বাবার কোলে সন্তানের লাশ, কারাগারে মা

স্পেশাল করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ ০৯:৪৭ পিএম, ২১ নভেম্বর ২০২০ শনিবার

বাবার কোলে সন্তানের লাশ, কারাগারে মা

নারায়ণগঞ্জের বন্দর উপজেলায় নবজাতকের লাশ উদ্ধারের ঘটনায় মামলা হয়েছে। ওই নবজাতকের বাবা লাল মিয়া হয়ে মামলাটি দায়ের করেন। পুলিশ মামলার আসামী নবজাতকের গর্ভধারিনী মাকে গ্রেপ্তার করেছে।

জানা গেছে, ২০ নভেম্বর শুক্রবার বেলা ১২টায় বন্দর উপজেলার ফরাজিকান্দা খালপাড় এলাকা থেকে ওই নবজাতককে উদ্ধার করে পথচারী যুবক বন্দর থানায় হস্তান্তর করে। পরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সন্ধ্যায় মারা যান।

নবজাতকের বাবার নাম লাল মিয়া ও তার মায়ের নাম রিক্তা বেগম। লাল মিয়া একটি আটার মিলে স্বল্প বেতনে কাজ করেন। রিক্তা বেগম একজন গার্মেন্টস শ্রমিক। তারা বন্দর উপজেলার ফরাজিকান্দা এলাকার আমানউল্ল্যাহ মিয়ার বাড়ী ভাড়াটিয়া। তাদের সংসারে ৬ বছর বয়সী এক পুত্র সন্তান রয়েছে।

লাল মিয়া জানান, আমি ও আমার স্ত্রী রিক্তা বেগম বন্দর উপজেলার ফরাজিকান্দা বড় জামে মসজিদ সংলগ্ন আহসান উল্ল্যাহ মিয়া বাড়ীতে ভাড়াটিয়া হিসেবে বসবাস করে আসছি। এ সুবাদে সংসার চালানোর জন্য আমি শহরের একটি ময়দার মিলে শ্রমিকের কাজ করি। গত ১০ মাস পূর্বে আমার স্ত্রী অন্তঃসত্ত্বা হয়। গত ১৯ নভেম্বর বৃহস্পতিবার রাত ৮টায় আমি আমার কর্মস্থলে যাই। পরে গত ২০ নভেম্বর শুক্রবার সকাল সাড়ে ১০টায় আমি বাড়ীতে এসে দেখি আমার স্ত্রী বিছনায় কাথা গায়ে দিয়ে শুয়ে আছে। ওই বাড়ীওয়ালার ছেলে চিৎকার করে বলছিল ভাড়াটিয়া ঘরে পিছনে একটি বাচ্চা পাওয়া গেছে। উক্ত বাচ্চটি তাৎক্ষনিক বাড়ীওয়ালা ছেলে সজিব উদ্ধার করে বন্দর থানায় নিয়ে গেলে বন্দর থানা পুলিশ উদ্ধারকৃত নবজাতককে বন্দর ছাঁয়ানূর হাসপাতালে প্রেরণ করে। পরে সেখানকার কর্তব্যরত চিকিৎসক নবজাতকে নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে গেলে উন্নত চিকিৎসার জন্য নবজাতককে মাতুয়াইল মিশু ও মা স্বাস্থ্য কেন্দ্রে নিয়ে গেলে সেখানে উদ্ধারকৃত নবজাতকের মৃত্যু হয়।

নবজাতক উদ্ধারকারী বন্দরের ফরাজীকান্দা এলাকার যুবক সজিব জানান, তিনি শুক্রবার দুপুরে বাজার থেকে বাড়ি ফিরছিলেন। এ সময় ফরাজীকান্দা খালের পাড় থেকে শিশুর কান্নার আওয়াজ শুনতে পান। সামনে গিয়ে কাপড় মোড়ানো অবস্থায় নবজাতককে দেখতে পান। এরপর নবজাতক শিশুটিকে উদ্ধার করে বন্দর থানায় নিয়ে আসেন।

বন্দর থানার ওসি ফখরুদ্দীন ভূইয়া জানান, নবজাতককে উদ্ধারের পর স্থানীয় একটি ক্লিনিকে চিকিৎসা দেয়া হয়। প্রথমে আমরা ভেবেছিলাম এটা কোন অনৈতিক সম্পর্কের জের ধরে নবজাতকটির জন্ম হয়েছে। পরে ফরাজীকান্দায় অভিযান চালিয়ে তার বাবা মাকে খুঁজে করে পুলিশ। এরপর নবজাতককে বাবা মার কাছে দেয়া হয়। এরমধ্যে নবজাতকটি খুব অসুস্থ হয়ে পড়লে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হয়। শুক্রবার সন্ধ্যায় সেখানে চিকিৎসারত অবস্থায় নবজাতক শিশুটি মারা যায়। নবজাতকটির মায়ের বক্তব্য অসংলগ্ন।

ওসি আরো জানান, লাল মিয়া বাদী হয়ে এ ঘটনায় মামলা করেছেন। পুলিশ মা রিক্তা বেগমকে গ্রেপ্তার করেছে। ওই নারী কেন এমন কাজ করেছেন তা জানতে তদন্ত চলছে।


বিভাগ : মহানগর


নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আরো খবর
এই বিভাগের আরও