‘৯৯৯’ এ ফোন দিয়ে উচ্চ শব্দ থেকে স্বস্তি


সিটি করেসপন্ডেন্ট | প্রকাশিত: ১১:২৪ পিএম, ০৫ মার্চ ২০২১, শুক্রবার
‘৯৯৯’ এ ফোন দিয়ে উচ্চ শব্দ থেকে স্বস্তি

নারায়ণগঞ্জের বন্দর উপজেলায় প্রায় সময় বিভিন্ন অনুষ্ঠানের নামে উচ্চশব্দে গান বাজানো হয়। কিন্তু তাদের প্রতিবাদ জানালেও কোন ক্ষ্যান্ত হয়নি। এতে করে ভোগান্তিতে পরেন সাধারণ নগরবাসী। তবে সব থেকে বেশি ভোগান্তিতে পরেন হাট অ্যাটার্কের রোগী সহ বিভিন্ন রোগে আক্রান্তরা। আর তেমনি শুক্রবার রাতে ‘৯৯৯’ ফোন দেওয়ায় দ্রুত ব্যবস্থা নিয়ে স্বস্তি দিয়েছেন নগরবাসীকে।

৫ মার্চ শুক্রবার রাতে বন্দর উপজেলার ২৩নং ওয়ার্ডের কদম রসুল খাদেম পাড়ায় ওই ঘটনা ঘটে।

ভুক্তভোগী মেহেদী হাসান বলেন, ‘শুক্রবার সন্ধ্যা থেকে বিয়ের অনুষ্ঠান উপলক্ষ্যে আমার বাসার দুই পাশে দুটি অনুষ্ঠানে উচ্চ শব্দে গান বাজানো হচ্ছিল। অনেকেই তাদের বলে আসছিল সাউন্ড কমানো জন্য কিন্তু সামাজিক অনুষ্ঠান হওয়ায় রাত ১১টা পর্যন্ত তাদের কোন কিছু বলা হয়নি। কিন্তু এদিকে বাসায় উচ্চ শব্দের জন্য আমার দাদী অসুস্থ হয়ে পড়েন। পরে বাধ্য হয়ে রাত ১২টায় তাদের সাউন্ড কমিয়ে বাজানোর জন্য অনুরোধ করা হয়। কিন্তু তারা এতে ক্ষিপ্ত হয়ে উঠে। তারা কোন অনুরোধ রাখেনি। রাতে দাদীর অবস্থা আরো অসুস্থ হলে বাধ্য হয়ে ৯৯৯ এ ফোন দিয়ে অভিযোগ দেই। পরে সেখানে বন্দর থানায় ফোন দিয়ে জানায়। তখন বন্দর থানা পুলিশ দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহণ করেন। তারা সরেজমিনে এসে দুটি অনুষ্ঠানের উচ্চ শব্দের গান বাজানো বন্ধ করে দেন। তারপর আমার মতো আশে পাশের সবাই স্বস্তি পায়। এজন্য বন্দর থানা পুলিশকে অনেক ধন্যবাদ।

অনলাইন সূত্রে জানা গেছে, ‘এসব অনুষ্ঠানে যারা গান বাজনা বাজায় তাদের কাছে বিভিন্ন রকম গানের আবদার আর তা বাজতে থাকে একের পর এক । এর ফলে খোলা স্থান হলে তা বহুদুর পর্যন্ত যায় , কিন্তু যখন তা আবাসিক এলাকায় বাজানো নয় তা বিশাল আকারে শব্দ দূষনে পরিনত হয়। শব্দের মাত্রা ৮০ ডেসিবল হলে তাকে শব্দ দূষন বলে, কিন্তু এসব অনুষ্ঠানে তা অতিক্রম করে ১০৫ ছাড়িয়ে যায় যা মানুষকে ঊচ্চ রক্তচাপ ও বিভিন্ন সমস্যার কারন হয়ে দাড়ায়। বিশেষ ভাবে শিশু ও বয়বৃদ্ধ যারা তারা সবচাইতে সমস্যার সম্মুখীন হচ্ছে ।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
newsnarayanganj-video
আজকের সবখবর