আইভীকে ‘কালী মা’ কটূক্তি


স্পেশাল করেসপনডেন্ট | প্রকাশিত: ১২:০৫ এএম, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২১, শনিবার
আইভীকে ‘কালী মা’ কটূক্তি

সৃষ্টির সেরা জীব মানুষ। কালো বা সাদা চামড়া দিয়ে মানুষের শ্রেষ্ঠত্ব তুলনা করার কোন সুযোগ নেই। কিন্তু ইউরোপ আমেরিকায় নিকৃষ্ট দাস প্রথার প্রচলন থেকে শুরু হয় সাদা কালোর বিভেদ। সেই বিভেদ থেকে বেরিয়ে আসতে সারা দুনিয়া জুড়ে নো রেসিজম বার্তা প্রচারিত হয়। রাজনৈতিক মাঠ থেকে খেলার মাঠ, সর্বত্রই বর্নবাদী আচরণ থেকে বেরিয়ে আসার বার্তা দেয়া হয়। কিন্তু সভ্যতার মুখোশ পড়ে এখনও বহু মানুষ সাদা কালোর বিভেদ চালিয়ে যান। কালো বর্নের মানুষকে নানা ভাবে কটাক্ষ করে নিজের বর্নবাদী পরিচয় তুলে ধরেন।

ঠিক এমনই এক আচরণের জন্ম দিয়েছেন নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আবু হাসনাত শহীদ বাদল।

২৩ সেপ্টেম্বর বৃহস্পতিবার সিদ্ধিরগঞ্জ থানা আওয়ামী লীগের এক সভায় বক্তব্য প্রদানকালে এমনই মন্তব্য করেন তিনি। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইসবুকে বিষয়টি সরাসরি প্রচারিত হওয়ার পর সমালোচনার ঝড় উঠে সর্বত্র।

এদিন বাদল বলেন, করোনা কালে সিদ্ধিরগঞ্জে কে সহায়তা করেছে? উপস্থিত সকলে বলেন সহায়তা করেছে লিপি ওসমান। মেয়র আইভী আসেননি। এসময় পেছন থেকে অনেকেই কালী মা বলে কটূক্তি করতে থাকে। এক পর্যায়ে তিনিও বলেন আইভীকে কালীমা। পরে আবার বলেন ‘তওবা তওবা’।

আসন্ন নারায়ণগঞ্জ সিটি নির্বাচনকে সামনে রেখে কদিন পর পরেই বিতর্কিত মন্তব্য করে সামনে আসছেন ওসমানপন্থী আওয়ামী লীগের নেতারা। এরই মাঝে সাংসদ শামীম ওসমান ২৭টি ওয়ার্ডে কর্মীসভা ঘোষণা করেন। প্রতিটি কর্মীসভাতে কর্মীদের একত্রিত করার বদলে আইভী বিষোদাগার করতে দেখা যায় সকলকে। যেন প্রতিযোগিতায় নেমেছেন কে কতটা আক্রমন করে মেয়রকে হেয় করতে পারে। সেই কর্মীসভা শেষ হলেও রেশ রয়েছে এখনও। তারই প্রমান মিলেছে সিদ্ধিরগঞ্জে।

মেয়র আইভী একজন নারী বলে নয় যেকোন মানুষকে তার গায়ের রঙ নিয়ে কটুবাক্য বলা ভয়ংকর অপরাধ। উন্নত রাষ্ট্রে এর জন্য শাস্তি পেতে হয়। ধর্মীয় ভাবেও কারো গায়ের বর্ণ কিংবা গঠন নিয়ে কটুবাক্য বলা অন্যায় কাজ। কিন্তু সেই কাজ হাসিমুখে যখন ক্ষমতাসীন দলের জেলা সম্পাদক বলেন তখন তার বিবেক বোধ নিয়েও প্রশ্ন উঠে।

সূত্র বলছে, জেলা আওয়ামী লীগের কমিটিতে সহ সভাপতি হিসেবে মেয়র সেলিনা হায়াত আইভীর নাম প্রধানমন্ত্রী ঘোষণা করেন। আর এমন ঘটনা আওয়ামী লীগের ইতিহাসে বিরল। সেই নেত্রীকে নিয়ে যখন একই কমিটির সাধারণ সম্পাদক তার গায়ের বর্ণ নিয়ে কটূক্তি করে তখন তা কোনভাবেই বরদাস্ত করা যায়না বলে মন্তব্য করছেন আওয়ামী লীগের নেতারা।

তবে মেয়র আইভী তার গায়ের রঙ নিয়ে কটুক্তি এই প্রথম শুনেননি। এর আগেও তাকে মোটা কালো মহিলা বলে এই ওসমানপন্থীরা সম্বোধন করেছে। তার জবাবে নাসিকের বাজেটে মেয়র উত্তর দেন, আমি কালো কালোই, আমি রঙ পাল্টাই না। নিজের অবস্থান নিয়ে এমন স্বচ্ছতা প্রকাশ করেও বার বার নোংরামির শিকার হচ্ছেন আইভী। কারন সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে আর উন্নয়নের পক্ষে থাকার জন্যেই এত বাধা বিপত্তি আসছে পালাক্রমে এমনিটাই বলছেন সংশ্লিষ্টরা।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
newsnarayanganj-video
আজকের সবখবর