চেয়ারম্যান মাসুমের ছেলেকে পিটুনী


সিটি করেসপন্ডেন্ট | প্রকাশিত: ০৭:১০ পিএম, ২৩ নভেম্বর ২০২০, সোমবার
চেয়ারম্যান মাসুমের ছেলেকে পিটুনী

নারায়ণগঞ্জের বন্দর উপজেলার ধামগড় ইউপির হালুয়াপাড়া এলাকায় শেখ রাসেল উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা স্কুলের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি ও স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান মাসুম আহমেদের ছেলে জিতুকে মারধর করেছে স্থানীয় একদল যুবক।

জানা গেছে, ধামগড় ইউপির হালুয়াপাড়া গ্রামে নারায়ণগঞ্জ-৫ (শহর-বন্দর) আসানের সংসদ সদস্য একেএম সেলিম ওসমান অর্থায়নে নির্মিত শেখ রাসেল উচ্চ বিদ্যালয়। মাসুম চেয়ারম্যানের ছেলে জিতুর বখাটেপনা উত্ত্যক্তে অতিষ্ট হয়ে পড়ে আশপাশ কামতাল, মালিভিটা, দশদোনা, হালুয়াপাড়া, জাঙ্গাল ও কাজিপাড়া সহ ১০ গ্রামের ছাত্রী এবং অভিভাবকগন। এতে কোনো শিক্ষার্থীরা প্রতিবাদ করলেই মারধর শুরু করে চেয়ারম্যান পুত্র জিতু।

এতে শিক্ষার্থীদের মধ্যে চাপা ক্ষোভ সৃষ্টি হয়েছে। গত ১৭ নভেম্বর বিকালে কাজিপাড়া গ্রামের স্কুল ছাত্রীকে প্রেম নিবেদনের ঘটনার জের ধরে চিড়ইপাড়া কলোনীর মো. মুন্নান মিয়ার ছেলে মো. রিমনকে মারধর করে বখাটে জিতু গ্রুপের লোকজন।

শনিবার ২১ নভেম্বর সন্ধ্যার পর বহ্মপুত্র নদের তীরে কামতাল গ্রামে ললিত সাধুর জন্মবার্ষিকী অনুষ্ঠানে আসে কাজী পাড়া গ্রামের জিতু গ্রুপের লোকজন। এসময় চিড়ইপাড়া কলোনীর মুন্নান মিয়ার ছেলে রিমন তার সহযোগীরা তাদেরকে মারধর করে। পরে কাজীপাড়া গ্রামের জিতু গ্রুপের লোকজন চেয়ারম্যানের ছেলে জিতুকে আশ্রমে নিয়ে আসে। এরপর জিতু তার সহযোগীরা প্রথমে রিমনকে মারধর শুরু করে। এসময় চিড়ইপাড়া কলোনীর উপস্থিত ছেলেরা জিতুর উপর ক্ষিপ্ত হয়ে উঠে। শুরু হয় দুই গ্রুপের মারামারি। জিতু গ্রুপের লোকজন সংখ্যায় কম হওয়ায় পরে জিতুকে পিটুনি দেয় চিড়ইপাড়া কলোনীর লোকজন। এ ঘটনার পর থেকে চিড়ইপাড়া কলোনীতে প্রতিনিয়ত অভিযান অব্যহত রেয়েছে পুলিশ।

কামতাল তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ ইন্সপেক্টর শফিকুল ইসলাম জানান, চেয়ারম্যান মাসুম আহম্মেদের ছেলে জিতুকে মারধর করে একটি দামি মোবাইল সেট ছিনিয়ে নিয়ে গেছে দুর্বৃত্তরা। ঘটনার সঙ্গে জড়িত সকলেই পালিয়ে রয়েছে। ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা অব্যহত রয়েছে।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
newsnarayanganj-video
আজকের সবখবর