দেওভোগ জিমখানায় উত্তেজনা

স্টাফ করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ ১১:১৬ পিএম, ১০ সেপ্টেম্বর ২০২১ শুক্রবার

দেওভোগ জিমখানায় উত্তেজনা

ঢাকার হাতিরঝিলের আদলে নির্মিত নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের অর্থায়নে দেওভোগে শেখ রাসেল পার্ক ঘিরে দোকান বসানো নিয়ে ফের রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের আশংকা করেছে এলাকাবাসী। এ বিষয়ে নাসিক মেয়র ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভীর প্রতি সময়ের উপযোগী সিদ্ধান্ত কামনা করেছে এলাকাবাসী। ইতোমধ্যে ড্রেনেজ ও রাস্তা মেরামতের জন্য শুক্রবার ১০ সেপ্টেম্বর থেকে সকল দোকান সরিয়ে দিয়েছে পার্কের কর্তৃপক্ষ।

জানা গেছে, দেওভোগে পরিত্যক্ত খাল ও জিমখানা বস্তি উচ্ছেদ করে শেখ রাসেল নগর পার্কটি নিমার্ণ শুরু করে নাসিক। এর পর থেকে দেওভোগ ও বাবুরাইলে চারদিক ঘিরে ফুটপাতে দোকান বসানো নিয়ে প্রতিযোগিতা শুরু হয়। দেওভোগের প্রভাবশালী বাবা ও ছেলের সহযোগিতায় অর্ধশত দোকান ও অবৈধ অটো স্ট্যান্ড বসিয়ে অর্থ হাতিয়ে নেয়া অভিযোগে এলাকার দুই পক্ষে মধ্যে সংঘর্ষ বাধলে মেয়রের নির্দেশে সকল দোকান ও অবৈধ স্ট্যান্ড সরিয়ে নেয়া হয়।

সংঘর্ষ ও করোনা সময়ের ব্যবধানে ফের শেখ রাসেল পার্ক ঘিরে দেওভোগ ও বাবুরাইলে পুরো এলাকা ঘিরে দোকান বসিয়ে হাতিয়ে নিচ্ছে কতিপয় স্বজনেরা।

বৃহস্পতিবার দেওভোগ বড় জামে মসজিদের সামনে মুক্তিযোদ্ধা সড়কের নামফলকের সামনে একটি বসানো চেষ্টা করে একটি ছাত্রলীগ নেতা। স্থানীয় নূর নামে ব্যক্তি পার্টনার বলে দোকান বসানো পায়তারা সময় বাধা দেন পার্কের কেয়ারটেকার উজ্জল। তিনি ওই ছাত্রলীগ নেতাকে এখানে দোকান বসানো নিয়ে বাধা দিলে কেয়ারটেকার উপর চড়াও হয়। পরে স্থারীয় যুবকদের সহযোগিতায় মুক্তিযোদ্ধা নামফলক থেকে দোকান সরিয়ে নিতে বাধ্য হন ছাত্রলীগ নেতা।

এলাকার সূত্রে জানা গেছে, যারা দোকান বসাচ্ছে তাদের পকেটে প্রতিদিন সপ্তাহ মাসে মোটা অংকের টাকা ও সালামী জন্য এই কর্মকান্ডে লিপ্ত হচ্ছে। শেখ রাসেল পার্কটি এখন দোকানীদের জন্য পার্ক রাস্তা থেকে দেখা যাচ্ছে না। মেয়র আইভী প্রতিদিন এই সড়ক দিয়ে চলাচল করলেও অদৃশ্য শক্তি কারণে তাদের উচ্ছেদের কোন ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে না।


বিভাগ : মহানগর


নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আরো খবর
এই বিভাগের আরও