‘গাউছুল আজম ইন্সটিটিউট’ ঘোষণা সেলিম ওসমানের

|| নিউজনারায়ানগঞ্জ২৪.নেট ০১:০১ এএম, ১ জানুয়ারি ২০১৫ বৃহস্পতিবার

‘গাউছুল আজম ইন্সটিটিউট’ ঘোষণা সেলিম ওসমানের
নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলার ফতুল্লার চাঁদমারী এলাকায় মাদকের স্পট উচ্ছেদ করে সুবিধাবঞ্চিতদের জন্য স্থাপিত স্কুলের নাম উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার নামেই ‘গাউছুল আজম প্রাথমিক বিদ্যালয় ও কারিগরি ইন্সটিটিউট’ দিয়েছেন নারায়ণগঞ্জ-৫ (শহর ও বন্দর) আসনের সংসদ সদস্য ও বিকেএমইএ’র সভাপতি সেলিম ওসমান।   বৃহস্পতিবার বিকেল ৪ টার দিকে ফতুল্লার চাঁদমারী এলাকায় মাদকের স্পট উচ্ছেদ করে সুবিধাবঞ্চিতদের জন্য স্থাপিত স্কুল পরিদর্শনে যান সেলিম ওসমান। এসময় সেলিম ওসমানকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানান স্কুলটির প্রতিষ্ঠাতা সদর উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) গাউছুল আজম সহ অন্যরা। পরে ফিতা কেটে নবনির্মিত স্কুলটির উদ্বোধন করেন সেলিম ওসমান। পরে স্কুলে ভর্তি হওয়া ১০০ জন শিক্ষার্থীর মধ্যে ঈদ সামগ্রী হিসেবে পোলাও চাল, সেমাই, চিনি, দুধ, ডাল ও তেল প্রদান করেন সেলিম ওসমান।   সেলিম ওসমান বলেন, যদি কেউ মাদক বিক্রির ভিডিও ফুটেজ ও মাদক বিক্রেতাদের নাম ঠিকানাসহ আমাকে দিতে পারেন তাহলে আমি ওই ব্যক্তিকে ১০ হাজার টাকা পুরস্কার দিব। তিনি মাদক ব্যবসায়ীদের প্রতি হুশিয়ারী উচ্চারণ করে বলেন, যদি চাঁদমারী বস্তিতে মাদক ব্যবসা চলতে থাকে তাহলে এখানে বস্তি আর থাকবেনা। বস্তি বুলড্রোজার দিয়ে গুড়িয়ে দেয়া হবে। এজন্য বস্তিবাসীদেরকেই দায়িত্ব নিতে হবে। আজ জনগণ জেগে গেছে।   তিনি আরো বলেন, যেকোন মূহূর্তে বস্তি অপসারণ করা হতে পারে। এজন্য সড়কের দূরবর্তী স্থানে বস্তি ঘর নির্মাণের আহবান জানান তিনি। কারণ বাসস্ট্যান্ড স্থানান্তরের পরিকল্পনা রয়েছে সরকারের। বস্তি পূর্ণবাসন করা যায় কিনা এ বিষয়টি আমরা পরিকল্পনা করবো। তবে এজন্য অনেক সময় লাগবে। DSC_1248 স্কুলটি পরিদর্শণ করে সেলিম ওসমান আরো বলেন, এতো সুন্দর উদ্যোগ এর আগে কখনো নারায়ণগঞ্জে হয়নি। এখানে ৬০ জন কিশোরী আমার কাছে দাবি জানিয়েছে তারা সেলাই ব্লক বাটিকের কাজ শিখতে চায়। তাদের মধ্যে যাদের বয়স ১৮ এর উর্ধ্বে তাদের কর্মসংস্থানের দায়িত্ব আমি নিলাম। এর নিচে যারা রয়েছে তাদেরকে প্রশিক্ষণের বিষয়ে ঈদের পরে উদ্যোগ নেয়া হবে। আজকে বস্তিতে যে বাগান তৈরী হয়েছে তাতে ফুল ফোটানোর জন্য বিত্তবান ও ব্যবসায়ীদের প্রতি তিনি আহবান জানান।   এর আগে স্কুলটি পরিদর্শনে এসে বস্তির কিশোরীদের কাছে তাদের বক্তব্য শুনতে চান সেলিম ওসমান। পরে বস্তির কিশোরী বিউটিসহ অন্যরা জানায় তারা সেলাই কাজ শিখতে চায়।   গাউছুল আজম সেলিম ওসমানকে জানান, ভর্তি হওয়া ১০০ জন শিক্ষার্থীর জন্য ইতিমধ্যে ২ জন শিক্ষক নিয়োগ দেয়া হয়েছে। এছাড়া ইসদাইর স্কুল থেকে একজন শিক্ষক এসেও শিক্ষাদান করে থাকেন। এছাড়া বস্তির ৬০ জন কিশোরীর একটি তালিকা তৈরী করা হয়েছে। যারা সেলাই, ব্লক বাটিক, পার্লারের কাজ শিখতে চায়। তাদেরকে সদর উপজেলার কারুকুঞ্জে প্রশিক্ষণ দেয়ার চিন্তাভাবনা চলছে। এছাড়া চাঁদমারী এলাকাতেও একটি প্রশিক্ষণকেন্দ্র স্থাপনের পরিকল্পনা রয়েছে।  

বিভাগ : মহানগর


নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আরো খবর
এই বিভাগের আরও