‘ক্ষমা করেন আকরাম ভাই’


স্টাফ করেসপনডেন্ট | প্রকাশিত: ০৭:২৭ পিএম, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২১, রবিবার
‘ক্ষমা করেন আকরাম ভাই’

আওয়ামী লীগ নেতা কামাল মৃধার একটি স্ট্যাটাস সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে রীতিমত আলোচিত হয়ে উঠেছে। তিনি ওই স্ট্যাটাসটি দিয়েছেন নারায়ণগঞ্জের সাবেক এমপি ও জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক আহবায়ক এস এম আকরামকে নিয়ে।

২৫ সেপ্টেম্বর কামাল মৃধা লিখেন, আমাদের ক্ষমা করে দিবেন আকরাম ভাই। ১৯৯৬ বিএনপিতে যোগ দিয়েছিলাম। সাত দিন পরেই নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আনসার আলী ভাই আমার জল্লারপার বাসায় এসে উপস্থিত। যথারীতি তার গোসলের ব্যবস্থা হল এবং খাওয়া-দাওয়া হলো এরপরে জানতে চাইলাম কি মনে করে আনসার ভাই। সে বলল একটা পোস্টার করে দিতে হবে। কিসের পোস্টার বলল অতিরিক্ত সচিব এসএম আকরাম সাহেব আমাদের আওয়ামী লীগে যোগদান করবে। সেজন্য। তাকে বললাম ভাই আমিতো এখন বিএনপিতে যোগদান করেছি। সে বললো রাখো তোমার বিএনপি ওসব কথা রাখো। তোমার বিএনপি আমরা সব জানি, যোগদান অনুষ্ঠানে তুমি জয় বাংলা স্লোগান দিয়েছে। ওরা তোমাকে তাদের জলে নিবেনা। যদিও সেদিন বুঝতে পারি নাই আনসার ভাইয়ের কথাটা কতটা সত্যি ছিল। যাইহোক বলছিলাম আকরাম ভাইয়ের কথা। ১৯৯৬-২০১২ এই ১৬ বছর আকরাম ভাই নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের একটি বিশাল ঘটনাবহুল সময় পার করেছে। এই সময় তিনি কেমন দলকে গুছিয়েছেন তেমনি সংসদ সদস্য হিসাবে মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছেন।

২০১১ সালের নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের প্রথম নির্বাচনে আওয়ামী লীগ থেকে মনোনয়ন দেওয়া হয় আলোচিত নেতা শামীম ওসমানকে।

বিষয়টা অনেকের মত এসএম আকরাম সাহেব মেনে নিতে পারেনি। তিনি অপর প্রার্থী আইভীর পাশে শক্ত করে দালালের। গঠন করলেন নাগরিক কমিটি। ১৫০ জনের নাগরিক কমিটির তিনি হলেন সভাপতি। বাংলাদেশের সবচাইতে আলোচিত এই নির্বাচনটি দেশের বাইরে ও ব্যাপক পরিচিতি পেয়েছিল। নির্বাচনের লক্ষাধিক ভোটের ব্যবধানে শামীম ওসমান পরাজয় বরণ করেন। নিঃসন্দেহে সেদিনের সেই ঘটনা মানুষ কোনদিন ভুলতে না।

কিন্তু তারপরের দিনই তিনি আকস্মিকভাবে আওয়ামী লীগ থেকে পদত্যাগ করেন। পদত্যাগ করার কারণ হিসেবে তিনি বলেন দলীয় মনোনীত প্রার্থীর বিরুদ্ধে নির্বাচন করে তিনি শৃঙ্খলা বিরোধী কাজ করেছেন তাই তিনি পদত্যাগ করলেন।

ঘটনার শুরু এখানেই আমরা কেউ তাকে পদত্যাগ করতে বারণ করিনি। বাধা দেইনি। সবাই এখন আওয়ামী লীগ করছেন তিনি এই আওয়ামী লীগকে উদ্ধার করার জন্য নিজেকে বিসর্জন দিলেন। আমরা কেউ তার পাশে দাঁড়ায় নাই।

আজকে তিনি আমাদের মাঝ থেকে হারিয়ে গেছেন অবশ্যই রাজনৈতিকভাবে, আমরা কেউ তার খোঁজ নেইনা। কয়েকদিন আগে তিনি তার স্ত্রীকে হারিয়েছেন, যে মানুষটা এত বড় ত্যাগ আমাদের জন্য করেছেন। আমরা তার কাছে গিয়ে একটু সহানুভূতি ও জানায়নি। দলের সিদ্ধান্তের বাইরে এসে তিনি আমাদের পাশে দাঁড়িয়েছিলেন পরবর্তী পর্যায়ে তিনি নির্বাচন করে গেছেন আমরা কেউ তার পাশে দাঁড়ায় নাই। আমরা সত্যি অকৃতজ্ঞ। বেইমান। মোনাফেক। আমাদের ক্ষমা করেন আকরাম ভাই।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
newsnarayanganj-video
আজকের সবখবর