পলাশের তদারকির মসজিদে হানা!

স্পেশাল করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ ০৬:২৯ পিএম, ৬ অক্টোবর ২০২০ মঙ্গলবার

পলাশের তদারকির মসজিদে হানা!

নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলার ফতুল্লার তক্কারমাঠ এলাকার একটি মসজিদে শ্রমিক লীগ নেতা কাউসার আহমেদ পলাশ তদারকির কারণেই সেখানে ক্ষমতাসীনরা হানা দিয়েছে অভিযোগ উঠেছে।

জানা গেছে, ফতুল্লার তক্কার মাঠ সংলগ্ন বায়তুল আমান কেন্দ্রীয় জামে মসজিদে কমিটি গঠনের লক্ষে গত ৬ সেপ্টেম্বর কমিটির সভায় ৩ সদস্য বিশিষ্ট আহবায়ক কমিটি করা হয়। তাঁরা হলেন আহবায়ক হাজী সামছুল হক, সদস্য সচিব ইলিয়াছ মাতবর ও সদস্য আবুল বাশার।

শনিবার ৩ অক্টোবর ভারপ্রাপ্ত সভাপতি সানোয়ার হোসেন জুয়েল ও সাধারণ সম্পাদক বিএম কামরুজ্জামানের নাম ঘোষণা করা হয়। আর এতে উপেক্ষিত রাখা হয় তিন সদস্যের আহবায়ক কমিটির মতামত।

ওই সময়ে আওয়ামী লীগের দুইজন নেতাকে দেখা যায় সেখানে। ওই দুই নেতা হলেন মহানগর আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক শাহ নিজাম ও জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি এহসানুল হক নিপু।

আহবায়ক হাজী সামছুল হক গণমাধ্যমকে জানান, আমরা চেয়েছিলাম ধর্মপ্রান নামাজী ব্যক্তিদের মাধ্যমে একটি কমিটি করব। প্রয়োজনে এই মসজিদের মুসল্লিদের ভোটের মাধ্যমে নেতৃবৃন্দ নির্বাচিত করবো। কিন্তু সেটা হয়নি। বরং বহিরাগতরা এসে কমিটি দিয়েছে।

তিনি বলেন, আমরা আল্লাহর ঘর নিয়ে কোন সংঘাত চাইনা। যারা আল্লাহর ঘরকে নিয়ে তামাশা করছে তারা অশ্যই মারাত্মক গুনাহের কাজ করছে। তাদের কমিটি ঘোষণা করা অবৈধ। আহবায়ক কমিটির মেয়াদের মধ্যে নতুন কমিটি ঘোষণা করার কোনই এখতিয়ার নেই সাবেক কমিটির নেতৃবৃন্দের। ক্ষমতার লোভ লালসার জন্য তারা অবৈধ কমিটি করেছে। তাদের কারণে শান্তিপ্রিয় তক্কার মাঠ এলাকায় এখন উত্তেজনা বিরাজ করছে। এ ঘটনায় যে কোন সময় সংঘর্ষ হওয়ার আশংকাও রয়েছে বলে মনে করেন তিনি।

এ ঘটনায় মুসল্লিসহ এলাকাবাসীর মাঝে উত্তেজনা যেন বেড়েই চলছে। শ্রমিক নেতা কাউসার আহম্মেদ পলাশ এই মসজিদ কমিটির প্রধান উপদেষ্টা থাকায় সাংসদ শামীম ওসমানের লোকজন তাদের মনগড়া নিয়মে কমিটি করেছে। মসজিদ নিয়ে রাজনীতি শুরু করেছে তারা। নামাজি ও ধার্মিক ব্যক্তিরা মসজিদের পরিচালনার দায়িত্বে থাকবে। ধার্মিক ব্যক্তি নির্বাচনের জন্য মুসল্লিদের ভোট দেয়ার সু-ব্যবস্থা করা হউক, এমন মন্তব্য সমজিদের মুসল্লিদের।


বিভাগ : রাজনীতি


নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আরো খবর
এই বিভাগের আরও