ডাবল রেললাইন হলে শহর শতগুণ অকেজো হবে : শামীম ওসমান

স্টাফ করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ ১০:৩৬ পিএম, ১৬ ফেব্রুয়ারি ২০২১ মঙ্গলবার

ডাবল রেললাইন হলে শহর শতগুণ অকেজো হবে : শামীম ওসমান

‘চেষ্টা করছিলাম নারায়ণগঞ্জে সবাইকে এ সাথে নিয়ে কাজ করতে। কিন্তু কিছু কিছু মানুষ আছে যারা এক সাথে কাজ করতে চাননা। আমরা নারায়ণগঞ্জে ডবল রেল লাইন নিয়ে আসছি। এ রেল লাইন যদি নারায়ণগঞ্জ শহরের মধ্যে ঢুকে, তাহলে এ শহর এখন যা অকেজো আছে তার চেয়ে ১০০গুন বেশি অকেজো হয়ে যাবে।’

নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলা পরিষদে বঙ্গবন্ধুর ম্যুরাল ও ‘হৃদয়ে বঙ্গবন্ধু’ নামে বঙ্গবন্ধু কর্নার উদ্বোধনকালে সাংসদ শামীম ওসমান এ কথা বলেন।

১৬ ফেব্রুয়ারী মঙ্গলবার দুপুরে সদর উপজেলা পরিষদে বঙ্গবন্ধুর ম্যুরাল ও ‘হৃদয়ে বঙ্গবন্ধু’ সহ সিনিয়র সিটিজেন কর্নার ও কনফারেন্স রুম, ফতুল্লা ইউনিয়ন পরিষদের জন্য ভ্রাম্যমান লাইব্রেরী, কুতুবপুর ইউনিয়নের জন্য গর্ভবতী মহিলাদের জন্য ‘মায়ের ডাক’ ভ্যান উদ্বোধন করেন তিনি।

শামীম ওসমান বলেন, ‘বার বার আহ্বান জানাচ্ছি, আসেন বসেন এক সাথে। রেল মন্ত্রীকে বলেছি এ প্রকল্প চাষাঢ়া পর্যন্ত রাখলেই ভালো হয়। এখন দেখা গেল আমি প্রস্তাব দিলে এখন আমাদের মধ্য থেকেই একজন কেউ গিয়ে বন্দরের মানুষকে বলবে, শামীম ওসমান রেল লাইন চাষাঢ়ায় নিয়া গেছে। আপনাদের এখন চাষাঢ়ায় গিয়ে ট্রেনে চড়তে হবে। যারা এ সমস্ত নোংরা রাজনীতি করে, এপাড় ওপাড় রাজনীতি করে, তারা এ ধরনের ঘটনা ঘটাবে। আপনারা এখন সকলকে জিজ্ঞেস করতে পারেন যে কোনটা করলে ভালো হয়। কারণ একবার যদি হয়ে যায়, তখন এ শহরে চলাচল করা কঠিন হয়ে যাবে।’

তিনি আরও বলেন, ‘চাষাঢ়া থেকে দুই নাম্বার পর্যন্ত যে রেল লাইন গিয়েছে সেখানে রেল কর্তৃপক্ষের প্রচুর সম্পত্তি আছে। সেখানে রেলওয়ে হাসপাতাল, কলেজ, মার্কেট বা যা খুশি করেন আপনাদের নিজেদের সম্পত্তিতে। নারায়ণগঞ্জে ঢোকার রাস্তা এবং বের হওয়ার রাস্তা যদি আলাদা হয় এবং লিংক রোড সংযোগকারী ও ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ সড়ক সংযোগকারী আলাদা দুটো ছোট ফ্লাইওভার করে দেয়া হয়, তবে নারায়ণগঞ্জ একটি সুন্দর শহর হবে।’

শামীম ওসমান আরও বলেন, ‘ওই হকারদের রাস্তার মেরে মেরে লাভ নাই। এরা কিছু করে ভাত খাচ্ছে। ওকে মেরে লাভ নেই। ওই করে যানজট ছোটানো যাবে না। যানজট ছোটাতে হলে আপনাদের পরিকল্পনা অনুযায়ী কাজ করতে হবে। আমি এই প্রস্তাব দিলাম অন্য সকলের সাথে আপনারা এ বিষয়ে আলোচনা করবেন। বিশেষ করে সিটি করপোরেশনের সাথে আলোচনা আপনার করবেন। এবং একটা মতামত নিবেন। কারণ এই শহরে আমি কালকে থাকতে নাও পারি। আগামী ২৮ তারিখে আমি ৬০ এ পা দিবো। চলে যাওয়ার সময় হয়েছে। পরবর্তী প্রজন্মের জন্য এই শহরে আরও সুন্দর করা যায় চাইলে।’

‘এই লিংক রোড যখন হবে, ডিএনডি প্রকল্প হবে, তখন যদি আমরা সমন্বয় করে নিতে পারি, তবে নারায়ণগঞ্জ আবার নিজের জায়গায় ফিরে আসবে।’ বলেন এবং এ বিষয়ে সকলের কাছে সাহায্য চান তিনি।

সদর উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা নাহিদা বারিক, চেয়ারম্যান আবুল কালাম আজাদ বিশ্বাস, ভাইস চেয়ারম্যান নাজিমুদ্দিন আহমেদ, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান ফাতেমা মনিরসহ উপজেলা পরিষদের কর্মকর্তা ও কর্মচারিরা উপস্থিত ছিলেন।


বিভাগ : রাজনীতি


নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আরো খবর
এই বিভাগের আরও