এমপির বিরুদ্ধে আওয়ামী লীগ নেতাদের নালিশ!


স্পেশাল করেসপনডেন্ট | প্রকাশিত: ১০:৩৯ পিএম, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০, মঙ্গলবার
এমপির বিরুদ্ধে আওয়ামী লীগ নেতাদের নালিশ!

নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দ কয়েকদিন পর পরই বিভিন্ন ইস্যুতে কেন্দ্রীয় নেতাদের সাথে সাক্ষাৎ করেছেন। বিশেষ করে আওয়ামীলীগের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির ঢাকা বিভাগের দায়িত্বপ্রাপ্ত সাংগঠনিক সম্পাদক ও সাবেক প্রতিমন্ত্রী মির্জা আজমের সাথেই তাদের বেশি সাক্ষাৎ হয়ে থাকে। আর এসব সাক্ষাতের অন্যতম প্রধান উদ্দেশ্য থাকে একে অপরের নালিশ কিংবা সাংগঠনিক বিষয় তুলে ধরা। তবে একে অপরের বিরুদ্ধে নালিশ দেয়াটাই বেশি হয়ে থাকে।

তারই ধারাবাহিকতায় এবার ঢাকা বিভাগের দায়িত্বপ্রাপ্ত সাংগঠনিক সম্পাদক ও সাবেক প্রতিমন্ত্রী মির্জা আজমের কাছে একজন সংসদ সদস্যের বিরুদ্ধে নালিশ দিয়ে এসেছেন। আর তিনি হলেন নারায়ণগঞ্জ-২ আসনের সংসদ সদস্য নজরুল ইসলাম বাবু। নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের নেতাদের এই সাক্ষাতে সংসদ সদস্য নজরুল ইসলাম বাবুর বিরুদ্ধে নানা অভিযোগ দাঁড় করিয়ে আসছেন। যদিও এসকল অভিযোগ কতটা কার্যকর হবে সেটা নিয়ে যথেষ্ট সন্দেহ রয়ে গেছে।

জেলা আওয়ামী লীগের নেতাদের সূত্রে জানা গেছে, ২৯ সেপ্টেম্বর মঙ্গলবার নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের একটি গ্রুপ আওয়ামীলীগের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির ঢাকা বিভাগের দায়িত্বপ্রাপ্ত সাংগঠনিক সম্পাদক ও সাবেক প্রতিমন্ত্রী মির্জা আজমের সাথে সাক্ষাৎ করে আসছেন।

আওয়ামী লীগের এই গ্রুপের মধ্যে ছিলেন জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুল হাই, সহ সভাপতি মিজানুর রহমান বাচ্চু, খবির উদ্দিন, মো. শিকদার রসূল, সাধারণ সম্পাদক আবু হাসনাত মোহাম্মদ শহীদ বাদল, যুগ্ম সম্পাদক আবু জাফর চৌধুরী বিরু, ইকবাল পারভেজ, দপ্তর সম্পাদক এম এ রাসেল ও সদস্য অ্যাডভোকেট শামসুল ইসলাম ভূইয়া সহ অন্যান্য নেতৃবন্দ।

আর এই সাক্ষাতের মূল ভূমিকায় ছিলেন নারায়ণগঞ্জ-২ আসনের মনোনয়ন প্রত্যাশী নেতা ও জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ইকবাল পারভেজ। তিনিই জেলা আওয়ামী লীগের নেতাদের নিয়ে যান।

সাক্ষাতের মূল উদ্দেশ্যই ছিল নারায়ণগঞ্জ-২ আসনের সংসদ সদস্য নজরুল ইসলাম বাবুর বিরুদ্ধে মির্জা আজমের কাছে নানা অভিযোগ করা। ইকবাল পারভেজের হয়ে অভিযোগ তুলে ধরেন জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুল হাই। এসময় আবু হাসনাত শহীদ বাদল উপস্থিত থাকলেও তিনি কোনো কথা বলেননি।

আর এসকল অভিযোগের মধ্য রয়েছে নজরুল ইসলাম বাবু আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের মূল্যায়ন করেন না। বিএনপি জামাত নেতাকর্মীদের সাথে তার সখ্যতা বেশি। প্রমাণ হিসেবে ইকবাল পারভেজ বিভিন্ন লিফলেট দেখান মির্জা আজমকে। কথা না শুনলে দলীয় নেতাকর্মীদের গালাগালি করেন নজরুল ইসলাম বাবু। এই গালিগালাজের প্রমাণ হিসেবে ইকবাল পারভেজ নজরুল ইসলাম বাবুর একটি অডিও রেকর্ডও শুনান মির্জা আজমকে।

তবে মির্জা আজম এসকল অভিযোগ শুনে বলেন, এগুলো দেখার দায়িত্ব জেলা আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দের। বিশেষ করে জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এগুলো দেখবেন। আমার কাছে অভিযোগ করার তো কিছু নেই।

ওই সাক্ষাৎ পর্বে থাকা নারায়ণগঞ্জ আওয়ামী লীগের একাধিক নেতা নিউজ নারায়ণগঞ্জকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

এর আগে গত ২২ সেপ্টেম্বর আড়াইহাজারের বিভিন্ন জনপ্রতিনিধিদের নিয়ে আওয়ামীলীগের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির ঢাকা বিভাগের দায়িত্বপ্রাপ্ত সাংগঠনিক সম্পাদক ও সাবেক প্রতিমন্ত্রী মির্জা আজমের সাথে সাক্ষাৎ করেছিলেন নজরুল ইসলাম বাবু।

ওই সাক্ষাতে নজরুল ইসলাম বাবুর সাথে ছিলেন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান হেলো সরকার, জেলা আওয়ামী সাংগঠনিক সম্পাদক সুন্দর আলী ও সদস্য হালিম শিকদার সহ অন্যান্যরা। আর এই সাক্ষাতের বিপরীতে ২৯ সেপ্টম্বর মঙ্গলবার জেলা আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দদের নিয়ে ইকবাল পারভেজ সাক্ষাৎ করেছেন।

প্রসঙ্গত, টানা তিন মেয়াদ ধরে নারায়ণগঞ্জ-২ আসনের সংসদ সদস্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করে আসছেন নজরুল ইসলাম বাবু। আর তার বিপরীতে গত দুই মেয়াদ ধরে নারায়ণগঞ্জ-২ আসনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন চেয়ে আসছেন জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ইকবাল পারভেজ। কিন্তু এখন পর্যন্ত নজরুল ইসলাম বাবুকেই দল মনোনয়ন দিয়ে আসছে এবং ইকবাল পারভেজ বঞ্চিত হয়ে আসছেন। আর এই চাওয়া পাওয়ার হিসেব নিয়ে তাদের মধ্যে বিরোধ চলমান রয়েছে।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
newsnarayanganj-video
আজকের সবখবর