পালপাড়ায় মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের জমি দখল অভিযোগে মানববন্ধন

সিটি করেসপন্ডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ ০৯:৫১ পিএম, ২১ নভেম্বর ২০২০ শনিবার

পালপাড়ায় মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের জমি দখল অভিযোগে মানববন্ধন

প্রতিবেশীদের বিরুদ্ধে বীর মুক্তিযোদ্ধা নার্স বেহুলা রানী চৌধুরীর পরিবারের জমি দখলের অভিযোগ এনে মানববন্ধন করেছে ভুক্তভোগী পরিবারটি। ২০ নভেম্বর শুক্রবার বিকেলে নারায়ণগঞ্জ প্রেস ক্লাবের সামনের সড়কে পরিবারটি মানববন্ধন করে।

মানববন্ধনে উপস্থিত ছিলেন বীর মুক্তিযোদ্ধা নার্স বেহুলা রানী চৌধুরীর পুত্রবধু পুতুল রানী চৌধুরী, নাতি রাজন চৌধুরী, নাতনি মুন্নি চৌধুরী, মল্লিকা চৌধুরীসহ স্বজনেরা।

অভিযুক্ত প্রতিবেশীরা হলেন লিটন বসাক, অসীম ঘাষ, বিজয় দেবনাথ, শ্যামল দেবনাথ, প্রদীপ দেবনাথ, জয় দেবনাথ, মিতু দেবনাথ, ইতি ঘোষ, অনিতা ঘোষ, পাখি ঘোষ ও অমল ঘোষ।

রাজন চৌধুরী নিউজ নারায়ণগঞ্জকে বলেন, ‘আমার দাদি আহত মুক্তিযোদ্ধাদের চিকিৎসা সেবা প্রদান করেছেন। মুক্তিযুদ্ধের পর তৎকালীন নারায়ণগঞ্জ পৌরসভার (বর্তমান সিটি করপোরেশন) তিনি স্বাস্থ্যকর্মী হিসেবে দায়িত্বরত ছিলেন। যুদ্ধের পর তাঁর পরিবার নিয়ে বসবাস করার জন্য নতুন পালপাড়া এলাকায় ১০ শতাংশ জমি সাফ কবলায় রেজিস্ট্রি করে ক্রয় করেন। কিন্তু এরপর থেকে বিভিন্ন সমস্যা শুরু হয়। ভূমিদস্যুরা আমাদের জায়গা থেকে আমাদের বেদখল করার জন্য বিভিন্ন মামলা মোকদ্দমা দেয়। বহুবছর মামলা পরিচালনার পর নি¤œ আদালত থেকে আমাদের পক্ষে রায় আসে। ম্যাজিস্ট্রেট এবং পুলিশ এসে জমি উদ্ধার করে সীমানা নির্ধারণ করে বেহুলা রানী অর্থাৎ আমার দাদিকে বুঝিয়ে দেয়। এরপর দাদি এবং তাঁর দুই ছেলের মৃত্যুর পর আমরা অসহায় হয়ে পড়ি। যাদের সাথে বিরোধ ছিল তাঁরা এবং তাঁদের ওয়ারিশরা পূণরায় আমাদেরকে বেদখল করার জন্য সন্ত্রাসি দিয়ে হুমকিসহ নানা ভাবে চেষ্টা করে যাচ্ছে।’

তিনি আরো বলেন, ‘১০ শতাংশ জায়গার মধ্যে ৪ শতাংশ জায়গায় আমি থাকতাম। ৩ শতাংশ নিয়ে তাঁদের সাথে এখনো মামলা চলছে। বাকি ৩ শতাংশ জমির মামলায় আমাদের পক্ষে রায় আসে। রায় আসার পর ম্যাজিস্ট্রেট ও পুলিশ এসে উদ্ধার করে দিলেও এখন আবার দখলে নিয়েছে। সেই জমি তাঁদের বলে দাবি করে। সেই জমিতে আমাদেরকে কোনো কাজ করতে দেয় না। এছাড়া যে ৪ শতাংশ জায়গায় আমরা থাকতাম সেখানেও থাকতে দেয় না। তাঁদের বাড়ির ময়লা পানি, আবর্জনা আমাদের বাড়ি উঠানে ফেলে। অত্যাচারে অতিষ্ট হয়ে সেই জায়গা ছেড়ে এখন অন্য জায়গায় ভাড়া থাকি।’

তিনি আরো বলেন, ‘আমরা পুলিশ সুপারে কাছে অভিযোগ করেছি। তিনি আমাদের অভিযোগ গ্রহণ করে জায়গা পরিদর্শন করে তাঁদেরকে থানায় ডেকেছিলেন। পঞ্চায়েত কমিটি তাঁদের ডেকেছে, মুক্তিযুদ্ধ কমান্ডার তাঁদের ডেকেছে। কিন্তু তারা কোথাও যাচ্ছে না। আমাদের পক্ষে রায় পাওয়া জায়গায় তাঁরা থাকতে দিচ্ছে না। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী এবং মহামান্য রাষ্ট্রপতির কাছে আমাদের অনুরোধ আমাদের জীবনের নিরাপত্তা চাই, এই ভূমিদস্যুদের হাত থেকে রক্ষা চাই।’



নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আরো খবর
এই বিভাগের আরও