অটো চালক নয়ন কিলিং মিশনে ৩ বন্ধু

স্টাফ করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ ০৮:৪৭ পিএম, ৯ সেপ্টেম্বর ২০২১ বৃহস্পতিবার

অটো চালক নয়ন কিলিং মিশনে ৩ বন্ধু

ঘুরতে বের হয়ে তিন বন্ধু মিলে বুকে ছুরি মেরে ও জবাই করে অপর বন্ধু নয়ন ঋসি দাসকে (১৬) হত্যা করে ছিনিয়ে নিয়ে যায় তার ইজিবাইক। এ হত্যাকান্ডের সাথে জড়িত মামুন (১৬) নামক ঘাতককে বৃহস্পতিবার ৯ সেপ্টেম্বর দুপুরে গ্রেফতার করে ফতুল্লা মডেল থানা পুলিশ। গ্রেফতারকৃত মামুন মুন্সিগঞ্জ জেলার টঙ্গিবাড়ী থানার পাইকপাড়ার মুসলিম শেখের পুত্র একই জেলার সদর থানার সুদার চরের ইলিয়াস আমিনের ভাড়াটিয়া।

বৃহস্পতিবার দুপুর একটার দিকে তাকে মুন্সিগঞ্জের আব্দুল্লাহপুর বাজার থেকে গ্রেফতার করা হয়।

এর আগে গত ৭ সেপ্টেম্বর দুপুর ১২টায় ফতুল্লার বক্তাবলী ইউনিয়ণের চর প্রসন্ন নগর এলাকার বাসুর ঘাটের কাছে ধইঞ্চা খেত থেকে মুন্সিগঞ্জের টঙ্গীবাড়ী থেকে নিখোঁজ ইজিবাইক চালক নিহত নয়ন ঋসি দাসের লাশ উদ্ধার করে ফতুল্লা মডেল থানা পুলিশ। লাশ উদ্ধারের একদিন পর ৮ সেপ্টেম্বর বুধবার নিহতের বাবা বাদী হয়ে ফতুল্লা মডেল থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।

নিহত নয়ন ঋসি দাস মুন্সিগঞ্জ জেলার টঙ্গীবাড়ী থানার আব্দুল্লাহপুর গ্রামের শ্রী জয়ো দাসের ছেলে।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ফতুল্লা মডেল থানার উপ-পরিদর্শক নজরুল জানান, গ্রেফতারকৃত মামুন প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে হত্যাকান্ডের সাথে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেছে।

গ্রেফতারকৃত মামুনের বরাত দিয়ে তিনি জানান, নিহত নয়ন ঋসি দাস, গ্রেফতারকৃত মামুন ও অপর দুই ঘাতক শিমুল ও মিরাজ তারা চার বন্ধু। ঘটনার দিন রাত ৮ টার দিকে নিহত নয়ন সহ অপর দুই ঘাতক শিমুল ও মিরাজ গ্রেফতারকৃত মামুনের বাসায় এসে তাকে বাসা থেকে ডেকে বের করে বলে যে তারা ঘুরতে বের হবে। তখন তারা চার বন্ধু মিলে নিহত নয়নের ইজিবাইকে করে ঘুরতে বের হয়ে। নদীর তীরে গান গেয়ে সাড়ে দশটার দিকে তারা ফতুল্লা থানার বক্তাবলীর চর প্রসন্ন নগরের বাসুর ঘাটের কাছে এসে নির্জন স্থানে ইজিবাইক থামিয়ে শিমুল প্রথমে নিহত নয়নের বুকে ছুরিকাঘাত করে। নয়ন নিজেকে বাঁচাতে ছুরিকাঘাতের পর দৌড়ে পালানোর চেস্টা করলে সে এক পর্যায়ে কিছু দূর গিয়ে মাটিতে পড়ে যায়। তখন দৌড়ে গিয়ে শিমুল মাটিতে পরে যাওয়া নিহত নয়নের বুকে দ্বিতীয় বারের মতো ছুরিকাঘাত করে। পরে শিমুলের কথা মতো গ্রেফতারকৃত মামুন নিহতের মাথা ও অপর ঘাতক মিরাজ নিহতের চোয়াল চেপে ধরলে শিমুল তার হাতে থাকা ছুরি দিয়ে জবাই করে হত্যা করে নয়নকে। হত্যা নিশ্চিত করার পর নিহতের লাশ পাশের ডোবায় ফেলে দিয়ে তারা নিহতের ইজিবাইক নিয়ে চলে যায়। পরে গ্রেফতারকৃত মামুন কে তার বাসার সামনে নামিয়ে দিয়ে ইজিবাইক নিয়ে চলে যায় শিমুল ও মিরাজ।



নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আরো খবর
এই বিভাগের আরও