ভয় পাবেন না আমাকে ব্যবহার করুন : শামীম ওসমান

স্পেশাল করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ ১০:২১ পিএম, ২২ ফেব্রুয়ারি ২০২১ সোমবার

ভয় পাবেন না আমাকে ব্যবহার করুন : শামীম ওসমান

নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সংসদ সদস্য শামীম ওসমান বলেছেন, আমাকে ব্যবহার করেন। শামীম ওসমানকে কাজে লাগান। ব্যবহার করলে আপনারও লাভ হবে। আপনারা সবাই কাজ করতেছেন। কে কোন মতাদর্শের আওয়ামী লীগ ছাত্রলীগ করতাম এগুলো বলবেন না। আমাদের ব্যবহার করে আপনার দায়িত্ব পালন করেন। বুদ্ধিটা দিয়ে দেন। যে কাজটা হয়ে থাকে সেই ফাইলটা আমাকে দিবেন। আমরাই ভাই বোন হিসেবে একসাথে কাজ করবো। কখনও চিন্তা করবেন না এটা আপনার সিটি না। যতক্ষণ কাজ করতেছেন ততক্ষণ দিস ইজ ইউর সিটি।

নারায়ণগঞ্জ জেলা উন্নয়ন সমন্বয়ন কমিটির সভায় অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে জেলা প্রশাসনের বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তাদের উদ্দেশ্য তিনি এসব কথা বলেন।

২২ ফেব্রুয়ারী সোমবার সকালে নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে এই সভার আয়োজন করা হয়।

শামীম ওসমান বলেন, কাউকে ভয় করবেন না কাউকে কেয়ার করবেন না। আপনি যদি আপনার কাছে সঠিক থাকেন তাহলে কেউ কিছু করতে পারবে না। যদি কোনো প্রতিবন্ধকতা আসে আমি শামীম আপনাকে কথা দিচ্ছি আপনার সামনে কেউ দাঁড়াবে না। আর আমি দাঁড়াই তাহলে হিমালয় পর্বতও আপনাকে বাধা দিতে পারবে না। কারণ আমি একজনের কথাই শুনি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা অন্য কারও কথা শুনি না। আমার জানামতে কোনো দুর্নীতি কোনো খারাপ কাজ করি না। আমি আল্লাহ ছাড়া কাউকে ভয় পাই না। আপনার যদি ব্যক্তিগত সমস্যাও থাকে আপনি যতক্ষণ পর্যন্ত আছেন তাহলেও বলবেন। আমরা চেষ্টা করবো আপনার পাশে থাকার জন্য। যতদিন আছেন সম্মানের থাকবেন যাতে করে এখান থেকে যাওয়ার পর আমাদের কথা মনে পড়ে। অনেক প্রতিবন্ধকতা অনেক লাশের উপর দিয়ে এই পর্যন্ত আসতে হয়েছে। আমরা কোনো প্রতিশোধ নেই না। জনগণ আমাদের জবাবদিহী চায় আমাদের কাজগুলো করতে হবে। তাই আপনাদের কাছে অনুরোধ করবো কোন কোন ডিপার্টমেন্টে কি কি কাজ হয়েছে জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে ইউএনও অফিসে দিবেন। আমি এটা প্রচার করতে চাই। আর যেটা করতে পারি নাই কিংবা আপনার কি অফার আছে কোনো ফরমালিটি না আমরা একটি দল এই দেশটা আমাদের আমার আপনার বাঁচার সুন্দর দেশ গড়ে তুলতে চাই।

তিনি বলেন, পাগলায় বুড়িগঙ্গা নদীর তীরে বিআইডব্লিউটিএ যে ওয়াকওয়ে তৈরি করেছে, তা দখল করে মালপত্র লোড আনলোডের সময় চাঁদাবাজি হয়। এখান থেকে মাসে পাঁচ লাখ টাকা চাঁদা আদায় করা হয়। এ চাঁদাবাজি কারা করে? কারা নদী দখল করে?’

নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রশাসক মোস্তাইন বিল্লাহ, স্থানীয় সরকারের উপপরিচালক মোহাম্মদ মনিরুজ্জামান বকাউল, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মোহাম্মদ শামীম বেপারী, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মোস্তাফিজুর রহমান, বন্দর উপজেলা চেয়ারম্যান আব্দুর রশিদ ও আড়াইহাজার উপজেলা পরিষদের মুজাহিদুর রহমান হেলো সরকার সহ জেলা প্রশাসনের বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তারা।


বিভাগ : রাজনীতি


নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আরো খবর
এই বিভাগের আরও