তাহাজ্জুদ পড়েন বললেও বাঁচতে পারবেন না : হেফাজত আমীর

স্টাফ করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ ১০:৩৩ পিএম, ২ জানুয়ারি ২০২১ শনিবার

তাহাজ্জুদ পড়েন বললেও বাঁচতে পারবেন না : হেফাজত আমীর

বাংলাদেশ হেফাজতে ইসলামের নায়েবে আমির ও নারায়ণগঞ্জ জেলা কমিটির আমির মাওলানা আব্দুল আউয়াল বলেছেন, ভারতের একটি সিনেমা ‘কমান্ডো’ নাকি বাংলাদেশেও মুক্তি দেওয়া হবে। এ সিনেমায় মুসলমানদের ঘায়েল করতে জঙ্গী শব্দ ব্যবহার করা হচ্ছে। মুসলিম সম্প্রদায়কে সিনেমার মাধ্যমে জঙ্গী সন্ত্রাসী বানানো হচ্ছে। আর সকলের কাছে আমাদের অবমাননা করা হবে। সরকারের যদি সুন্দর মাথা থাকে তাহলে এ সিনেমাকে দেশে চলতে দিবে না। আমাদের জোর দাবী এ সিনেমা বাংলাদেশে চলতে দেওয়া যাবে না। যদি কোন কুচক্রি মহলের কথায় অনুমোদন দেয় তাহলে আরেকটি আগুন জলবে। কঠোর জিহাদ হবে। জিহাদ কাকে বলে দেখিয়ে দেওয়া হবে।

তিনি বলেন, বাংলাদেশের উপর একটি ভূত সওয়ার হতে যাচ্ছে। দেশের যুব সমাজকে ইসলাম বিচ্ছিন্ন করতে কু ধারণা দেওয়ার পায়তারা করা হচ্ছে। ইসলাম থেকে মানুষকে ভিন্ন দিকে নিতে ‘কমান্ডো’ নামের একটি সিনেমা বাংলাদেশে আনা হচ্ছে। এ ছবিতে দেখা গেছে পেছনে ‘লা ইলাহা কলেমা’ লেখা তরবারীর মধ্যে। এ সিনেমায় দেখানো হচ্ছে কলেমাপন্থী যারা সন্ত্রাসী, জঙ্গী ও সমাজে বিশৃঙ্খলাকারী।

তিনি বলেন, বিভিন্ন ভিডিওতে দেখি যে আমাদের অনেকেই ২২ বছর ধরে তাহাজ্জুদ পড়ে। এতো যদি জীবনের চরিত্র হয় সুন্দর, তাহাজ্জুদওয়ালা তাহলে তাহাজ্জুদওয়ালা চরিত্র নিজেকে মুসলিম ভাবে। যিনি উপরের র‌্যাংকে চলে গেছেন আমলের দিক থেকে এ সমস্ত মানুষগুলাকেও হিট করা হচ্ছে যে আপনিও জঙ্গি। এই সিনেমা কমান্ডোর মধ্যে দেখানো হচ্ছে যে এরাও তো জঙ্গি যেহেতু আপনি কলেমা ধারণ করতেছেন। আপনি মুসলিম দাবী করেন, তাহাজ্জুদ পড়েন দাবী করেন। তাহলে বুঝা যাচ্ছে এই সিনেমার মধ্যে তৈরি করে দিচ্ছে এই সম্প্রদায়টা এই কলেমা ওয়ালা সম্প্রদায়টা জঙ্গি। তাহলে বাঁচবেন কোথায় কই যাবেন। তাহাজ্জুদ পড়েন এই কথা বললে বাঁচতে পারবেন না। ওই মুভি (সিনেমা) আপনাকেও কারাঢিংয়ের মধ্যে ঢুকায় দিছে।

তিনি বলেন, আজ থেকে কয়েক বছর আগে নারায়ণগঞ্জের ডিসি কে যেনো ছিল তার সঙ্গে বসে কথা বলছিলাম। তো কথা বলতে বলতে তিনি বললো, হুজুর কি বলবো আমার ছোট ভাই তার ছেলেকে নিয়ে ফার্মগেটের এ দিক দিয়ে যাচ্ছিল। তখন নেটের মধ্যে জঙ্গীবাদের ধরণ দেয়া হয়েছে তাদের মাথায় পাগড়ি থাকে দাঁড়ি থাকে গাট্টি থাকে। এভাবে তাদেরকে দেখাইয়া চিহ্নিত করা হয়েছে। তো আমার ছোট ভাই তার ছেলেকে নিয়ে ফার্মগেট দিয়ে হেঁটে যাচ্ছে তখন দূর থেকে তাবলিগের লোকজন যাচ্ছে। ‘সেসময় ছেলেটি হাউকাউ করে তার বাবাকে জড়িয়ে ধরে বলে বাবা জঙ্গি আসছে জঙ্গি আসছে। তখন বাবা বলে, না না এরা তো ভাল মানুষ। সেসময় ছেলেটি বলে, এই যে নেটের মধ্যে দেখাইছে।’ ডিসি সাহেব আমাকে এ কথা বলেছে যে আমরা কোথায় যাব।

১ জানুয়ারী শুক্রবার ডিআইটি মসজিদের জুম্মার নামাজের খুতবার বয়ানে তিনি এ কথা বলেন।


বিভাগ : ধর্ম


নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আরো খবর
এই বিভাগের আরও