রনিতে ডুবছে ছাত্রদল

স্পেশাল করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ ১০:১৪ পিএম, ১২ জানুয়ারি ২০২১ মঙ্গলবার

রনিতে ডুবছে ছাত্রদল

নারায়ণগঞ্জ জেলা ছাত্রদলের সভাপতি মশিউর রহমান রনির বিরুদ্ধে ছাত্রদলের তৃণমূল পর্যায়ের নেতাকর্মীদের ক্ষোভ যেন থামছেই না। তারা কয়েকদিন পরপরই মশিউর রহমান রনির কুশপুত্তলিকা দাহ করা সহ নানা আন্দোলন কর্মসূচি চালিয়ে আসছেন। সেই সাথে মশিউর রহমান রনিও কয়েকদিন পরপর বিভিন্ন বিতর্কিত কর্মকান্ডের জন্ম দিয়ে আসছেন। আর এই এক রনির কারণেই যেন নারায়ণগঞ্জ জেলা ছাত্রদলের সকল অর্জন ডুবতে বসছে। অতীতে কোনো ছাত্রদল নেতার ক্ষেত্রে এমন বিতর্ক পরিলক্ষিত হয়নি। সকলেই বেশ আস্থা অর্জন ও সম্মানের সাথে কাজ করে গেছেন।

জানা যায়, গত ১ নভেম্বর নারায়ণগঞ্জ জেলা ছাত্রদলের ৮ ইউনিট কমিটি ঘোষণা করা হয়। এই ৮টি ইউনিট হলো- ফতুল্লা থানা, সরকারি মুড়াপাড়া কলেজ, সোনারগাঁ ডিগ্রি কলেজ, তারাব পৌরসভা, কাঞ্চন পৌরসভা, আড়াইহাজার পৌরসভা, গোপালদী পৌরসভা ও সরকারি সফর আলী ভূঁইয়া কলেজ।

কিন্তু এই ইউনিট কমিটি নিয়ে বিতর্কের জন্ম দেয় নারায়ণগঞ্জ জেলা ছাত্রদলের সভাপতি মশিউর রহমান রনি। এই কমিটির শীর্ষ পদে স্থান পায় নিয়মের বাইরে থাকা সদস্যরা। ফলে কমিটির পদ অনেক নেতাকে ইতোমধ্যে অব্যাহতি দিতে হয়েছে। সেই সাথে ছাত্রদলের এই আহ্বায়ক কমিটিকে প্রত্যাখ্যান করেছে তৃণমূল পর্যায়ের নেতাকর্মীরা। ওই কমিটি গঠনের পর থেকেই পদবঞ্চিত নেতাকর্মীরা জেলা ছাত্রদলের সভাপতি মশিউর রহমান রনির বিরুদ্ধে নানা কমসূচি চালিয়ে আসছেন।

সবশেষ গত ৯ জানুয়ারী জেলা ছাত্রদলের সভাপতি মশিউর রহমান রনির বিরুদ্ধে কমিটি গঠনে অনিয়মের অভিযোগ এনে বহিষ্কারের দাবীতে বিএনপির পুরানা পল্টন কেন্দ্রীয় অফিসের সামনে বিক্ষোভ করেছে নব গঠিত ফতুল্লা থানা ছাত্রদলের পদবঞ্চিতরা। তারা অর্থের বিনিময়ে পদ বিক্রি, বিবাহিত, আছাত্র ও নিজের আত্মীয়দের দিয়ে কমিটি গঠনের অভিযোগ করে আসছেন।

সেই সাথে তারা কেন্দ্রীয় নেতাদের অবিলম্বে ফতুল্লা থানা কমিটি ভেঙ্গে দিয়ে ত্যাগী ও পরিক্ষীত নেতা কর্মীদের নিয়ে কমিটি গঠনের উদ্যোগ নিতে আহবান জানায়। ওই মিছিল শেষে মশিউর রহমান রনির কুশপুত্তলিকা দাহ করা হয়।

এর আগে গত ৯ নভেম্বর বিক্ষুব্ধ ছাত্রদলের নেতা কর্মীরা জেলা ছাত্রদল সভাপতি মশিউর রহমান রনির বিরুদ্ধে কুশপুত্তলিকা দাহ সহ বিক্ষোভ মিছিল করেছিলেন। সেই সাথে তারা এর আগে ফতুল্লার দাপা ও কুতুবপুরে বিশ্বরোড এলাকায় বিক্ষোভ মিছিল সহ কুশপুত্তলিকা দাহ করেছিলেন।

১১ নভেম্বর নারায়ণগঞ্জ প্রেস ক্লাবের সামনে জেলা ছাত্রদলের সভাপতি মশিউর রহমান রনির বিরুদ্ধে বিক্ষোভ সমাবেশ করেছিল নেতাকর্মী। এ সময় বিক্ষুব্ধ নেতাকর্মীরা সংক্ষিপ্ত সমাবেশে রনির কুশপুত্তলিকা দাহ করেন। পরে পুলিশি বাধার মুখে কর্মসূচি শেষ করেন তারা।

আর এভাবে টানা কয়েকদিন ধরে নারায়ণগঞ্জের বিভিন্ন এলাকায় জেলা ছাত্রদলের সভাপতির সভাপতি মশিউর রহমান রনির বিরুদ্ধে বিক্ষোভ কর্মসূচি চলে। মাঝখানে কয়েক দিন থেমে গিয়ে আবারও ফের রনির বিরুদ্ধে ছাত্রদলের নেতাকর্মীরা বিক্ষোভ শুরু করেছেন। নারায়ণগঞ্জের বিভিন্ন জায়গায় রনির বিরুদ্ধে বিক্ষোভ সহ কুশপুত্তলিকা দাহ করা হচ্ছে।

দলীয় সূত্র বলছে, ২০১৮ সালের ৫ জুন ছাত্রদলের কেন্দ্রীয় কমিটির ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মামুনুর রশিদ মামুন ও সাধারণ সম্পাদক আকরাম উল হাসান মিন্টু নারায়ণগঞ্জ জেলা ও মহানগর ছাত্রদলের আংশিক কমিটির অনুমোদন দিয়েছিলেন। এতে নারায়ণগঞ্জ জেলা ছাত্রদলের সভাপতি করা হয় মশিউর রহমান রনিকে ও সাধারণ সম্পাদক করা হয় খাইরুল ইসলাম সজীবকে।

সাংগঠনিক সম্পাদক করা হয় সোহেল মিয়াকে। কমিটিতে সিনিয়র সহ সভাপতি মোহাম্মদ উল্লাহ, সহ সভাপতি আরিফুর রহমান মানিক, ৭জন যুগ্ম সম্পাদক হলেন ইসমাইল মামুন, মেহেদী হাসান, মঈনুল ইসলাম রবিন, নাজমুল হাসান বাবু, মশিউর রহমান শান্ত, রাকিব হাসান রাজ, রফিকুল ইসলাম রফি।

আর এই কমিটি ঘোষণার পর নারায়ণগঞ্জ জেলা ছাত্রদলের এই কমিটি দলীয় কোন আন্দোলন সংগ্রামে এখন পর্যন্ত জোড়ালো কোনো ভূমিকা রাখতে পারেনি। তাদের দলীয় বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া কারাগারে অসুস্থ অবস্থায় দিন যাপন করতে পারলেও তারা বরাবরের মতোই ব্যর্থতার পরিচয় দিয়ে আসছেন। সেই সাথে কমিটি গঠনের দিক দিয়েও জেলা ছাত্রদলের পিছিয়ে রয়েছেন।

নারায়ণগঞ্জ জেলা ছাত্রদলের কমিটি গঠনের পর প্রায় আড়াই বছর পেরিয়ে গেলেও এখন পর্যন্ত সেই আংশিক কমিটিতেই আটকে রয়েছে। মাঝে মধ্যে কমিটি গঠন নিয়ে আলাপ আলোচনা চললেও শেষ পর্যন্ত তারা আর সামনে আগাতে পারছে না। মাসের পর মাস বছরের পর বছর ধরে আংশিক কমিটিতেই থেকে যাচ্ছে জেলা ছাত্রদল। এবার তাদের অধীনে থাকা বিভিন্ন ইউনিট কমিটি গঠন করতে গিয়েও বিতর্কের জন্ম দিয়ে যাচ্ছেন জেলা ছাত্রদলের সভাপতি মশিউর রহমান রনি।

জেলা ছাত্রদলের সভাপতি মশিউর রহমান রনির আগে বিভিন্নজন দায়িত্ব পালন করলেও কেউ এরকম বিতর্কের জন্ম দেননি। সকলেই নেতাকর্মীদের আস্থা অর্জন ও সম্মানের সাথে দায়িত্ব পালন করে গেলেও মশিউর রহমান রনি তাদের ধারে কাছেই পোঁছাতে পারছেন না। এর আগের দায়িত্বরত নেতারা আন্দোলন সংগ্রামেও রাজপথ সক্রিয় ভূমিকা রাখালেও মশিউর রহমান রনির রাজপথে দেখাই মিলে না। কেন্দ্রীয় নেতাদের নজরে আসার জন্য নারায়ণগঞ্জের চেয়ে বেশি ঢাকাকেই গুরুত্ব দিয়ে থাকেন। নারায়ণগঞ্জের কোনো কর্মসূচিতে তার দেখা না মিললেও ঢাকার কর্মসূচিতে ঠিকই তার দেখা মিলে। এভাবে যেন এক রনিতেই নারায়ণগঞ্জ জেলা সকল বিসর্জন দিতে বসছে।


বিভাগ : রাজনীতি


নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আরো খবর
এই বিভাগের আরও