ত্বকী হত্যার ৮ বছর : আর কবে চার্জশীট

স্পেশাল করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ ০৫:৩৮ পিএম, ৬ মার্চ ২০২১ শনিবার

ত্বকী হত্যার ৮ বছর : আর কবে চার্জশীট

২০১৩ হতে ২০২১। ক্যালেন্ডারের পাতা হতে চলে গেল আরো একটি বছর। ৮ মার্চ ত্বকী হত্যার ৮ বছর পূর্ণ হতে চলেছে কিন্তু এখনও পর্যন্ত এ হত্যাকান্ডের অভিযোগপত্র দাখিল করেনি তদন্তকারী সংস্থা র‌্যাব। এর মধ্যে দেশে ঘটে গেছে অনেক হত্যাকান্ডের ঘটনা। বিচারও হয়েছে সেগুলোর। অনেক হত্যাকান্ডের রায় হয়েছে, কোনটির ক্লু উদঘাটন হয়েছে। চাপা পড়ে থাকা মামলার সংখ্যা নেহাত কম। সেখানে নারায়ণগঞ্জের আলোচিত ত্বকী হত্যা মামলাটি পড়ে আছে ধামাচাপায়।

সবশেষ মেধাবী ছাত্র তানভীর মুহাম্মদ ত্বকী হত্যার অভিযোগপত্র দ্রুত দাখিল করতে তদন্তকারী সংস্থা র‌্যাবকে তাগিদ দিয়েছেন আদালত। ১ মার্চ দুপুরে নারায়ণগঞ্জের সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট নুরুন্নাহার ইয়াসমিনের আদালত এ তাগিদ দেন জানান ত্বকী হত্যা মামলার বাদী রফিউর রাব্বির আইনজীবী অ্যাডভোকেট জিয়াউল ইসলাম কাজল।

২০১৪ সালের ৬ মার্চ ত্বকী হত্যার প্রথম বছর পূর্তির একদিন আগে ওই সময়ের র‌্যাবের সহকারী মহাপরিচালক (এডিজি) জিয়াউল আহসান ঢাকাতে সংবাদ সম্মেলনে করে জানান, তদন্তে সন্দেহভাজন হিসেবে ওসমান পরিবারের সদস্য আজমেরী ওসমান সহ ১১ জনের সম্পৃক্ততা পাওয়া গেছে। ত্বকী হত্যায় অংশ নেওয়া বাকি ১০জন হলেন রাজীব, কালাম শিকদার, মামুন, অপু, কাজল, শিপন, জামশেদ হোসেন, ইউসুফ হোসেন ওরফে লিটন, সুলতান শওকত ওরফে ভ্রমর ও তায়েবউদ্দিন ওরফে জ্যাকি। তখন ওই র‌্যাব কর্মকর্তা জানান, এই হত্যাকা-ে শামীম ওসমানের ছেলে অয়ন ওসমান, দুই সহযোগী সালেহ রহমান ওরফে সীমান্ত ও রিফাত বিন ওসমানের সম্পৃক্ততা পাওয়া যায়নি।

তদন্তকারী সংস্থা র‌্যাব-১১ এর অধিনায়ক লে. কর্নেল খন্দকার সাইফুল আলম বলেন, ‘ত্বকী হত্যা মামলাটি জটিল। এখনো মামলার কাজ চলমান। কর্মকর্তা বদলী হয় নতুন আসে এজন্যও সময় লাগছে। দৃশ্যমান না হলেও কাজ চলছে। এ বিষয়ে উর্ধ্বতনরাও তদারকি করছেন। সার্বক্ষনিক এ বিষয়ে তাদের জানানো হচ্ছে। আমাদের উপর কোন ধরনের চাপ নাই। আমরা স্বাধীনভাবেই কাজ করছি। তবে কাজ চলছে। যখনই শেষ হবে তখনই চার্জশীট জমা দেয়া হবে।’

মেধাবী ত্বকীর পরিচয়
তেল গ্যাস খনিজ সম্পদ রক্ষা জাতীয় কমিটি জেলা শাখার আহবায়ক ও বিশিষ্ট সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব রফিউর রাব্বির দুই ছেলের মধ্যে ছেলে তানভীর মুহাম্মদ ত্বকী। সে শহরের চাষাঢ়ায় ইংলিশ মিডিয়াম স্কুল এবিসি ইন্টারন্যাশনাল স্কুলের ছাত্র ছিল। ২০১৩ সালের ৭মার্চ (নিখোঁজের একদিন পর ও লাশ উদ্ধারের একদিন আগে) এ লেভেল পরীক্ষার রেজাল্টে পদার্থবিজ্ঞানে ৩০০ নম্বরের মধ্যে ২৯৭ পেয়েছিল যা সারাদেশে সর্বোচ্চ। এছাড় সে ও লেভেল পরীক্ষাতেও সে পদার্থ বিজ্ঞান ও রসায়ন পরীক্ষাতে দেশের মধ্যে সর্বোচ্চ নম্বর পেয়েছিল।

নিখোঁজ, লাশ উদ্ধার ও মামলা
২০১৩ সালের ৬মার্চ বিকেলে ত্বকী শহরের শায়েস্তা খান সড়কের বাসা থেকে বেরিয়ে রাতেও বাসায় ফিরে আসেনি। পরে ৮ মার্চ সকালে শহরের চারারগোপে শীতলক্ষ্যা নদীর তীরে ত্বকীর লাশ পাওয়া যায়। সে রাতেই নারায়ণগঞ্জ মডেল সদর মডেল থানায় দায়ের করা মামলায় রাব্বি উল্লেখ করেন, আমার অতীত ও বর্তমান বিভিন্ন সামাজিক, সাংস্কৃতিক কর্মকান্ডে আমার ভূমিকার কারণে কোন কোন মহল এ হতাকান্ডটি ঘটিয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

মামলা র‌্যাবের কাছে হস্তান্তর
ত্বকী হত্যাকান্ডের পর রফিউর রাব্বির দায়ের করা মামলা ওই সময়কার সদর মডেল থানার ওসি মঞ্জুর কাদের নিজেই তদন্ত শুরু করে। তখন পুলিশ রিফাত বিন ওসমানকে গ্রেপ্তার করে রিমা-ে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করে। তবে রাব্বির আবেদনে হাইকোর্টের আদেশের প্রেক্ষিতে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের নির্দেশে ওই বছরের ২০ জুন আনুষ্ঠানিকভাবে র‌্যাবের কাছে হস্তান্তর করা হয়। মামলাটি এখন র‌্যাবের হেডকোয়ার্টার থেকে দেখভাল করছে।


বিভাগ : মহানগর


নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আরো খবর
এই বিভাগের আরও