চাঁদমারীতে সুবিধাবঞ্চিতদের স্কুলের নাম ও লগো প্রস্তাবকারীকে পুরস্কারের ঘোষণা

|| নিউজনারায়ানগঞ্জ২৪.নেট ০১:০১ এএম, ১ জানুয়ারি ২০১৫ বৃহস্পতিবার

চাঁদমারীতে সুবিধাবঞ্চিতদের স্কুলের নাম ও লগো প্রস্তাবকারীকে পুরস্কারের ঘোষণা
নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলার ফতুল্লার চাঁদমারী এলাকায় মাদকের স্পট উচ্ছেদ করে সুবিধাবঞ্চিতদের জন্য স্থাপিত স্কুলের নাম ও লগো প্রস্তাবকারীকে পুরস্কারের ঘোষণা দিয়েছেন স্কুলটির প্রতিষ্ঠাতা সদর উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) গাউছুল আজম।   গাউছুল আজম নিউজ নারায়ণগঞ্জকে জানান, স্কুলটির অবকাঠামো নির্মাণ শেষের পথে। তবে এখনো নামকরণ করা হয়নি। যদি কেউ স্কুলটির এমন কোনো নাম ও লোগো দিতে পারে যে নাম দেশের আর কোন স্কুলে নেই তাহলে সেই প্রস্তাবকারীকে পুরস্কৃত করা হবে। তিনি পাঠকদের ভিন্নধর্মী নামের প্রস্তাব পাঠানোর অনুরোধ জানান। প্রস্তাবকারীরা সদর উপজেলার ইমেইলে নামের প্রস্তাব ও লোগো পাঠাতে পারেন। প্রয়োজনে নিউজ নারায়ণগঞ্জেরও সহায়তা নিতে পারেন।   এদিকে সহায়তায় এগিয়ে আসতে শুরু করেছেন বিশিষ্টজনেরা। বৃহস্পতিবার বিকেলে সুবিধাবঞ্চিতদের সহায়তায় স্কুলটি পরিদর্শনে আসার কথা রয়েছে নারায়ণগঞ্জ-৫ (শহর ও বন্দর) আসনের সংসদ সদস্য এবং বিকেএমইএ ও নারায়ণগঞ্জ চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাষ্ট্রিজের সভাপতি সেলিম ওসমানের। বুধবার স্কুলটি পরিদর্শণ শেষে নির্মাণ সামগ্রী প্রদান করেন ফতুল্লা থানা আওয়ামীলীগের সভাপতি এম সাইফুল্লাহ বাদল ও সাধারণ সম্পাদক বক্তাবলী ইউনিয়নের চেয়ারম্যান শওকত আলী।   এছাড়া ২৫ সেপ্টেম্বর শিক্ষার্থীদের স্কুল ড্রেসের জন্য বিভিন্ন রঙের ২০০ গজ কাপড় সরবরাহ করেছেন শ্রমিক লীগ কেন্দ্রীয় কমিটির শ্রমিক উন্নয়ন ও কল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক এবং ইউনাইটেড ফেডারেশন অব গার্মেন্টস ওয়ার্কার্স এর কেন্দ্রীয় কার্যকরী সভাপতি কাউসার আহমেদ পলাশ। এছাড়া স্কুলটির উন্নয়নের জন্য ১০ হাজার টাকা অনুদান দেন তিনি।   এদিকে স্কুলটিতে শিক্ষার্থীর সংখ্যা ক্রমশই বাড়ছে। এক সপ্তাহের ব্যবধানে শিক্ষার্থীর সংখ্যা প্রায় দ্বিগুন হয়ে পড়েছে। এছাড়া শিক্ষার্থীদের স্বাস্থ্য পরীক্ষাও করানো হয়েছে।   গত ১৯ সেপ্টেম্বর ফতুল্লার চাঁদমারী এলাকায় তিনটি মাদক স্পট উচ্ছেদ করে ছিন্নমুল শিশুদের জন্য স্কুল স্থাপন করেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা গাউছুল আজম। তিনি নিউজ নারায়ণগঞ্জকে জানান, শুরুতে ৪৭ জন শিক্ষার্থী থাকলেও এক সপ্তাহের ব্যবধানে শিক্ষার্থীর সংখ্যা দাড়িয়েছে ৮০ জন। এদের মধ্যে অন্তত ৬০ জন রয়েছে যারা কখনোই স্কুলে যায়নি। এদের সকলেরই বয়স ১০-১২ বছর। শিক্ষার্থীদের জন্য ইতিমধ্যে ২ জন শিক্ষক নিয়োগ দেয়া হয়েছে। এছাড়া ইসদাইর স্কুল থেকে একজন শিক্ষক এসেও শিক্ষাদান করে থাকেন।

বিভাগ : মহানগর


নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আরো খবর
এই বিভাগের আরও