নারায়ণগঞ্জে সাংবাদিকেরা অসুস্থতার থাবায়


স্পেশাল করেসপনডেন্ট | প্রকাশিত: ১০:৫২ পিএম, ১০ মে ২০২১, সোমবার
নারায়ণগঞ্জে সাংবাদিকেরা অসুস্থতার থাবায়

করোনা মহামারীকালে নানাভাবে অসুস্থ হয়ে পড়ছেন নারায়ণগঞ্জের সাংবাদিকরা। সবশেষ একটি শোকের ঘটনাও রয়েছে। মারা গেছেন তরুণ সাংবাদিক মঞ্জুর আহমেদ অনিক। ৭ মে রাতে তিনি হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মারা যান। তাঁর মৃত্যুতে নারায়ণগঞ্জের সাংবাদিকেরা গভীর শোক প্রকাশ করেছেন।

অসুস্থদের কয়েকজন : শ্বাসকষ্ট, ডায়াবেটিক সহ অন্যান্য কারণে অসুস্থ হয়েছিলেন কিংবা এখনো অসুস্থ তাঁদের মধ্যে রয়েছেন খ্যাতিমান প্রবীণ সাংবাদিক অহিদুল হক খান, দৈনিক ইনকিলাব এর স্টাফ রিপোর্টার হাফিজুর রহমান মিন্টু, দৈনিক মানবকণ্ঠের জেলা প্রতিনিধি নাহিদ আজাদ স্বপন, নারায়ণগঞ্জ সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি আবদুস সালাম, দৈনিক যুগের চিন্তা’র সাবেক নির্বাহী সম্পাদক সিনিয়র সাংবাদিক এজাজ কোরেশী, সাংবাদিক রফিকুল ইসলাম জীবন প্রমুখ।

করোনায় আক্রান্তদের কয়েকজন : এছাড়া করোনায় আক্রান্ত হয়েছিলেন সিনিয়র সাংবাদিক সৈয়দ দীল মোহাম্মদ দীলু, দৈনিক শীতলক্ষা’র সম্পাদক আরিফ আলম দীপু, এস এ টিভির নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি ও সকাল বার্তার সম্পাদক প্লাবন রাজু, দৈনিক যুগান্তর এর নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি রাজু আহমেদ, নারায়ণগঞ্জ সাংবাদিক ইউনিয়ন এর সাবেক সেক্রেটারী ও বাংলাভিশন এর প্রতিনিধি আফজাল হোসেন পন্টি, প্রথম আলো’র নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি মুজিবুল হক পলাশ, সংবাদদাতা গোলাম রব্বানী শিমুল ও ফটো সাংবাদিক দিনার মাহমুদ প্রমুখ।

করোনায় আক্রান্তদের কয়েকজন : উপরোল্লিখিতরা ছাড়াও নারায়ণগঞ্জের আরো অনেক গণমাধ্যমকর্মী অসুস্থ সহ করোনায় আক্রান্ত হয়েছিলেন।

কার কি অবস্থা : পেশাগত দায়িত্ব পালন করার সময় অসুস্থ হয়ে কয়েকজন সিনিয়র সাংবাদিক শয্যাশায়ী। এই পক্ষকালে সর্বশেষ অসুস্থ হলেন নব্বইয়ের দশকের ‘আজকের কাগজ’ এর দুর্দান্ত রিপোর্টার নাহিদ আজাদ। বর্তমানে তিনি দৈনিক মানবকণ্ঠের জেলা প্রতিনিধি। ডায়াবেটিক জনিত জটিলতা নিয়ে গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় বারডেম হসপিটালে আইসিইউতে রয়েছেন। বর্তমানে ঢাকায় তার চিকিৎসা চলছে।

খ্যাতিমান প্রবীণ সাংবাদিক অহিদুল হক খান শয্যাশায়ী। ব্রেইনস্ট্রোকে শরীরের বামপাশ পক্ষাঘাতগ্রস্ত (প্যারালাইজ) হয়েছে। নন্দীপাড়ার পুরনো বাড়িতে ছোট্ট ঘরে একজনের খাটেই কাটছে এক সময়ের জাদরেল সাংবাদিক অহিদুল হক খানের অষ্টপ্রহর। ব্রেইন হেমারেজ এর কারণে কিছুটা স্মৃতিভ্রস্ট হয়েছেন। সহসা কাউকে চিনতে পারেন না। ক’দিন আগে তাকে দেখতে গিয়েছিলেন তাঁরই শিষ্য দৈনিক শীতলক্ষা’র সম্পাদক আরিফ আলম দীপু। তাকে ঠিকমত চিনতে পারেননি। অহিদুল হক খান বাম চোখেও কম দেখেন। বিছানাতেই প্রকৃতির ডাকে সাড়া দিতে হয়। পরিচিত কাউকে কাছে পেলে বাইরে ঘুরতে যাওয়ার কথা বলেন। আবেগপ্রবণ হয়ে পড়লে শিশুদের মত কেঁদে উঠেন। প্রতিটি কথা বলার সময় হাউমাউ করে কাঁদতে থাকেন। পিতাকে একদমই কাঁদতে দেখতে চায় না, প্রিয় মেয়ে জয়ী। নিদারুণ যন্ত্রণায় বিনিদ্র রাত কাটে অহিদুল হক খানের। মহান আল্লাহতায়ালার কাছে নাজাত চাইছেন তিনি।

খোঁজ নিয়ে সিনিয়র সাংবাদিক ইমতিয়াজ আহমেদ জানান, অসুস্থতার খবর পেয়ে অনেকেই অহিদুল হক খানকে সহায়তা করেছেন। তবে জীবনের এই শেষভাগে এসে সাংবাদিক অহিদুল হক খানের পাশে ছেলের চেয়েও বেশি আটঘাট বেধে নেমেছেন একমাত্র কন্যা তাবাসসুম হক খান ওরফে (জয়ী)। সংসার খরচ থেকে শুরু করে পিতার ব্যয়বহুল চিকিৎসার খরচ যোগাড় করতে জয়ী রাতদিন পরিশ্রম করে যাচ্ছেন। শয্যাশায়ী অহিদুল হক খান এর কাছে মেয়ে এখন মায়ের মর্যাদা পেয়েছে। তিনি সারাক্ষণ মেয়েকে মা বলেই ডাকেন। চিকিৎসায় কিছুটা বিভ্রাট করতে থাকলে জয়ী তার পিতাকে সন্তানের মতই ¯েœহের শাসন করেন। অহিদুল হক খানের অসুস্থতার জন্য জয়ীর বিদেশ যাওয়া পিছিয়ে গেছে। এ বছরের মার্চ নাগাদ পিএইচডি করতে জয়ীর আমেরিকা যাওয়ার কথা ছিল। আগামী জুন নাগাদ বিদেশ যাওয়ার ডেট পড়তে পারে। অসুস্থ পিতাকে শয্যাশায়ী রেখে বিদেশে যেতে মতদ্বৈততায় ভুগছে জয়ী। তবে পিতার স্বপ্ন মেয়ে অবশ্য বিদেশে গিয়ে উচ্চতর ডিগ্রী নিয়ে দেশে ফিরবে।

এদিকে অহিদুল হক খান এর পরপরই অসুস্থ হয়ে পড়েন দৈনিক যুগের চিন্তা’র সাবেক নির্বাহী সম্পাদক সিনিয়র সাংবাদিক এজাজ কোরেশী। তাঁর শ্বাসকষ্ট হচ্ছিল। যার দরুণ তাকে ঢাকায় রেফার্ড করা হয়। দীর্ঘদিন ব্যয়বহুল চিকিৎসা নিয়ে সম্প্রতি তিনি বাসায় ফিরেছেন।

এবার লকডাউনের আগে অসুস্থ হয়ে পড়েছিলেন দৈনিক ইনকিলাব এর স্টাফ রিপোর্টার হাফিজুর রহমান মিন্টু। সাংবাদিক নেতা ও দৈনিক সোজাসাপটা সম্পাদক আবু সাউদ মাসুদ ও দৈনিক শীতলক্ষা সম্পাদক আরিফ আলম দিপু দ্রুত চিকিৎসার ব্যবস্থা করেছিলেন। প্রথমে মিন্টু ভাইকে ভর্তি করা হয়েছিল খানপুর ৩০০ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতালে। অবস্থা বেগতিক হলে তাকে ঢাকায় রেফার্ড করা হয়। প্রবীণ সাংবাদিক মিন্টু একাকী জীবনযাপন করতেন বিধায় তার চিকিৎসা পর্বে কিছুটা ব্যাঘাত ঘটে। তবুও তিনি এখন কিছুটা সুস্থ। বয়সের ভারে ন্যুজ।

দীর্ঘদিন অসুস্থ ছিলেন সিনিয়র সাংবাদিক ও জেলা সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি আব্দুস সালাম। তিনি জটিল রোগে আক্রান্ত হয়ে চিকিৎসাধীন ছিলেন। বর্তমানে তিনি সুস্থ।

জেলায় অনেক সংবাদকর্মী মহামারী করোনাতে আক্রান্ত হয়েছিলেন। সকলেই স্বাস্থ্যবিধি মেনে চিকিৎসা নিয়ে সুস্থ হয়ে উঠেছেন। দৈনিক শীতলক্ষা’র সম্পাদক আরিফ আলম দীপু ও তার সহধর্মীনি করোনায় আক্রান্ত হয়েছিলেন। নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যেই সুস্থতা লাভ করেন। এস এ টিভির নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি ও সকাল বার্তার সম্পাদক প্লাবন রাজু করোনায় আক্রান্ত হয়েছিলেন। প্রথম আলো’র নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি মুজিবুল হক পলাশ করোনায় আক্রান্ত হয়ে ছিলেন। পেশাগত দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে তিনি কোভিডে আক্রান্ত হন। তিনিও সেরে উঠেন। বর্তমানে তিনি পুরোদমে পেশাগত দায়িত্ব পালন করছেন। করোনাযোদ্ধা পলাশ নিজেই করোনাকে জয় করে এসেছেন। নব্বইয়ের দশকে স্থানীয় গণমাধ্যমে আলোচিত কলামিস্ট মেহেদী হাসান বিচ্ছু খ্যাত সিনিয়র সাংবাদিক সৈয়দ দীল মোহাম্মদ দীলু করোনায় আক্রান্ত হয়ে দীর্ঘদিন অসুস্থ ছিলেন। বর্তমানে তিনি সুস্থ আছেন।

করোনায় আক্রান্ত হয়েছিলেন নারায়ণগঞ্জ সাংবাদিক ইউনিয়ন এর সাবেক সেক্রেটারী ও বাংলাভিশন এর প্রতিনিধি আফজাল হোসেন পন্টি। দৈনিক যুগান্তর এর নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি রাজু আহমেদ করোনায় আক্রান্ত হয়েছিলেন দ্বিতীয় দফায়। বর্তমানে সুস্থ আছেন। প্রথম আলো’র সংবাদদাতা গোলাম রব্বানী শিমুল ও ফটোসাংবাদিক দিনার মাহমুদ ও করোনার সাথে যুদ্ধ করে জয়ী হলেন। তারা এখন দ্বিগুণ উৎসাহ নিয়ে কাজ করছেন।

তীব্র শ্বাসকষ্ট নিয়ে সাংবাদিক রফিকুল ইসলাম জীবন সাজেদা হাসপাতালে চিকিৎসা নিয়েছেন। সাংবাদিক রফিকুল ইসলাম জীবন নিউ এইজ পত্রিকার নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রতিনিধি, দৈনিক শীতলক্ষার সিনিয়র স্টাফ রিপোর্টার ও নারায়ণগঞ্জ প্রেস ক্লাবের যুগ্ম সম্পাদক।

কয়েকজন সিনিয়র সাংবাদিক জানান, নারায়ণগঞ্জ জেলার গণমাধ্যম এখন বিস্তৃত। জাতীয় ও স্থানীয় সংবাদ মাধ্যমে অনেক সংবাদকর্মী কর্মরত আছেন। অনেকেই প্রতিষ্ঠিত। আবার অনেকেই ধুকছেন। স্বাস্থ্যগত ঝুঁকি নিয়েও পেশাগত দায়িত্ব করে যাচ্ছেন। ফলে অনেকেই করোনায় আক্রান্ত হয়ে পড়ছেন। স্বাস্থ্যবিভাগ থেকে সহায়তা মিলছে। তবে দূরারোগ্য ও কঠিন অসুখ হলে একজন সংবাদকর্মী অসহায় হয়ে পড়েন। পরিবারের পক্ষে চিকিৎসার ব্যয়ভার বহন করা কঠিন হয়ে পড়ে।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
newsnarayanganj-video
আজকের সবখবর