আজিজের লাশ বিপ্লবের কাঁধে


সিটি করেসপন্ডেন্ট | প্রকাশিত: ০৫:৩৫ পিএম, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২০, শনিবার
আজিজের লাশ বিপ্লবের কাঁধে

পশ্চিম তল্লা বাইতুস সালাত জামে মসজিদে ৪ সেপ্টেম্বর এশা নামাজ চলাকালে ভয়াবহ বিস্ফোরণে আরেকজনের মৃত্যু হয়েছে। তিনি লন্ড্রি ব্যবসায়ী আব্দুল আজিজ (৪০) শনিবার ১৯ সেপ্টেম্বর ভোর ৫টায় ঢাকা মেডিকেলের শেখ হাসিনা বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে আইসিইউতে মারা যান।

ভাড়াটিয়া আব্দুল আজিজ লাশ কাধে বহন করে তল্লা বড় মসজিদে জানাযা শেষে মাসদাইর কবরস্থানে নিয়ে যান ভাড়িওয়ালা জেলা যুবলীগ নেতা জানে আলম বিপ্লব।

জানাযা পূর্বে জানে আলম বিপ্লব বলেন, এই দায় দায়িত্ব কেউ এড়াতে পারে না। নিহত ৩৩ পরিবারের সদস্যদের হারিয়ে আমরা শোকাহত।

মসজিদ কমিটির উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, কাদাঁছোড়া ছেড়ে হতাহত পরিবারের প্রতি খেয়াল রাখবেন। নিহত আব্দুল আজিজ সহ নিহত সকলকে ক্ষমা করে দিবেন।

তল্লা বড় মসজিদের খতিব ওমর ফারুক বলেন, নিহত আব্দুল আজিজ সহ যারা মৃত্যু বরণ করেছেন তারা সকলেই ভালো মনের মানুষ ছিলেন। তাদের অবশ্যই বেহেশত ও শহীদী মৃত্যু কবুল করেছে মহান আল্লাহ। এর পাশাপাশি বলতে চাই বিস্ফোরিত বাইতুস সালাত জামে মসজিদে আগামী শুক্রবার জুম্মা নামাজ আদায় করার দাবি জানায়। দীর্ঘদিন মসজিদে নামাজ আদায় না হওয়ায় দুঃখ প্রকাশ করেন।

নিহত আব্দুল আজিজের স্ত্রী আসমা বলেন, মসজিদে ভয়াবহ বিস্ফোরণের পিছনে দোষীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করি। পরিবারের উপার্জনকারী আজ এই বিস্ফোরণে হারালাম। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কাছে স্বামী হারানো বিচার চাই।

উল্লেখ্য, পশ্চিম তল্লায় বাইতুস সালাত জামে মসজিদে বিস্ফোরণে দগ্ধ লন্ড্রি ব্যবসায়ী আব্দুল আজিজ (৪০) মৃত্যুতে সংখ্যা দাঁড়ালো ৩৩ জনে। তিনি ফতুল্লার পশ্চিম তল্লার মনু মিয়ার ছেলে। তার আবু সাঈদ (১৬) নামে এক ছেলে ও সামিয়া (১০) নামে এক মেয়ে রয়েছে। দুজনই মাদরাসা শিক্ষার্থী।

গত ৪ সেপ্টেম্বর রাতে এশার নামাজের সময় ফতুল্লার পশ্চিম তল্লা বায়তুস সালাত জামে মসজিদে বিস্ফোরণে দগ্ধ হন আজিজ। বিস্ফোরণে তার শরীরের ৪৬ শতাংশ পুড়ে গেছে।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
newsnarayanganj-video
আজকের সবখবর