পঞ্চবটি থেকে চাষাঢ়া রিকশা ভাড়া ১৫০ টাকা

স্টাফ করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ ০৯:২১ পিএম, ২৩ জুলাই ২০২১ শুক্রবার

পঞ্চবটি থেকে চাষাঢ়া রিকশা ভাড়া ১৫০ টাকা

২৩ জুলাই শুক্রবার সকাল থেকে নারায়ণগঞ্জসহ সারাদেশে লকডাউন শুরু হয়েছে। এবার বিধিনিষেধ আরো কঠোর। এমন অবস্থায় সড়কে হাতে গোনা কয়েকটি রিকশা ও ব্যাটারী চালিক রিকশা ছাড়া যানবাহন নেই বললেই চলে। এই সুযোগে ভাড়া এখন কয়েকগুণ বাড়িয়ে দিয়েছে চালকরা। পঞ্চবটি থেকে চাষাঢ়ায় সাধারণত ভাড়া ৪০ থেকে ৫০ টাকা হলেও এখন চাওয়া হচ্ছে ১৫০ টাকা।

২৩ জুলাই শুক্রবার সকাল থেকে যারাই পঞ্চবটি থেকে চাষাঢ়ার দিকে আসার চেষ্টা করেছে সবাইকেই এমন বিড়ম্বনায় পড়তে হয়েছে। চিকিৎসাসহ অতি জরুরি প্রয়োজনে যারা শহরে আসার চেষ্টা করছেন তাঁদেরকে বাড়তি ভাড়া দিয়েও পড়তে হয়েছে বিড়ম্বনায়। কারণ ভাড়া বেশি দিতে চাইলেও রিকশার জন্য অপেক্ষা করতে হয়েছে দির্ঘক্ষণ।

রাকিবুল ইসলাম একটি প্যাকেটজাত খাদ্য উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠানে চাকরি করেন। পঞ্চবটি থেকে চাষাঢ়ায় আসার জন্য প্রায় ১ ঘন্টা ধরে অপেক্ষা করছেন তিনি। কিন্তু গাড়ি পাচ্ছেন না। শুধুমাত্র কয়েকটি মিশুক, প্যাডেল চালিত ও ব্যাটারী চালিত কিছু রিকশা ছাড়া সব ধরণের যানচলাচল বন্ধ। কয়েকটি মিশুককে জিজ্ঞেস করলেও তারা চাষাঢ়ায় আসবে না। পুলিশ লাইন পর্যন্ত আসবে তাও ২০ টাকার ভাড়া ৫০ টাকা। বাধ্য হয়ে একটি ব্যাটারী চালিক রিকশা ভাড়া করেন তিনি। সেটি কলেজ রোড পর্যন্ত আসবে। কিন্তু ভাড়া দিতে হবে ১৫০ টাকা। উপায় না পেয়ে আরো একজন যাত্রীকে সঙ্গে নিয়ে সেটিই ভাড়া করেছেন তিনি।

নিউজ নারায়ণগঞ্জকে রাকিবুল ইসলাম বলেন, ‘আমাতের ফ্যাক্টরী বন্ধ করা হয়নি। আমাদেরতো যেতেই হবে। কিন্তু আমার ৫ দিনের ভাড়া একবারেই চলে গেলো। এভাবে চলতে থাকলে ধার করে রিকশা ভাড়া দিয়ে যাতায়াত করতে হবে। কালকে থেকে হয়তো হেঁটেই যাতায়াত করতে হবে।’

ভাড়া বৃদ্ধি নিয়ে রিকশা চালকেরও যুক্তি রয়েছে। যাত্রীরা প্রয়োজনে এসেছে নাকি অপ্রয়োজনে এসব বিবেচনা না করে আটক করা হলেই জরিমানা করা হয় ১৫০০ টাকা। ‘রিস্ক’ চলাচল করতে হয় বিধায় বাধ্য হয়ে ভাড়া বাড়িয়ে চাইছেন তাঁরা।

এ প্রসঙ্গে রিকশা চালক মো. রতন মিয়া নিউজ নারায়ণগঞ্জকে বলেন, ‘আমরাও পেটের দায়েই রাস্তায় নামছি। কিন্তু পুলিশ আটকাইলে আমাগো ফ্রিতে ছাড়ে না। জরিমানা কইরা দেয়। ধরলেই ১৫০০ টাকা। রিস্ক নিয়া চালাইতে হয়। তাই ভাড়া বেশি।’

এ প্রসঙ্গে নারায়ণগঞ্জ জেলা পুলিশের সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার (ট্রাফিক) সালেহ উদ্দিন আহমেদ নিউজ নারায়ণগঞ্জকে বলেন, ‘অটোরিকশা, প্যাডেল চালিত রিকশা সব কিছুই বন্ধ। লকডাউন বাস্তাবায়নে ২২টি চেকপোস্ট ও ২৯টি মোবাইল টিম সকাল ৬টা থেকে নিয়োজিত আছে। রাস্তায় অতিরিক্ত যানবাহন নেই। ইমার্জেন্সি যানবাহনগুলো ছাড়া কোনো গাড়িকেই যেতে দেওয়া হচ্ছে না। যারা আইন মানছে না তাঁদেরকে আটক করে মামলা দিচ্ছি। সকাল থেকে অনেককে মামলা দেওয়া হয়েছে এটা চলমান থাকবে।’

সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট হাসান বিন আলী নিউজ নারায়ণগঞ্জকে বলেন, ‘সিএনজি, ব্যাটারী চালিত রিকশাও নিষিদ্ধ করা হয়েছে। আমাদের সাধ্যমত প্রত্যেকটা মানুষকেই জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। মানবিক এবং জরুরি প্রয়োজন ছাড়া কাউকেই যেতে দেওয়া হচ্ছে না। যথাযথ কারণ দেখাতে না পারলে অর্থদ-সহ আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে। আগামীতে এই বিষয়গুলো আরো কঠোরভাবে নিয়ন্ত্রণ করা হবে।’

উল্লেখ্য, নারায়ণগঞ্জে ২৩ জুলাই শুক্রবার ২৪ ঘণ্টায় ৯০ জনের করোনা পজিটিভ রিপোর্ট এসেছে। সোনারগাঁ উপজেলায় ৬৫ বছরের এক নারী, সিটি করপোরেশন এলাকায় ৭০ বছরের নারী ও ৫৪ বছরের পুরুষের মৃত্যু হয়েছে। নমুনা পরীক্ষা করা হয় ২৬৮ জনের। শনাক্তের হার ৩৩.৫৮ শতাংশ।

নারায়ণগঞ্জ জেলা সিভিল সার্জনের দেয়া তথ্য মতে, এ পর্যন্ত জেলায় করোনাভাইরাসে মোট শনাক্ত হয়েছে ১৭ হাজার ৯০৪ জন। এ নিয়ে জেলায় ১ লাখ ২৯ হাজার ৬৬০ জনের নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। এখনো পর্যন্ত জেলায় মৃত্যুর সংখ্যা ২৪৫ জন। জেলায় মোট সুস্থ হয়েছেন ১৪ হাজার ৭৪৪ জন। বর্তমানে শনাক্ত করোনা পজিটিভ রোগীর সংখ্যা ২৯১৫ জন।



নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আরো খবর
এই বিভাগের আরও