সবজির বাগানে গাঁজা চাষ


সিটি করেসপন্ডেন্ট | প্রকাশিত: ০৬:০৮ পিএম, ০৪ মে ২০২১, মঙ্গলবার
সবজির বাগানে গাঁজা চাষ

সিদ্ধিরগঞ্জে শাক সবজির চাষের আড়ালে গাঁজা চাষের খবর পাওয়া গেছে। এলাকাবাসী মতে সিদ্ধিরগঞ্জ থানাধীন এসও রোড এলাকার সুস্তিপুর মাঠে বিআইডব্লিউটিএ’র জায়গায় শাক-সবজির আড়ালে গাঁজার চাষ করছেন স্থানীয় আলমগীর ও জাহাঙ্গীর নামে দুই ভাই। তাদের বিরুদ্ধে মাদক বিরোধী আইনে একাধিক মামলাও রয়েছে।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, বিশাল জায়গা জুড়ে আলাদা আলাদা সীমানায় অসংখ্য শাক-সবজির বাগান রয়েছে। সেখানে বিভিন্ন ধরনের শাক-সবজির চাষ হচ্ছে। পুরো বাগানটি সবুজে ছেয়ে আছে। এর মধ্যেই জাহাঙ্গীর ও আলমগীর ছোট্ট একটি অংশে পাট শাক, পুঁই শাক সহ নানান ধরনের শাক ও সবজির চাষ করেছে। এর এক পাশে ছোট একটি বাঁশের খুঁটিকে ভর করে প্রায় ৩ ফুটের মত লম্বা বড় একটি গাঁজা গাছ বেড়ে উঠেছে। বাতাসে যেন গাঁজা গাছ হেলে না পড়ে সেজন্য দেওয়া হয়েছে বাঁশের খুঁটি। গাছ লম্বায় বড় হয়েছে প্রায় ৩ ফুট।

খবরটি এলাকায় ছড়িয়ে পড়লে মুহূর্তেই নারী-পুরুষের ভীড় জমে সবজির বাগানটির পাশে। স্থানীয় বাসিন্দা মো. মহিউদ্দিন সানি বলেন, অনেক আগ থেকেই আলমগীর ও জাহাঙ্গীর এখানে শাক-সবজির চাষ করে। আমরা এলাকাবাসী এমন কর্মকান্ডে প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করছি।

বাংলাদেশ ট্যাংকলরী শ্রমিক ইউনিয়নের কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আশ্রাফ উদ্দিনের অফিসের পাশে ৩ মে সমপরিমানের একটি গাঁজা গাছ পাওয়া গেছে। বিষয়টি থানায় জানানো হলে পুলিশ এসে গাঁছটি উঠিয়ে ধ্বংস করেছে। আশ্রাফ উদ্দিন বলেন, এলাকায় গাঁজা গাছের বিস্তৃতি দেখা যাচ্ছে। এতে সাধারণ মানুষ বিচলিত। এ বিষয়ে প্রশাসনিক সুষ্ঠু হস্তক্ষেপ প্রয়োজন। রাজনৈতিক দলের ছত্রছায়ায় স্থানীয় এক নেতার লোকজন এ কাজে জড়িত বলে অভিযোগ আশ্রাফ উদ্দিনের।

এলাকাবাসী জানান, বাগানটি বিআইডব্লিউটিএ’র জায়গা। স্থানীয়রা নিজেদের মত করে জায়গা দখল করে বাগান করেছে। গাঁজা গাছ চাষের জমিটিতে আলমগীর ও জাহাঙ্গীর নামে দুজন বাগান করতো। তাদের বিরুদ্ধে থানায় একাধিক মাদক মামলা আছে।

এ বিষয়ে সিদ্ধিরগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মশিউর রহমান জানান, একই এলাকায় দুইদিনে গাঁছা গাছ পাওয়ার বিষয়টি অবগত হয়েছি। ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
newsnarayanganj-video
আজকের সবখবর