বুকে টেনে মাথায় হাত বুলালেন ইউএনও

স্টাফ করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ ১১:০৬ পিএম, ৮ এপ্রিল ২০২১ বৃহস্পতিবার

বুকে টেনে মাথায় হাত বুলালেন ইউএনও

শীতলক্ষ্যায় সাবিত আল হাসান নামের লঞ্চ ডুবির ঘটনায় মা হারানো শিশু ইফাজকে শান্তনা দিলেন নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলার নির্বার্হী কর্মকর্তা ইউএনও নাহিদা বারিক। বৃহস্পতিবার ৮ এপ্রিল মামা রুবেল হোসেন এর সাথে গণশুনানিতে সাক্ষ্য দিতে এসেছিলো রায়হান সরদার ইফাজ।

ইফাজের মুখ থেকে সম্পূর্ন ঘটনার বিবরণ শুনেন। সদ্য মমতাময়ী মা দোলা বেগমকে হারিয়েছে নিজের জীবন থেকে। মায়ের সেই নির্মম মৃত্যুর সাক্ষী হয়ে আছে সে নিজেই। সবাইকে ছেড়ে না ফেরার দেশে চলে যাওয়া মায়ের সাথে সঙ্গী ছিলেন শিশু ইফাজ নিজেও। ভাগ্যক্রমে সেই লঞ্চ ডুবিতে মৃত্যুর মিছিলে মায়ের সাথে নিজের নামটি যুক্ত হয়নি। সদ্য মাকে হারানো শিশু ইফাজ অনেকটাই নির্বাক। প্রয়োজন ছাড়া একটি কথাও বলেনি সে।

ইফাজের সাক্ষ্য থেকে জানা যায় তার একটি ৫বছরের ছোট বোন আছে। তাকে নিয়ে সে এখন মুন্সিগঞ্জে নানীর বাড়িতে মামা মামীর সাথে রয়েছে।

সব শুনে নিজেকে ধরে রাখতে পারেনি নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলার মানবিক নির্বার্হী কর্মকর্তা(ইউএনও) নাহিদা বারিক। লঞ্চ ডুবির ঘটনার পর লাশ উদ্ধার কার্যক্রমের পুরোটা জুড়েই ঘটনাস্থলে ছিলেন তিনি। নিহতদের নিথর মরদেহ তিনি নিজে উপস্থিত স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করেছেন।

ইফাজের বক্তব্য শুনে নিজের চেয়ারম্যান থেকে উঠে গিয়ে ইফাজের মাথা টেনে নিজের বুকে জড়িয়ে নেন। ইফাজের মাথায় হাত বুলিয়ে তাকে শান্তনা দিয়ে বলেন তোমাকে শক্ত হতে হবে। তোমার লেখাপড়া চালিয়ে যেতে হবে, ছোট বোনকে দেখে রাখতে হবে তার দায়িত্ব তোমাকেই নিতে হবে না। ভেঙ্গে পড়লে চলবেনা।

এসময় ইউএনও ইফাজের সাথে থাকা তার মামা রুবেল হোসেনকে উদ্দেশ্য করে বলেন ভবিষ্যতে যে কোন প্রয়োজন হলে যেন ইফাজের অভিভাবকেরা তার সাথে যোগাযোগ করেন।


বিভাগ : মহানগর


নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আরো খবর
এই বিভাগের আরও