‘নারায়ণগঞ্জেও গুন্ডাতন্ত্রের আখড়া, গডফাদার আছে’

স্টাফ করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ ১০:০২ পিএম, ১৬ অক্টোবর ২০২০ শুক্রবার

‘নারায়ণগঞ্জেও গুন্ডাতন্ত্রের আখড়া, গডফাদার আছে’

বাংলাদেশ ছাত্র ফেডারেশন কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি গোলাম মোস্তফা বলেছেন, ‘সারা দেশ গুন্ডাতন্ত্রে সয়লাব হয়েছে। এই নারায়ণগঞ্জেও গুন্ডাতন্ত্রের একটা আখড়া আছে। গডফাদার আছে। সেই গডফাদার শুধু নারায়ণগঞ্জের ব্যাপার নয়। সারা দেশ গডফাদারে সয়লাব। রাষ্ট্রযন্ত্রকে চিবিয়ে আখের ছোবড়া বানিয়ে সরকার দানবে পরিণত হয়েছে। এই ধর্ষণ এবং ধর্ষণ সংস্কৃতি সেই সৈরাচারি ক্ষমতার জোরেই টিকে আছে।’

১৬ অক্টোবর শুক্রবার দুপুরে ‘ধর্ষণ ও বিচারহীনতার বিরুদ্ধে বাংলাদেশ’ ব্যানারে ধর্ষণ ও নিপীড়নের বিরুদ্ধে দেশব্যাপী গণজাগরণ তৈরির লক্ষ্যে এবং ৯ দফা দাবিতে নোয়াখালীর পথে লংমার্চ শুরু করে নারায়ণগঞ্জের চাষাঢ়া শহীদ মিনারে এস সংক্ষিপ্ত অবস্থান কর্মসূচিতে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, ‘আপনারা দেখবেন ধর্ষণ হয়তো যে কেউ একজন করে। ছাত্রলীগ, যুবলীগের সদস্যদের অংশগ্রহণ বেশি দেখা যাচ্ছে এসমস্ত বর্বর কর্মকান্ডে। আর সরকার তাঁদেরকে রক্ষা করছে। কারণ এই সমস্ত গুন্ডাপান্ডারাই ২০১৪ সালে এবং ২০১৮ সালে আওয়ামী লীগকে ভোট কেটে ক্ষমতায় এনেছে। ফলে এই সকল ধর্ষক এবং মাস্তানের ঋণ শোধ করতে গিয়ে পুরো রাষ্ট্রযন্ত্রকে সরকার এমন ভাবে ব্যবহার করছে যেখানে মানুষ বিচার পায় না। প্রতিটি ডিপার্টমেন্টের গলা কেটে ফেলেছে। কোনো মাথা নাই। কোনো জায়গায় দাঁড়ানোর জায়গা নাই।’

তিনি আরো বলেন, ‘শুধু বিচারহীনতা এবং ধর্ষণ নয় বাংলাদেশের মূল সমস্যা হচ্ছে এই দেশে গণতন্ত্র নেই আইনের শ্বাসন নেই। মানুষের ভোটাধিকার নেই নিরাপত্তা নেই। এই সমস্ত কিছু বাস্তাবায়ন করার জন্য। আমরা একটি পয়েন্ট থেকে শুরু করেছি। এখানে নারী পুরুষ সহ সকল মানুষের যে নিরাপত্তার প্রশ্ন। সেটি থেকে আমরা শুরু করেছি। আজকে হয়তো আমরা ধর্ষণের বিচারের দাবি তুলেছি। আজকে আমরা স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর পদত্যাগের দাবিকে প্রধান করে দেখছি। সেদিন বেশি দুরে নয় যেদিন এই আওয়ামী সরকার পতনের দাবি এই শহীদ মিনার থেকে ঘোষিত হবে।’

ছাত্র ইউনিয়ন নারায়ণগঞ্জ জেলার সভাপতি শুভ বণিকের সভাপতিত্বে এসময় উপস্থিত ছিলেন ছাত্র ইউনিয়ন কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক অনিক রায়, সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্ট কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক নাসিরুদ্দিন প্রিন্স, যুব ইউনিয়ন কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক খান আসাদুজ্জামান মাসুম, উদীচি কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক জামসেদ আনোয়ার তপনসহ শতাধিক আন্দোলনকারী।

জানা যায়, লংমার্চটি শাহবাগ, গুলিস্তান হয়ে নারায়ণগঞ্জের চাষাঢ়ায় আসে। তারপর তারা সোনারগাঁও; সেখান থেকে কুমিল্লার পথে রওনা দেয়। কুমিল্লা শহরে সংক্ষিপ্ত সমাবেশ করার পর লংমার্চ যাবে ফেনীতে। শনিবার ফেনী শহরে সমাবেশ শেষে দাগনভুঞা, নোয়াখালীর চৌমুহনী হয়ে যাবে বেগমগঞ্জের একলাসপুর। শনিবার বিকালে সেখান থেকে মাইজদী কোর্ট এ। সেখানে সমাবেশের মধ্যে দিয়ে শেষ হবে লংমার্চ।


বিভাগ : রাজনীতি


নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আরো খবর
এই বিভাগের আরও