চালককে জবাই করে মিশুক ছিনতাই

স্টাফ করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ ১১:১৬ পিএম, ১৭ জুন ২০২১ বৃহস্পতিবার

চালককে জবাই করে মিশুক ছিনতাই

নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলার ফতুল্লায় ব্যাটারী চালিত অটোরিকশা (মিশুক) চালককে কুপিয়ে গলাকেটে হত্যার পর অটোরিকশা ছিনিয়ে নিয়ে গেছে ছিনতাইকারীরা। বুধবার দিনগত রাত আড়াইটার দিকে সদর উপজেলার পিলকুনি মোল্লা বাড়ি এলাকায় এঘটনা ঘটে। নিহতের মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য নারায়ণগঞ্জ ১০০ শয্যাবিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। প্রথম স্ত্রী রেহেনা আক্তার (৩৫) বাদী হয়ে অজ্ঞাতনামা দুই জনকে আসামী করে বৃহস্পতিবার দুপুরে ফতুল্লা মডেল থানায় মামলা দায়ের করেছেন।

ঘটনাস্থলে যাওয়া ফতুল্লা মডেল থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) আব্দুল রাজ্জাক জানান, ধারণা করা হচ্ছে রাতে খাঁন সাহেব ওসমান আলী স্টেডিয়ামের সামনে থেকে যাত্রী বেশে ছিনতাইকারীরা অটোরিকশাটি ভাড়া করে পাগলার দিকে যাচ্ছিল। পথেই পিলকুনি এলাকায় ছিনতাইকারীরা চালককে মারধর করে অটোরিকশাটি ছিনিয়ে নেয়ায় চেষ্টা করলে ধস্তাধস্তির এক পর্যায়ে তাকে কুপিয়ে গলাকেটে করে হত্যার পর অটোরিক্সাটি নিয়ে পালিয়ে যায়। হত্যার সঙ্গে জড়িতদের চিহ্নিত করে গ্রেফতার করার জন্য পুলিশের অভিযান চলছে।

মামলায় উল্লেখ করা হয় যে, নিহত মিশুক চালক আনোয়ার হোসেন(৩৯) চাঁদপুর জেলার কচুয়া থানার মৃত আবুল হাসেমের পুত্র। নিহত আনোয়ার হোসেন (দ্বিতীয় স্ত্রী সাফিয়া বেগম কে নিয়ে) ফতুল্লা থানার কোতালেরবাগ বৌ বাজারস্থ মুক্তিযোদ্ধা মঞ্জুর সাহেবের বাসায় ভাড়ায় বসবাস করতেন এবং নিজ মালিকানাধিন ব্যাটারী চালিত মিশুক গাড়ী চালিয়ে জীবিকা নির্বাহ করতেন। নিহত আনোয়ার হোসেন বুধবার(১৬ জুন)রাত সাড়ে আটটার দিকে তার বৌ বাজারস্থ বাসা থেকে মিশুক নিয়ে বের হয়। রাত্র অনুমান ১২ টার সময় ফতুল্লা থানার রামারবাগ স্টেডিয়ামের সামনে হইতে ২ জন অজ্ঞাতনামা ব্যক্তি নিহত আনোয়ার হোসেনের মিশুক গাড়ি নন্দলালপুর যাওয়ার কথা বলিয়া ভাড়া করে। পরবর্তীতে একই তারিখ রাত্র পৌনে দুইটার দিকে জাতীয় জরুরী সেবা ৯৯৯ এর মাধ্যমে ফতুল্লা থানা পুলিশ সংবাদ পায় যে, একজন ব্যক্তির লাশ পিলকুনী জামে মসজিদের উত্তর দিকে নন্দলালপুর-শিয়াচর গামী রাস্তার উপর পড়ে আছে। পরে পুলিশ সংবাদ পেয়ে লাশ লাশ উদ্ধার করে সুরতহাল রিপোর্ট প্রস্তুত করে ময়না তদন্তের জন্য জেনারেল হাসপাতাল (ভিক্টোরিয়া), নারায়ণগঞ্জ মর্গে প্রেরণ করেন এবং লাশের পাশে পড়ে থাকা তাহার ব্যবহৃত মোবাইল ফোনের মাধ্যমে নিহতের পরিবারের সদস্যদের সাথে যোগাযোগ করেন।

তখন তারা জানতে পারে যে, অজ্ঞাতানামা দুষ্কৃতিকারীরা বুধবার দিবাগত রাত রাত ১২ টা হইতে রাত পৌনে ২ টার মধ্যো কোন এক সময় আনোয়ার হোসেন কে অজ্ঞাত স্থানে ধারালো অস্ত্র দ্বারা আঘাত করে হত্যা করে তাহার ব্যাটারী চালিত মিশুক, (যাহার মূল্য অনুমান ১,০০,০০০/- টাকা) ছিনিয়ে নিয়ে য়ায় এবং লাশ গোপন করার জন্য পিলকুনী জামে মসজিদের উত্তর দিকে নন্দলালপুর-শিয়াচর গামী রাস্তার উপর ফেলে রাখে।

নিহতের দ্বিতীয় স্ত্রী সাফিয়া বেগম জানায় তার স্বামী বুধবার রাত সাড়ে আটটার দিকে বাসা থেকে বের হয়।বৃহস্পতিবার সকাল সাতটার দিকে তার স্বামীর প্রথম স্ত্রী তাকে ফোন করে জানায় যে তার স্বামীকে হত্যা করা হয়েছে এবং মৃত দেহ ফতুল্লা থানায় রয়েছে।

নিহত মিশুক চালক আনোয়ার হোসেনের প্রথম স্ত্রী`র সংসারে দুই ছেলে ও দুই মেয়ে রয়েছ।দ্বিতীয় স্ত্রীর সংসারে কোন সন্তানাদি নেই বলে জানায় নিহতের স্বজনেরা।

ফতুল্লা মডেল থানার ইনচার্জ রকিবুজ্জামান জানান,নিহত মিশুক চালক আনোয়ার হোসেনের স্ত্রী বাদী হয়ে অজ্ঞাতনামা দুই জনকে আসামী করে মামলা দায়ের করেছে।ঘটনার সাথে জড়িতদের চিহ্নিত সহ গ্রেফতার করার জন্য পুলিশের একাধিক টিম কাজ করছে বলে তিনি জানান।



নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আরো খবর
এই বিভাগের আরও