ধর্ষিতাকে আপসের প্রস্তাব পুলিশ কর্মকর্তার!

স্টাফ করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ ০৮:১৫ পিএম, ৬ জুন ২০২১ রবিবার

ধর্ষিতাকে আপসের প্রস্তাব পুলিশ কর্মকর্তার!

নারায়ণগঞ্জ শহরের টানবাজার এলাকায় ২ সন্তানের জননীকে গণধর্ষণ করার অভিযোগ উঠেছে ভুক্তভোগীর প্রতিবেশী মিঠু (৩৮) ও অজ্ঞাত ২ ব্যক্তির বিরুদ্ধে। একই সাথে সদর মডেল থানায় মামলা গ্রহণ না করে উল্টো আপোষের পরামর্শ দেয়ার অভিযোগে জেলা পুলিশ সুপার বরাবর লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন ভুক্তভোগী।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, ভুক্তভোগী নারী (২৮) তার স্বামীর সাথে বনিবনা না হওয়ায় ২ শিশুপুত্রকে নিয়ে মায়ের বাড়িতে বসবাস করেন। তাদের প্রতিবেশী এবং সম্পর্কে চাচা বলে ডাকতেন অভিযুক্ত মিঠু (৩৮) নামের ওই ব্যক্তিকে। বিভিন্ন সময় বাদীকে কুপ্রস্তাব দিত এবং তাতে রাজি না হলে মাদক কিংবা শিশুপুত্রদের অপহরণ করার হুমকি দিত। এতে কর্নপাত না করে বরাবরই ভুক্তভোগী এড়িয়ে চলতো অভিযুক্তকে।

গত ৪ জুন রাতে মিঠু ভুক্তভোগীকে ফোন দিয়ে তার দোকান টানবাজার এলাকার পুলের পাশে আসতে বলে। সরল বিশ্বাসে ভুক্তভোগী সেখানে গিয়ে উপস্থিত হন। এসময় ভুক্তভোগীকে মিঠু ও তার ২ সহযোগী মিলে তার গলায় ওড়নার প্যাচ এবং কিল ঘুশি মেরে পাশের একটি ভবনের সিঁড়িতে ধর্ষণ করে। রাত ২ টার দিকে আহত অবস্থায় একটি রিক্সাতে তুলে দিয়ে তাকে বাড়ি পাঠিয়ে দেয়।

ভুক্তভোগী নারী জানান, ঘটনার পর নারায়ণগঞ্জ সদর মডেল থানায় মামলা দায়ের করতে গেলে প্রথমে নারী ডিউটি অফিসার আমার বক্তব্য শোনেন। এরপরে মামলা নেয়ার কথা বলে পরিদর্শক (তদন্ত) মোস্তাফিজুর রহমানের সাথে কথা বলতে পাঠায়। পরিদর্শক (তদন্ত) আমাকে আসামীর সাথে মিলমিশ করতে বলে। এর পর থেকেই আসামী আমাকে মামলা না করার জন্য হুমকি দিয়ে আসছে। এই ব্যাপারে আমি পুলিশ সুপারের কাছে অভিযুক্ত মিঠু ও তার অজ্ঞাত ২ সহযোগীর বিরুদ্ধে গণধর্ষণ মামলা দায়ের করতে আইনগত সহায়তা চাচ্ছি।

এ ব্যাপারে মামলা না নিয়ে আপোষ করার অভিযোগ ওঠা পরিদর্শক (তদন্ত) মোস্তাফিজুর রহমানের কাছে জানতে চাইলে তিনি প্রশ্ন শুনেই কথা বলতে অপরাগতা প্রকাশ করেন। তিনি বলেন, এমন কিছুই হয়নি। তবে কেন এই অভিযোগ করলো ভুক্তভোগী এমন প্রশ্ন করলে তিনি ফোন রেখে দেন।


বিভাগ : মহানগর


নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আরো খবর
এই বিভাগের আরও