মামলার ওয়ারেন্ট নিয়ে প্রকাশ্যে!

স্টাফ করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ ০৯:৪১ পিএম, ২ নভেম্বর ২০২০ সোমবার

মামলার ওয়ারেন্ট নিয়ে প্রকাশ্যে!

নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলার বক্তাবলীর চরাঞ্চল আকবরনগর ও প্রতাবপনগর। পাশেই মুন্সীগঞ্জ জেলা। তবে এ আকবর ও প্রতাবনগরের নিয়ন্ত্রক দুই হাজী। একজনের নাম সামেদ আলী আরেকজন রহিম হাজী। পুরো দুই নগরের সবকিছু এখন তাদের নিয়ন্ত্রনে। আর এ নিয়ে কোন বিরোধ হলেই উভয় পক্ষ লিপ্ত হয় সংঘর্ষে। মাঝের কয়েক বছর চাঁদাবাজি আর সন্ত্রাসী কর্মকান্ড অনেকটাই কমে গিয়েছিল। তবে চরাঞ্চল আকবর নগর ও প্রতাব নগরে ফের ত্রাসের রাজত্ব কায়েম করতে চাইছে দীর্ঘদিন ধরে পালিয়ে থাকা তালিকাভুক্ত শীর্ষ সন্ত্রাসী রহিম হাজী ও সামেদ বাহিনী। এলাকায় আধিপত্য বিস্তার ও চাঁদাবাজিকে কেন্দ্র করে প্রায়ই সময় গুলি ও টেঁটা যুদ্ধের ঘটনা ঘটছে। অনেকেই ভয়ে রহিম হাজী ও সামেদের ক্যাডারদের হাতে চাঁদার টাকাও তুলে দিচ্ছেন নীরবে। এমনকি খোদ স্থানীয় ইট ভাটা ব্যাসায়ীরা চাঁদা দিতে বাধ্য হয়েছেন। চাঁদা না দিলে পরিবারের সব সদস্যকে গুলি করে হত্যার ভয় দেখানো হয়। প্রিয়জন হারানোর ভয়ে থানা-পুলিশও করেন না অনেকেই। কারণ তাদের বিরুদ্ধে হত্যা, চাঁদাবাজি, সন্ত্রাসী কার্যকলাপের অভিযোগে তাদের বিরুদ্ধে একাধিক মামলা রয়েছে। প্রত্যেকের বিরুদ্ধে ওয়ারেন্ট থাকা সত্বেও তারা প্রকাশ্যে ঘুরে বেড়াচ্ছে। পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে এসব তথ্য জানা গেছে।

ফতুল্লা মডেল থানার পরিদর্শক (তদন্ত) সফিকুর রহমান বলেন, শুনেছি শীর্ষ সন্ত্রাসী রহিম হাজী ও সামেদের ক্যাডাররা ফের সক্রিয় হওয়ার চেষ্টা করছে। তারা রহিম হাজী ও সামেদের হয়ে বিভিন্ন ব্যবসায়ী কাছ থেকে অস্ত্রের ভয় দেখিয়ে চাঁদাবাজি করছে। তাদের অন্যান্য সহযোগীকেও গ্রেফতারের জন্য অভিযান চলছে। ইতিমধ্যে আকবর নগর ও প্রতাবনগর এলাকার বেশ কিছু ওয়ারেন্ট আমরা পেয়েছি তাদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

আকবর নগর ও প্রতাবনগর এলাকার ওয়ারেন্টভুক্ত আসামিরা হলেন শাকিল, ইমরান, শাহআলী, আলী মিয়া, শাহপরান, তজু, টারজান, কবির খাঁ, রহিম খাঁ, সবুর খাঁ, নিজাম খাঁ, শুক্কুর খাঁ, হাসন আলী, জুয়েল, মহিউদ্দিন।



নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আরো খবর
এই বিভাগের আরও