গুরুর সাথে শিষ্যের বেঈমানি

স্পেশাল করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ ১০:১০ পিএম, ১৭ অক্টোবর ২০২০ শনিবার

গুরুর সাথে শিষ্যের বেঈমানি

নারায়ণগঞ্জ আদালতপাড়া বিএনপির প্রভাবশালী আইনজীবী হচ্ছেন বিএনপির চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা অ্যাডভোকেট তৈমূর আলম খন্দকার। নারায়ণগঞ্জ আদালতপাড়ায় রয়েছে তার অনেক জুনিয়র। সেই সাথে রয়েছে অনেক শিষ্য। যে সকল আইনজীবীরা তার জুনিয়র কিংবা শিষ্য ছিলেন বর্তমানে তারাই নারায়ণগঞ্জ জেলা আইনজীবী সমিতির নেতৃত্ব দেয়া থেকে শুরু করে জেলা আইনজীবী ফোরামেরও নেতৃত্ব দিচ্ছেন।

কিন্তু বর্তমানে সে সকল শিষ্যরাই গুরুখ্যাত অ্যাডভোকেট তৈমূর আলম খন্দকারের সাথে বেঈমানি করে যাচ্ছেন। তারা অ্যাডভোকেট তৈমূর আলম খন্দকারের বাইরে গিয়ে নিজেদেরকে আলাদভাবে প্রতিষ্ঠিত করার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন। বিভিন্ন সভা সমাবেশে অ্যাডভোকেট তৈমূর আলম খন্দকারকে উদ্দেশ্য করে বিদ্রুপাত্বক বক্তব্য দিচ্ছেন। যদিও এরাই এক সময় অ্যাডভোকেট তৈমূর আলম খন্দকারের মাধ্যমে নিজেদেরকে বিএনপির রাজনীতিতে পরিচিত করেছিলেন।

সূত্র বলছে, অ্যাডভোকেট তৈমূর আলম খন্দকার দীর্ঘ সময়জুড়ে নারায়ণগঞ্জ আদালতপাড়ায় আইনজীবী হিসেবে কাজ করেছেন। এখনও তিনি নারায়ণগঞ্জে আইনজীবী হিসেবে কাজ করে থাকেন। তবে বর্তমানে তিনি ঢাকার সুপ্রিম কোর্টে সময় দেন এবং সেখানেও তিনি পরিচিতি লাভ করেছেন। ফলে তিনি ঢাকা ও নারায়ণগঞ্জ দুই জায়গায়ই সময় দেয়ার চেষ্টা করে থাকেন।

নারায়ণগঞ্জ আদালতপাড়া আইনজীবী হিসেবে অ্যাডভোকেট তৈমূর আলম খন্দকার দীর্ঘসময়জুড়ে কাজ করার ফলে তার একটি বলয় তৈরি হয়েছে। আর এই বলয়ের মাধ্যমে তার সমর্থন নিয়ে নারায়ণগঞ্জ আদালতপাড়ায় বর্তমানে অনেক আইনজীবীই নিজেকে নেতা হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করেছেন। কিন্তু বর্তমানে তারাই তৈমূর আলম খন্দকারের বলয়ের বাইরে গিয়ে আলাদা বলয় তৈরি করেছেন। সেই সাথে কোনো কোনো সময় তৈমূরের বিরোধীতাও করছেন।

জানা যায়, আইন পেশায় অ্যাডভোকেট তৈমূর আলম খন্দকারের জুনিয়র ছিলেন নারায়ণগঞ্জ জেলা আইনজীবী সমিতির সাবেক সভাপতি ও মহানগর বিএনপির সহ সভাপতি অ্যাডভোকেট সাখাওয়াত হোসেন খান। অ্যাডভোকেট তৈমূরের মাধ্যমেই অ্যাডভোকেট সাখাওয়াত হোসেন খান নিজেকে আইন পেশায় যুক্ত করেন। সেই সাথে নারায়ণগঞ্জ বিএনপিতেও নিজেকে প্রাথমিকভাবে পরিচিত করে তুলেন।

কিন্তু বর্তমানে সেই অ্যাডভোকেট সাখাওয়াত হোসেন খানই তৈমূর আলম খন্দকারের বাইরে গিয়ে আলাদাভাবে বলয় গড়েছেন। বিএনপিপন্থী আইনজীবীদেরকে দুই ভাগে বিভক্ত করে তার বলয়কে ভারী করার চেষ্টা চালিয়ে থাকেন। সেই সাথে সুযোগ পেলেই অ্যাডভোকেট তৈমূর আলম খন্দকারের বিরুদ্ধচারণ করে থাকেন। প্রায় সবসময়ই অ্যাডভোকেট তৈমূর আলম খন্দকারের সাথে তার পরোক্ষ বিরোধ লেগে থাকে। সহজে এক টেবিল কিংবা এক মঞ্চে বসতে চান না অ্যাডভোকেট সাখাওয়াত হোসেন খান।

এদিকে নারায়ণগঞ্জ আদালতপাড়া বিএনপিপন্থী আরেক আইনজীবী নেতা হলেন অ্যাডভোকেট সরকার হুমায়ুন কবির। তিনিও অ্যাডভোকেট তৈমূর আলম খন্দকারের মাধ্যমে নিজেকে নারায়ণগঞ্জ আদালতপাড়ায় প্রতিষ্ঠিত করেন। অ্যাডভোকেট তৈমূর আলম খন্দকারের সমর্থন নিয়ে জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি পদে নির্বাচন এবং জেলা আইনজীবী ফোরামের সভাপতিও হয়েছেন। কিন্তু বর্তমানে তিনি অ্যাডভোকেট তৈমূর আলম খন্দকারের বাইরে গিয়ে আলাদাভাবে পথ হাটছেন। বিভিন্ন সভা সমাবেশে তৈমূর আলম খন্দকারকে গালিও দিয়েছেন। অথচ সেই সরকার হুমায়ুন কবিরই কিনা একসময় অ্যাডভোকেট তৈমূর আলম খন্দকারের শিষ্য ছিলেন। নিজের লাভের আশায় সবসময় তৈমূরের সাথে থাকার চেষ্টা করতেন।


বিভাগ : রাজনীতি


নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আরো খবর
এই বিভাগের আরও