মামুন মাহমুদকে শোকজ

স্পেশাল করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ ১১:১৫ পিএম, ১২ সেপ্টেম্বর ২০২১ রবিবার

মামুন মাহমুদকে শোকজ

নারায়ণগঞ্জ জেলা বিএনপির অধীনে থাকা সিদ্ধিরগঞ্জের ১ থেকে ১০ নং ওয়ার্ডের কমিটি গঠন নিয়ে জেলা বিএনপির সদস্য সচিব অধ্যাপক মামুন মাহমুদকে শোকজ করেছেন আদালত।

রোববার (১২ সেপ্টেম্বর) দুপুরে মহানগর কৃষকদলের সদস্য সচিব গুলজার হোসেন খান অধ্যাপক মামুন মাহমুদের বিরুদ্ধে অস্থায়ী অন্তবর্তীকালিন নিষেধাজ্ঞা চেয়ে আবেদন করলে নারায়ণগঞ্জ সিনিয়র সহকারী জজ ২য় আদালতের বিচারক তাসলিমা খান শোকজের এই আদেশ দেন। মামুন মাহমুদকে পরবর্তী ১৫ কার্যদিবসের মধ্যে আদালতে উপস্থিত হয়ে জওয়াব দেয়ার জন্য বলা হয়েছে।

মামলার আবেদনে বলা হয়, গত ১০ আগস্ট অধ্যাপক মামুন মাহমুদকে আহবায়ক করে অবৈধভাবে একটি সার্চ কমিটি গঠন করা হয়েছে। মামুন মাহমুদ মহানগরের সিদ্ধিরগঞ্জ থানার ১০ টি ওয়ার্ড কর্তন করে বেআইননিভাবে জেলায় অন্তর্ভুক্ত করার ঘোষণায় অপচেষ্টা লিপ্ত রয়েছে। নারায়ণগঞ্জ মহানগর কমিটি গঠন না হওয়া পর্যন্ত মামুন মাহমুদ কোনো কমিটি গঠন করতে না পেরে বা কোনো সংগঠনের কর্মসূচি পালন করতে না পেরে বা সংশ্লিষ্ট ১ থেকে ১০ টি ওয়ার্ডকে জেলার কমিটিতে নিতে না পেরে তার বিরুদ্ধে অস্থায়ী নিষেধাজ্ঞা আবশ্যক।

এর আগে ২০১৯ সালের ১২ নভেম্বর মঙ্গলবার নারায়ণগঞ্জ মহানগরীর ১০নং ওয়ার্ড বিএনপির সাবেক সভাপতি গোলজার খান ও একই ওয়ার্ডের সাবেক যুগ্ম সম্পাদক (সাবেক পৌর এলাকা) বিএনপি নেতা নূরে আলম শিকদার বাদী হয়ে একই আদালতে মামলা দায়ের করেছিলেন।

আদালতে মামলার বাদী গোলজার হোসেন শুধুমাত্র নারায়ণগঞ্জ-৫ আসন এলাকা নিয়ে নারায়ণগঞ্জ মহানগর বিএনপির কমিটি গঠন করায় কমিটির সকল কার্যক্রম স্থগিতের আবেদন করেন। আবেদনের প্রেক্ষিতে বাদী ও বিবাদী পক্ষের শুনানি শেষে আদালত বিরোধীয় কমিটির সকল কার্যক্রম স্থগিত করেন।

মামলা সূত্রে জানা গেছে, দলের গঠনতন্ত্র বহির্ভূত নারায়ণগঞ্জ জেলা ও মহানগর বিএনপির কমিটি গঠন করায় মামলায় দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, নারায়ণগঞ্জ জেলা বিএনপির তৎকালিন সভাপতি কাজী মনিরুজ্জামান মনির, সেক্রেটারি অধ্যাপক মামুন মাহামুদকে মোকাবেলা বিবাদী এবং মহানগর বিএনপির সভাপতি অ্যাডভোকেট আবুল কালাম ও সেক্রেটারি এটিএম কামালকে মূল বিবাদী করা হয়। নারায়ণগঞ্জ মহানগর বিএনপির কমিটি গঠনের ক্ষেত্রে সীমানা ও গঠনতন্ত্র মানা হয়নি বলেও অভিযোগ করে ওই মামলা করা হয়।

বাদী গোলজার হোসেন খান জানিয়েছিলেন, নারায়ণগঞ্জ জেলা কমিটিতে অল্প ক’জন নেতা স্থান পেলেও মহানগরের কমিটিতে নারায়ণগঞ্জ সিটি কপোর্রেশনের ১নং থেকে ১০নং ওয়ার্ড পর্যন্ত ১০টি ওয়ার্ডের কোনো নেতাই পদ পদবি পাননি। এই ১০টি ওয়ার্ডের মূল দলের নেতাকর্মীরা দলীয় পদ পদবির ক্ষেত্রে অবহেলার শিকার হচ্ছেন। দলের জন্য প্রাণপন কাজ করলেও দলের নেতারা তাদের কোনো পরিচয় দিচ্ছেন না। আমাদেরকে পদ পদবি যেন দেওয়া হয় সেজন্যই এ মামলা। আমরা তো জাগোদল থেকেই যুক্ত বিএনপির সঙ্গে।


বিভাগ : রাজনীতি


নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আরো খবর
এই বিভাগের আরও