নৌকা সমর্থকদের পেটাল বিদ্রোহীরা


স্টাফ করেসপনডেন্ট | প্রকাশিত: ০২:১০ পিএম, ২৩ অক্টোবর ২০২১, শনিবার
নৌকা সমর্থকদের পেটাল বিদ্রোহীরা

নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলার আলীরটেক ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের নৌকা প্রতিকের প্রার্থী জাকির হোসেনের সমর্থকদের উপর হামলার অভিযোগ উঠেছে স্বতন্ত্র প্রার্থী সায়েম আহমেদের সমর্থকদের বিরুদ্ধে। এ সায়েম আহমেদ আহমেদ বিএনপির রাজনীতি করতো। সক্রিয় ছিলেন স্বেচ্ছাসেবক দলে।

শুক্রবার (২২ অক্টোবর) বিকেলে আলীরটেক ইউনিয়নের কুড়েরপাড় ব্রীজে এই হামলার ঘটনা ঘটেছে। হামলায় আহতরা হলেন মো. আলী, মোবারক আলী, মাহিম, আলমগির, সাফিজুদ্দিন, মোক্তার হোসেন ও মো. ইসলাম।

স্থানীয়রা জানান, আলীরটেক ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন উপলক্ষে নৌকার প্রার্থী জাকির হোসেনের সমর্থনে এক আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। আর এই আলোচনা সভায় যোগদানের উদ্দেশ্য গঞ্জকুমারিয়া, তৈলখিরাচর এলাকা থেকে সমর্থিতরা আসার সময় আওয়ামী লীগ নেতা কর্মীদের উপর চেয়ারম্যান প্রার্থী সায়েম আহমেদের লোকজন হামলা করে।

আহতরা জানান, চেয়ারম্যান প্রার্থী সায়েম আহমেদের লোক রতন, আল আমিন, শ্যামল, তোফাজ্জল ও তার ভাই সহ ১০ থেকে ২০ জন লোক এসে আতর্কিত ভাবে হামলা চালায়। তাদের বিভিন্নভাবে অকথ্য ভাষায় গালাগালি করে। তারা নিজেরা এসে জোর করে হামলা চালিয়ে আমাদের আহত করে।

আহত মো. আলী বলেন, আমি আলীরটেক কর্মী সভায় আসার সায়েম ও সাবেক চেয়ারম্যান মতিউর রহমান এর ঘনিষ্ঠ লোক রতন তোফাজ্জল ও তার ভাইয়েরা মিলে আমাদের উপর হামলা করে কিল-ঘুষি মারেন। একইসাথে অকথ্য ভাষায় গালাগালি করেন। পাশাপাশি আশ পাশের কয়েকজন লোক এসে হামলা চালায়। আমাদেরকে বলে নির্বাচন করতাম না তোদের বারটা বাজায় দিমু। প্রয়োজনে লাশ ফালাইয়া দিমু। আমারে বলে তোর বাবায় নির্বাচন করবো তুই মাইক নিয়া জাস। আমরা হামলা কারীদের বিচার চাই।

এদিকে স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতারা জানান, সায়েমকে ইন্ধন দিচ্ছে সদর থানা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আল মামুন। তার ইন্ধনেই এই হামলা করার সাহস পেয়েছে সায়েম আহমেদ। এখানে পরোক্ষাভাবে তারা জরিত রয়েছে। ইতি পূর্বে আলীরটেক ইউনিয়নের বিদ্রোহী প্রার্থী সায়েমকে সদর থানা কমিটিতে রাখার প্রস্তাব করেছিলেন আল মামুন।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
newsnarayanganj-video
আজকের সবখবর