সজীবে ক্ষুব্দ তারেক, দায়িত্ব নিলো কেন্দ্র


স্টাফ করেসপনডেন্ট | প্রকাশিত: ০৯:১০ পিএম, ১৬ জানুয়ারি ২০২১, শনিবার
সজীবে ক্ষুব্দ তারেক, দায়িত্ব নিলো কেন্দ্র

নারায়ণগঞ্জ জেলা ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক খাইরুল ইসলাম সজীবের কমিটির বিরুদ্ধে অবস্থানের কথা জেনে ক্ষুব্দ হয়েছেন বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান। তবে ছাত্রদলের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক ইকবাল হাসান শ্যামল সজীবকে নিয়ে বিষয়টি সমাধান করার জন্য তারেক রহমানের কাছ থেকে সময় চেয়ে নেন।

নারায়ণগঞ্জ জেলা ছাত্রদলের অন্তর্ভুক্ত ৮ টি ইউনিট কমিটি ঘোষণা করা হয়েছে ১ নভেম্বর দিবাগত রাতে। কমিটি অনুমোদন করেন জেলা ছাত্রদলের সভাপতি মশিউর রহমান রনি ও সাধারণ সম্পাদক খাইরুল ইসলাম সজীব। তবে জেলা ছাত্রদলের বাকি ইউনিট কমিটিগুলোতে এখন স্বাক্ষর করতে নারাজ সজীব।

জানা গেছে, সজীব সোনারগাঁ থানা ছাত্রদলের কমিটির আহবায়কসহ ২১টি পদই নিজের অনুগতদের দিয়ে করতে চান। এতে কেন্দ্রীয় সভাপতি ফজলুল রহমান খোকন এবং জেলা ছাত্রদলের সভাপতি মশিউর রহমান রনিসহ অনেকেই আপত্তি করেন। তাদের মতে কমিটিতে রাজপথের যোগ্য, ত্যাগী, সক্রিয় ছাত্র এবং সকলকে মিলিয়ে কমিটি দিতে হবে তাহলেই কমিটি শক্তিশালী হবে। কিন্তু সজীব এ কথা মানতে নারাজ। বরং এসব আপত্তির কারণে রনির বিরুদ্ধে নানা বিক্ষোভ মিছিল, নানা মন্তব্য করানোসহ ছাত্রদলের নেতাকর্মীদের উসকে দিচ্ছেন সজীব।

ইতোমধ্যে একাধিকবার তাকে ডেকেও কেন্দ্র বাকি ইউনিট কমিটিগুলো ছাড় করতে পারেনি। তাকে কমিটিগুলো দিয়ে দিতে অনুরোধ করলেও তিনি তার সিদ্ধান্তে অটল। সর্বশেষ কমিটি সংক্রান্ত জুম মিটিংয়ে তারেক রহমানের কাছে বিষয়টি উত্থাপন করা হলে তিনি এতে ক্ষুব্দ হন। পরে তিনি এ ব্যাপারে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিয়ে সামনে এগুতে বলেন ছাত্রদলের কেন্দ্রীয় নেতাদের। তবে এসময় কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক শ্যামল তারেক রহমানের কাছ থেকে সজীবের জন্য সময় চান। তিনি বিষয়টি সুরাহা করবেন বলে জানান।

এদিকে গেল ছাত্রদলের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতেও দেশের বাইরে ঘুরে বেড়িয়েছেন সজীব। ছাত্রদলের নেতাকর্মীদের নিয়ে কোন কর্মসূচী পালন করেননি সজীব। দলীয় ও সাংগঠনিক কর্মসূচী আসলেই পালিয়ে বেড়ান সজীব। নানা অজুহাতে কর্মীদের থেকে দূরে থাকেন তিনি। এতে কর্মীরাও ক্ষুব্দ তার উপর। নিজের অনুগত নেতাকর্মীদের ছাড়া অন্য কর্মীদের মূল্যায়নতো দূরে থাক তাদের বিষয়ে কোন খবরও রাখেন না সজীব। দীর্ঘদিন পদ না পেয়ে ঘুরে বেড়িয়েও নেতারা কমিটি না পেয়ে এখন হতাশায় ভূগছেন।

ইতোমধ্যে ঘোষিত ৮টি ইউনিট হলো- ফতুল্লা থানা, সরকারি মুড়াপাড়া কলেজ, সোনারগাঁ ডিগ্রি কলেজ, তারাব পৌরসভা, কাঞ্চন পৌরসভা, আড়াইহাজার পৌরসভা, গোপালদী পৌরসভা, সরকারি সফর আলী ভূঁইয়া কলেজ।

জেলা ছাত্রদলের একাধিক নেতা জানান, সজীব এখন দলীয় কোন কর্মকান্ডেই থাকেনা। সে রাজনীতি থেকে দূরে দূরে থাকে এবং দলে গ্রুপিয়ের চেষ্টা করে। রনির বিরুদ্ধে নেতাকর্মীদের উসকে দেয় এবং কর্মসূচী পালন করা থেকে নেতাকর্মীদের বিরত থাকতে বলে। প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী, তারেক রহমানের গ্রেফতারি পরোয়ানার প্রতিবাদে বিক্ষোভ কর্মসূচী পালন করানোর মত কর্মসূচীতেও নিজেকে আড়াল রেখে কর্মীদেরকেও নীরব থাকতে নির্দেশ দিয়েছেন এ সজীব। দ্রুত জেলা ছাত্রদলের পূর্ণাঙ্গ কমিট বাকি ইউনিট কমিটিগুলো ঘোষণা করতে এসব নেতারা এখন কেন্দ্রের হস্তক্ষেপ চান।

এদিকে কেন্দ্রীয় একাধিক সূত্র নিশ্চিত করেছেন, যদি কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক কমিটির ব্যাপারে সজীবকে নিয়ে সুরাহা করতে না পারেন তাহলে সজীবকে বাদ দিয়েই ইউনিট কমিটিগুলো দিয়ে দিতে দলের পক্ষ থেকে নীতিগতভাবে সিদ্ধান্ত হয়েছে। যদি এরকম হয় তাহলে সুপার ৫ কমিটি ঘোষণা করা হতে পারে। সেক্ষেত্রে সজীবের বিরুদ্ধেও সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেবে কেন্দ্র।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
newsnarayanganj-video
আজকের সবখবর