মায়ের বিরুদ্ধে কুৎসা


স্টাফ করেসপনডেন্ট | প্রকাশিত: ১০:৫৪ পিএম, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, রবিবার
মায়ের বিরুদ্ধে কুৎসা

নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের নির্বাচনকে কেন্দ্র করে নারায়ণগঞ্জ মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট খোকন সাহা মেয়র ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভীর বিরুদ্ধে বিভিন্ন সভা সমাবেশে কুৎসা রটনা করে যাচ্ছে। যদিও এসব কিছু মেয়র আইভীবে বাধাগ্রস্ত করার জন্য করা হচ্ছে তবে প্রকৃতপক্ষে তা দলের বিরুদ্ধেই যাচ্ছে। যা শৃংখলা বিরোধী কার্যক্রমে পর্যায়ে পড়ে।

এ বিষয়ে নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম বলেছেন, অ্যাডভোকেট খোকন সাহা যা করছেন তা অবশ্যই শৃঙ্খলা ভঙ্গ হচ্ছে। এগুলো কোনো দলীয় কর্মসূচি না। তাদের ব্যক্তিগত কর্মসূচি। যদি দলীয় কর্মসূচি হতো মহানগরের কর্মসূচি হতো তাহলে মহানগরের সভাপতি আনোয়ার হোসেন উপস্থিত থাকতো কিংবা মহানগরের সভাপতি জানতেন। আনোয়ার হোসেন নারায়ণগঞ্জে অবস্থান করছেন আর তাকে না জানিয়ে তার অনুমতি না সভা করা হচ্ছে। তিনি কিছুই জানেন না।

তিনি আরও বলেন, এসকল সভা তাদের ইচ্ছাকৃত মনগড়া সভা। এগুলো আইভীর বিরুদ্ধে সভা। কিন্তু আইভী কে? আইভী হলেন নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি। বাংলাদেশেও কোথাও তিন সদস্য বিশিষ্ট কমিটি হয় না। কেন্দ্র থেকে শুধু সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের নাম ঘোষণা করা হয়। একমাত্র নারায়ণগঞ্জ ব্যতিক্রম। যেখানে সহ সভাপতি হিসেবে মেয়র আইভীর নাম অনুমোদন দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। আর সেই আইভীর বিরুদ্ধে বিভিন্ন জায়গায় প্রোপাগান্ডা করা হচ্ছে।

জাহাঙ্গীর আলম বলেন, আওয়ামী লীগকে সুসংগঠিত করার ক্ষেত্রে তাদের কোনো ভূমিকা নেই। তারা কি পরিবর্তন চায় নিজেরাও জানে না। একজন আওয়ামী লীগের বিরুদ্ধে এভাবে কুৎসা রটনা করছে। এগুলো কি দলের শৃংখলা ভঙ্গ করা হচ্ছে না? আমার সন্দেহ হয় তারা আসলেই আওয়ামী লীগের নেতাকর্মী কিনা? তারা যদি মূলতই আওয়ামী লীগের নেতাকর্মী হয়ে থাকতো তাহলে এভাবে কুৎসা রটনা করতে পারে না। মেয়র আইভী নৌকার প্রতিকের মনোনীত মেয়র। তাদের এসব কর্মকান্ড আমি ঘৃণা করি। এগুলো তাদের কর্মী সভা না ব্যক্তিগত সভা।

খোকন সাহা যার বিরুদ্ধে কুৎসা রটনা করছেন আইভীর কারণেই অ্যাডভোকেট খোকন সাহা সাধারণ সম্পাদক হয়েছিলেন। তখন ছিল শহর আওয়ামী লীগ। সে সময়ে ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভীর সমর্থন নেয় খোকন সাহা। আইভীর কারণেই খোকন সাহা সাধারণ সম্পাদক হতে পেরেছে। ২৫ বছর যাবত সাধারণ সম্পাদক খোকন সাহা। কিন্তু কার উছিলায় সাধারণ সম্পাদক হয়ে সেটা বলে না। আইভীকে তখন খোকন সাহা মা মা বলে সম্বোধন করতো। আর এখন সে মায়ের বিরুদ্ধে কুৎসা রটনা করে। বিশ্রী ভাষায় কথা বলে। এ ধরণের আওয়ামী লীগের নেতাদের মনেপ্রাণে ঘৃণা করি।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
newsnarayanganj-video
আজকের সবখবর