হিন্দু মুসলিম কারো সম্পত্তি তিনি ছাড় দিচ্ছেন না

স্টাফ করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ ১০:৫৩ পিএম, ৫ মার্চ ২০২১ শুক্রবার

হিন্দু মুসলিম কারো সম্পত্তি তিনি ছাড় দিচ্ছেন না

নারায়ণগঞ্জ-৫ আসনের সংসদ সদস্য সেলিম ওসমান বলেছেন, উত্তেজনা না। প্রস্তুতি নেন। জনগনের সাথে মিশেন। জনগনের ভালবাসা নেওয়ার চেষ্টা করেন। জনগনের ভোটে নির্বাচিত হবেন।

শুক্রবার ৫ মার্চ বিকেল সাড়ে ৪টায় নবীগঞ্জের টি-হোসেন গার্ডেনে বন্দর ইউনিয়নবাসীর সাথে উন্নয়ন নিয়ে মত বিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

সেলিম ওসমান বলেন, খোকন সাহা অনেক রাগান্বিত হয়ে অনেক কথা বলেছেন। ভাল মন্দ থাকবেই। ভাল জায়গায় মন্দ বিষয় নিয়ে আলোচনা করা হয়। তাহলে যাকে মন্দ বলা হলো তার জন্যই সময়টা দেওয়া হলো। আমি অনুরোধ রাখবো আমার পরবর্তী যারা নেতৃত্ব নিয়ে আসবেন, ভিপি বাদল, চন্দন শীল, খোকন সাহা আপনারা দেখবেন তাদের মধ্যেই কেউ একদিন মেয়র হবেন, এদের থেকেই এমপি হবেন, এদের কেউ ই জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান হবে। এটা আমি আশা করি। ইচ্ছাটাই মানুষের বড় কিছু। রাগ নয়।

তিনি আরো বলেন, বাপ দাদারা বলতো রেগে গেছো তো হেরে গেছো। সুতরাং রেগে যেও না। আমি সকলেই দেখতে পাচ্ছি। হিন্দু মুসলিম কারো সম্পত্তিই তিনি ছাড় দিচ্ছেন না। তার জবাব তো উপরে গেলে দিতেই হবে। যদি জমি নিয়ে কেউ কোন রকমের কোন্দল করে সে যত বড়ই হোক না কেন। মৃত্যুর পর আল্লাহ জমির যে ওজনটা সেটা তাবিজ বানিয়ে তার গলায় ঝুলিয়ে দেন। লোভ করতে গেলে সে যত বড়ই নেতা হোকনা কেন সে টিকে থাকবে না। আমার ইমান যদি ঠিক থাকে তাহলে কোন ইবলিশ শয়তানই শয়তানী করতে পারবে না।

নবীগঞ্জে কদম রসুল সেতুর প্রসঙ্গে তিনি বলেন, বন্দরে আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদককে নিয়ে এসে আপনাদের দাবীর প্রেক্ষিতে এখানে ফেরীটা চালু হয়েছে। কে কি বললো সেটা বড় কথা নয়। আমি আর রশিদ ভাই আগেই বলেছি যতক্ষন না প্রধানমন্ত্রী বলবেন ততক্ষন পর্যন্ত হবেনা। নদীর এপাড়-ওপাড় যদি সিটি কর্পোরেশনের হয় তাহলে সিটি কর্পোরেশনের উপর দায়িত্ব পড়বে। আর যদি ইউনিয়ন পরিষদের উপর তাহলে আমার উপর দায়িত্ব পড়বে। যেটা নাসিম ওসমান সেতু বলে অনেকে মনে করেন। প্রধানমন্ত্রী শান্তিরচরের অনুমোদন দিয়েছেন। কিন্তু করোনা ভাইরাসের কারনে আমাদের নাসিম ওসমান সেতুর কাজ বিলম্বিত করে দিয়েছে। আমাদের নবীগঞ্জ বীজ্রের কাজ উদ্বোধন করতে পারছিনা।

বন্দর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান এহসান উদ্দিন এর সভাপতিত্বে মত বিনিময় সভায় আরো উপস্থিত ছিলেন মহানগর আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট খোকন সাহা, সিনিয়র সহ সভাপতি চন্দন শীল, বন্দর থানা আওয়ামীলীগের সভাপতি এম.এ রশিদ, সাধারণ সম্পাদক কাজিম উদ্দিন, জেলা জাতীয় পার্টিও আহবায়ক সানা উল্লাহ সানু, মহানগর জাতীয় পার্টির আহবায়ক আকরাম আলী শাহীন, সদস্য সচিব আফজাল হোসেন, মহানগর সেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক সাইফুদ্দিন আহম্মেদ দুলাল প্রধান, বন্দর উপজেলার নারী ভাইস চেয়ারম্যান ছালিমা ইসলাম শান্তা, কলাগাছিয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান দেলোয়ার হোসেন প্রধান, মুছাপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মাকসুদ হোসেন, মদনপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান এম.এ সালাম, ধামগড় ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মাসুম আহম্মেদ, আলীরটেক ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মতিউর রহমান মতি, গোগনগর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান প্রার্থী জসিম উদ্দিন সহ অন্যান্যরা।


বিভাগ : রাজনীতি


নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আরো খবর
এই বিভাগের আরও