হেফাজত আমীর সহ গ্রেপ্তার ৪

স্টাফ করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ ০৩:৪৮ পিএম, ১২ এপ্রিল ২০২১ সোমবার

হেফাজত আমীর সহ গ্রেপ্তার ৪

নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁও উপজেলায় রয়েল রিসোর্টে হেফাজত নেতা মামুনুলক হককে অবরুদ্ধের ঘটনার জের ধরে ব্যাপক সহিংসতা, হামলা ও ভাংচুর মামলার প্রধান আসামী হেফাজত ও খেলাফত মজলিশের সভাপতি সহ চারজনকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব-১১।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলো খেলাফত মজলিশ সোনারগাঁ উপজেলার শাখার সভাপতি ইকবাল হোসেন (৫২), হেফাজত ইসলাম সোনারগাঁও উপজেলা শাখার আমির হাফেজ মাওলানা মহিউদ্দিন খাঁন (৫৩), সেক্রেটারি মাওলানা মো. শাহজাহান খাঁন শিবলী (৪৩) ও সহ সভাপতি হাফেজ মোয়াজ্জেম হোসেন (৫২)।

১১ এপ্রিল বিকেলে ঢাকার শ্যামপুর থানাধীন জুরাইন রেলগেইট বাজার মসজিদের সামনে ঢাকা-মাওয়া হাইওয়ে হতে ওই চারজনকে গ্রেপ্তার করা হয়।

র‌্যাব-১১ এর অধিনায়ক লে. কর্ণেল খন্দকার সাইফুল আলম জানান, ৩ এপ্রিল হেফাজত ইসলামের কেন্দ্রীয় যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা মামুনুল হক একজন নারীসহ সোনারগাঁয়ের ‘রয়েল রিসোর্টে’ সন্দেহজনকভাবে স্থানীয় জনতা কর্তৃক অবরুদ্ধ হওয়ার পর বিক্ষুব্ধ হেফাজতকর্মীরা রয়েল রিসোর্ট ভাঙচুরসহ এলাকায় তান্ডব সৃষ্টি করে। রয়েল রিসোর্ট ছাড়াও হেফাজতকর্মীরা ঘটনার দিনে সোনারগাঁও এলাকার একাধিক ব্যবসা প্রতিষ্ঠানসহ ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে ব্যাপক সহিংসতা, গাড়ি ভাংচুর, নাশকতা সৃষ্টি ও অগ্নি সংযোগ করে যান চলাচলে ব্যাঘাত ঘটায়, জনমনে ভয়ভীতি সঞ্চার এবং সরকারী কাজে বাধা সৃষ্টি করে। ওই সময় সোনারগাঁও উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স মসজিদের ইমাম ও খেলাফতে মজলিশ সোনারগাঁ উপজেলা শাখার সভাপতি মাওলানা মোঃ ইকবাল হোসেন মাগরিবের নামাযের পর মসজিদের মাইকে উস্কানীমূলক বক্তব্য প্রচার করে লোক জমায়েত করে এবং উক্ত হামলার নেতৃত্ব দেয়। উক্ত ঘটনায় সোনারগাঁ থানায় ক্ষতিগ্রস্থ ব্যক্তিগণ ও পুলিশ কর্তৃক বাদী হয়ে সন্ত্রাস বিরোধী আইনে পৃথক ৬টি মামলা দায়ের করা হয়। গ্রেফতারকৃত আসামীরা উক্ত মামলাগুলোর অন্যতম এজাহারনামীয় আসামী।


বিভাগ : রাজনীতি


নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আরো খবর
এই বিভাগের আরও