তারেকের সাথে কথা বলতে পেরে উজ্জীবিত মহানগর ছাত্রদল


স্টাফ করেসপনডেন্ট | প্রকাশিত: ১০:১৯ পিএম, ১৮ অক্টোবর ২০২০, রবিবার
তারেকের সাথে কথা বলতে পেরে উজ্জীবিত মহানগর ছাত্রদল

নারায়ণগঞ্জ মহানগর ছাত্রদলের কমিটি গঠনের পর থেকেই একের পর এক চমক দেখিয়ে আসছেন ছাত্রদলের নেতাকর্মীরা। তারই অংশ হিসেবে এবার কমিটি তৃণমূল পর্যায়ের নেতারা তাদের মূল দল বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের সাথে সরাসরি কথাও বলেছেন। আর এই কথা বলার পর থেকে নারায়ণগঞ্জ মহানগর ছাত্রদলের নেতাকর্মীরা আরও বেশি উজ্জীবিত হয়ে পড়েছেন। দলীয় আন্দোলন সংগ্রামে জোড়ালো ভূমিকা রাখার প্রত্যয়ে নতুনভাবে জেগে উঠার প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে কথা বলে আসা ছাত্রদল নেতাকর্মীদের প্রতিক্রিয়ায় এমনটাই স্পষ্ট হয়ে উঠছে।

সূত্র বলছে, ২০১৮ সালের ৫ জুন তৎকালিন ছাত্রদলের কেন্দ্রীয় কমিটির ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মামুনুর রশিদ মামুন ও সাধারণ সম্পাদক আকরাম উল হাসান মিন্টু স্বাক্ষরিত নারায়গঞ্জ মহানগর কমিটির অনুমোদন দেন। ওই কমিটিতে মহানগর ছাত্রদলের সভাপতি করা হয় শাহেদ আহমেদকে ও সাধারণ সম্পাদক করা হয় মমিনুর রহমান বাবুকে এবং সাংগঠনিক সম্পাদক করা হয় মারুউফুল ইসলাম পাপনকে।

একই সাথে মহানগর কিমিটিতে সিনিয়র সহ সভাপতি হিসেবে রাফিউদ্দিন রিয়াদ, ৬জন সহ সভাপতি শাকিল মিয়া, নাজিম পারভেজ অন্তু, শফিকুল ইসলাম শফিক, আলতাফ হোসেন ইব্রাহীম, সিরাজ উদ্দিন প্রধান দর্পন, হামিদুর রহমান সুমন। ৫ জন যুগ্ম সম্পাদক আলামিন প্রধান, লিংরাজ খান, রাকিবুর রহমান সাগর, সাজ্জাদ হোসেন ও ইব্রাাহীম বাবু।

নারায়ণগঞ্জ মহানগর ছাত্রদলের ওই কমিটি গঠনের পর পরই দীর্ঘ ১৬ বছরের রেকর্ড ভঙ্গ করে দিয়ে খুব অল্প সময়ের মধ্যে পূর্ণাঙ্গ কমিটির অনুমোদন নিয়ে আসেন সভাপতি শাহেদ আহমেদ ও সাধারণ সম্পাদক মমিনুর রহমান বাবু। আংশিক কমিটি গঠনের বছরই মাত্র ৪ মাসের ব্যবধানে ২০১৮ সালের ২৭ সেপ্টেম্বর ২৩৫ জনের পূণাঙ্গ কমিটির অনুমোদন নিয়ে আসেন। কমিটির সদস্যদের মধ্যে সভাপতি ছাড়াও ৩৪ জন সহসভপতি, ২৮ যুগ্ম সম্পাদক, ১৮ সহ-সম্পাদক, ২৪ সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক, সদস্য ৭৮, বাকিরা বিভিন্ন পদে রয়েছেন।

এই পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠনের প্রায় দুই বছর নারায়ণগঞ্জ মহানগর ছাত্রদলের অধীনে ৬টি ইউনিট কমিটির অনুমোদন নিয়ে এসেছে মহানগর ছাত্রদল। গত ১৫ সেপ্টেম্বর মঙ্গলবার ছাত্রদলের সভাপতি ফজলুর রহমান খোকন ও সেক্রেটারী ইকবাল হোসেন শ্যামল ওই ৬টি কমিটির অনুমোদন দেন। এর মধ্যে নারায়ণগঞ্জ বিশ্ববিদ্যালয় কলেজে ২১ সদস্য, সরকারী তোলারাম কলেজে ২১ সদস্য, কদমরসুল কলেজে ১১ সদস্য, বন্দর থানা ছাত্রদলের ২১ সদস্য, সিদ্ধিরগঞ্জ থানা ছাত্রদলের ২১ সদস্য ও নারায়ণগঞ্জ সদর থানা ২১ সদস্য বিশিষ্ট আহবায়ক কমিটি গঠন করা হয়েছে।

আর এই কমিটি ঘোষণা হওয়ার কেন্দ্রীয় ঘোষিত প্রথম কর্মসূচিতেই মহানগর ছাত্রদলের নেতার্মীরা বিশাল শোডাউন করেছেন। অনেকটা পুলিশের চোখ রাঙানি উপেক্ষা করেই তারা কর্মসূচি পালন করেছেন। যদিও পুলিশের বাধায় তাদের ছত্রভঙ্গ হতে হয়েছে।

এদিকে গত ১৫ অক্টোবর জুম ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে তাদের দলীয় ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের সাথে কথা বলেছেন। এদিন বিকেল ৪টা থেকে রাত ৯ টা পর্যন্ত আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। আর ওই আলোচনা সভায় জুম ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে যোগ দেন ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান। প্রতেক্যের সাথেই কথা বলেন তারেক রহমান। সেই সাথে তারেক রহমানে সাথে কথা বলতে পেরে মহানগর ছাত্রদলের ইউনিট কমিটির নেতারা আগের চেয়ে আরও বেশি উজ্জীবীত হয়ে পড়েছেন। তাদের জন্য অন্যতম অনুপ্রেরণা হিসেবে কাজ করছে এই আলোচনা।

নারায়ণগঞ্জ মহানগর ছাত্রদলের সভাপতি শাহেদ আহমেদ জানান, ওই দিনের যারা উপস্থিত ছিলেন তারা সকলেই দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের সাথে কথা বলতে পেরে আবেগে আপ্লুত হয়ে ছিলেন। তারা কল্পনা করতে পারেনি দলীয় প্রধানের সাথে তারা খোলামেলা কথা বলতে পারবেন। দলীয় প্রধানের এই আলোচনা তৃণমূল নেতাকর্মীদের জন্য প্রধান অনুপ্রেরণা হিসেবে কাজ করবে। আগামী দিনে তারা সক্রিয় ভূমিকা রাখতে পারবে।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
newsnarayanganj-video
আজকের সবখবর