ। গঞ্জে আলী খাল পুনঃখনন ও সংস্কার কাজ চলাকালে অনেকে মাদকের আস্তানা গুড়িয়ে দেয়া হয়েছে। কিন্তু কিছু মাদক সমরাট নতুন করে মাদকের আস্তানা গড়ে তুলেছে। সংবাদপত্রে লিখনী কারণে এই মাদকের আস্তানা আমরা সন্ধান পেয়েছি। ফতুল্লা মডেল থানা অফিসার ইনচার্জ সহযোগিতায় তল্লা এই মাদকের আস্তানায় অভিযান চালিয়ে গাঁজা উদ্ধার করা হয়েছে। সরকারী জমি দখল করে প্রকাশ্যে মাদকের আস্তানাগুলো গুড়িয়ে দেয়া হয়েছে।

ফতুল্লা মডেল থানা পরিদর্শক (তদন্ত) এস এম শফিকুল ইসলাম জানান, ওয়ার্ড কাউন্সিলর ও এলাকাবাসী সহযোগিতায় তল্লা এলাকায় অবৈধভাবে সরকারী জমি দখল করে মাদকের আস্তানা গুড়িয়ে দেয়া হয়েছে। মাদক বিরোধী অভিযানে মাদক বিক্রেতারা পালিয়ে যায়। সেখান থেকে কিছু মাদক উদ্ধার করা হয়েছে, বিক্রেতাদের গ্রেপ্তারের অভিযান চলবে।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
newsnarayanganj-video
আজকের সবখবর