নারায়ণগঞ্জে নিত্যপণ্যের দাম কমেনি

|| নিউজনারায়ানগঞ্জ২৪.নেট ০১:০১ এএম, ১ জানুয়ারি ২০১৫ বৃহস্পতিবার

নারায়ণগঞ্জে নিত্যপণ্যের দাম কমেনি
পবিত্র ঈদ উল আজহা এর পরে উর্দ্ধমুখী থাকা পেয়াজ ও কাঁচাতরকারি দাম এখনও কমেনি। বিক্রেতাদের দাবি বাজারে ক্রেতা না থাকার কারণে আমদানি কম করা হচ্ছে। কম আমদানি করার কারণে এবং ঈদের ছুটির জন্য গাড়ি ভাড়া বেশি নেয়া হচ্ছে। এসকল সমস্যার কারনে বাজারে সকল প্রকার সবজির দাম একটু বেশি।   সোমবার সকালে নারায়ণগঞ্জ দিগুবাবুর বাজার ঘুরে দেখা গেছে, বাজারে দেশি পেয়াজ বিক্রি হচ্ছে ৪০ থেকে ৪৫, ইন্ডিয়ান পেয়াজ বিক্রি হচ্ছে ৪০ থেকে ৪২, রসুন ৭০ থেকে ৮০, আদা ১৫০ থেকে ১৬০, মসুরি ডাল ৮০ থেকে ১০০, চিনি ৪৩ থেকে ৪৪, লবন ১৫ থেকে ২৮, সয়াবিন তেল ১০০ থেকে ১০৫ দরে।   এদিকে প্রতি কেজি শসা ৩০ টাকা, কাঁচা মরিচ ১২০ টাকা, লম্বা বেগুন ৭০ টাকা, গোল বেগুন ৬০ টাকা, শিম ৬০ থেকে ৮০, আলু ২৫, গাজর ৫০, করলা ৬০ টাকা, ঢেড়স ৭০, পটল ৪০, উচ্ছতা ৮০, টমেটো ১২০ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে। প্রতি পিছ ফুলকপি ৪০, বাধাকপি ৪০, মিষ্টি কুমড়া ৮০ থেকে ১০০ ও লাউ ৫০ থেকে ৬০, জালি কুমড়া ৪০ থেকে ৪৫, লেবুর হালি ৪০ টাকা ধরে বিক্রি হচ্ছে। এছাড়া বাজারে লালশাক ৩০ থেকে ৩৫, পুঁই শাক ২৫ থেকে ৩০ টাক এবং ধনেপাতা ১০০ গ্রাম ৩০ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে।   এদিকে গরুর মাংস প্রতি কেজি ৩০০ থেকে ৩২০ টাকা, খাসীর মাংস ৪৫০ থেকে ৫০০ টাকা, দেশী মুরগি প্রতি পিছ ৩০০ থেকে ৩৫০ টাকা আর প্রতি কেজি র্ফামের সাদা মুরগি ১৪৫ টাকা। দেশী মুরগীর ডিম ৪৮, র্ফমের লাল ডিম ৩২ থেকে ৩৩, দেশী হাসের ডিম ৪৪ থেকে ৪৫ টাকা ধরে বিক্রি হচ্ছে।   কাঁচাতরকারি দাম বেশি থাকার কারণ হিসাবে নারায়ণগঞ্জ দিগুবাবুর বাজারে বিক্রেতা লক্ষন নিউজ নারায়ণগঞ্জকে বলেন, কাঁচাতরকারি বেশি দিন রাখা যায় না বলে কম করে আমদানি করতে হয়। আর কম আমদানি করলে খরচ বেশি হয়। যেমন এক গাড়ি মাল আনতে যে টাকা দেয় হয় অর্ধেক গাড়ি মাল আনলেও সেই টাকা দিতে হয়। আবার ঈদ উপলক্ষ্যে গাড়ি পাওয়া যাচ্ছে না। যাও গাড়ি পাওয়া যায় তারও ভাড়া বেশি নেয়া হয়।

বিভাগ : মহানগর


নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আরো খবর
এই বিভাগের আরও