শহরে কঠোর মহল্লায় ঈদের আমেজ

স্পেশাল করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ ১১:০৭ পিএম, ১৫ এপ্রিল ২০২১ বৃহস্পতিবার

শহরে কঠোর মহল্লায় ঈদের আমেজ

সরকার ঘোষিত দ্বিতীয় দফার ৭দিনের লকডাউনে শহরের প্রাণকেন্দ্র চাষাঢ়া এলাকায় তৎপর রয়েছে পুলিশ প্রশাসন। জনসাধারণকে লকডাউন মানাতে বিভিন্ন ধরনের পদক্ষেপ গ্রহন করছেন তারা। তবে শহরের পাড়া মহল্লাগুলোতে চলছে ঈদের আমেজ। লকডাউনের কারণে শপিংমল, বিপনী বিতান সমূহ বন্ধ রয়েছে। তাই ওই সকল ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে কর্মরত শ্রমিক কর্মচারীরা বর্তমানে অলস সময় পাড় করছে। তবে যে কারনে লকডাউন দেওয়া যাতে সাধারণ মানুষ ঘরে থাকে আর করোনা ভাইরাসের সংক্রমন রোধ করা সম্ভব হয়। সেই উদ্দেশ্যের বিপরীতেই হাটছে অলস সময় পাড় করা ওই সকল ব্যক্তিরা। তারা ঘরে না থেকে পাড়া মহল্লার মেতে উঠেছেন বিভিন্ন আড্ডায়।

শুধু নগরীর পাড়া মহল্লাতেই নয়। যেখানে পুলিশ প্রশাসনের নজরদারী খুব একটা নেই সেই শীতলক্ষ্যা নদীর পাড় ৫নং ঘাট হতে মন্ডলপাড়া ঘাট পর্যন্ত ওয়াক ওয়েতে প্রতিদিন ভীড় করছে অংসখ্য তরুন যুবক। সেখানে তারা ঘন্টার পর ঘন্টা অবস্থান করে আড্ডা দিচ্ছেন। অনেকে আবার এক জোট হয়ে মোবাইলে লুডু কিং খেলায় মত্ত রয়েছে। একটি মোবাইল ফোনে ৪জন খেলোয়ার পাশেই আবার বসে খেলা উপভোগ করছে আরো কয়েকজন। এই খেলা খেলতে আর দেখতে যেন একজন আরেকজনের গায়ের উপর উঠে যাচ্ছে। এমন পরিস্থিতিতে অনেক তরুণ যুবকের মুখে মাস্ক নাই। লুডু কিং গেমসে শুধু মাত্র যে তরুন আর যুবকরাই আসক্ত রয়েছে এমন না। মোবাইলের এই গেমসটিতে আসক্তি রয়েছে বয়স্ক ব্যক্তিদেরও। বয়স্ক ব্যক্তিরাও পান চিবুতে চিবুতে কয়েকজন একত্রে বসে এই গেমস খেলায় মত্ত থাকতে দেখা গেছে। লকডাউনের দ্বিতীয় দিন বৃহস্পতিবার ৫নং খেয়াঘাট থেকে মন্ডলপাড়া পর্যন্ত শীতলক্ষ্যা নদীর ওয়াকওয়ে পথে সরজমিনে ঘুরে এমন দৃশ্যই দেখা গেছে।

অপরদিকে পাড়া মহল্লায় অবসর সময় কাটাতে এলাকার তরুন যুবকরা ব্যস্ত বন্ধু-বান্ধব নিয়ে আড্ডায়। এখানে রয়েছে লুডু কিং গেমসের প্রকোপ। কেউ কেউ আবার ভার্চুয়াল গেমসের বাইরে এসে ক্যারাম খেলায় মজেছেন। ৪জন খেলছেন আর সেই খেলা পাশে দাড়িয়ে উপভোগ করছে আরো ঘোটা দশেক মানুষ। কোথাও নেই সামাজিক দুরত্ব মেনে চলার মানসিকতা নেই স্বাস্থ্য বিধির বালাই।

সচেতন মহলের মতে, শুধুমাত্র শহরের চাষাঢ়া এলাকায় পুলিশ প্রশাসনের তৎপরতা চালালেই হবেনা। প্রশাসনের এই তৎপরতা নগরীর প্রতিটি এলাকায় অব্যাহত রাখতে হবে। প্রশাসন নমনীয় তাই সাধারণ মানুষের মাঝেও লকডাউন মেনে চলার প্রবনতা তৈরি হচ্ছে না। প্রতিটি পাড়া মহল্লায় পুলিশ প্রশাসনের টহল বাড়ানো উচিত। করোনা সংক্রমন ঠেকাতে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলা আর সামাজিক দুরত্ব বজায় রাখা ছাড়াও এখন পর্যন্ত কার্যকরি তেমন আর কোন বিকল্প ব্যবস্থা নেই। তাই একটি দেশের সরকার যখন সাধারণ মানুষের জীবনের কথা চিন্তা করে লকডাউন ঘোষণা করেছেন সেহেতু সাধারণ মানুষকে সেই লকডাউন সাধ্যমত মানতে হবে। এ ব্যাপারে পুলিশ প্রশাসনের পক্ষ থেকেও কঠোর ভূমিকা নিতে হবে বলে মনে করেন সচেতন মহল।


বিভাগ : মহানগর


নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আরো খবর
এই বিভাগের আরও