মঞ্চ প্রস্তুত বসবে মা দুর্গার প্রতিমা

স্টাফ করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ ১১:৫৬ এএম, ৭ অক্টোবর ২০২১ বৃহস্পতিবার

মঞ্চ প্রস্তুত বসবে মা দুর্গার প্রতিমা

নারায়ণগঞ্জের পূজা মন্ডপগুলোতে চলছে শেষ মুহূর্তের প্রস্তুতি। এইবারের পূজায় মন্ডপ আয়োজকদের লক্ষ্য স্বাস্থ্যবিধি মেনে পূজা আয়োজন করা। এ জন্য ভক্ত, দর্শনার্থীদের স্বাস্থ্যবিধি মানার আহবান জানিয়েছেন পূজা কমিটির লোকেরা। পূজা হবে স্বাস্থ্য সুরক্ষা মেনে।

বুধবার (৬ অক্টোবর) শহরের তিনটি পূজা মন্ডপে ঘুরে দেখা যায়, এখনো মন্ডপের সাজসজ্জা ও আলোকসজ্জার কাজ চলছে। মন্ডপগুলো হলো ডালপট্টি নতুন সার্বজনীন দূর্গা পূজা কমিটির মন্ডপ, প্রজন্ম প্রত্যাশা দূর্গা পূজা কমিটি, শ্রী শ্রী বলদেব জিউর আখরা ও শিব মন্দির। মন্ডপগুলোয় আয়োজন করা হচ্ছে হ্যান্ড সেনিটাইজার, স্প্রে, মাস্ক ব্যাবহার নিশ্চিত করন, সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখাসহ সরকারি সকল নির্দেশনার।

দুয়েকদিনের মধ্যেই মন্ডপে মন্ডপে প্রতিমা তোলা শুরু হবে। আগের বছরের ধারাবাহিকতায় এবারও দর্শনার্থীদের স্বাস্থ্যবিধি মেনে মন্ডপে প্রবেশের আহবান জানিয়েছেন কমিটির লোকজন।

শ্রী শ্রী বলদেব জিউর আখরা ও শিব মন্দিরে সরেজমিনে দেখা যায়, জিউর আখরা ও প্রজন্ম প্রত্যাশার মন্ডপের সাজসজ্জার কাজ করছে শিল্পীরা। এরই মধ্যে জিউর আখড়ার আগের বছরের প্রতিমা বিসর্জন দেয়া হয়ে গেছে। বর্তমানে মন্ডপ গোছানো ও আলোকসজ্জার কাজ চলছে। এ মন্দিরে খোলামেলা যায়গা থাকায় অন্যান্য মন্ডপের প্রতিমা তৈরি ও সাজসজ্জার প্রস্তুতি এই মন্ডপে হয় বলে জানায় কর্তৃপক্ষ।

সভাপতি জয় কে রায় চৌধুরী বলেন, আমাদের মন্দিরে সারাবছর প্রতিমা থাকে। প্রত্যেক বছর নতুন প্রতিমা স্থাপনের আগেই গত বছরের প্রতিমা বিসর্জন দেয়া হয়। আমাদের মন্দিরে পূজার সব কয়টা দিনই প্রসাদের ব্যবস্থা থাকে। বিশেষ আয়োজন হিসেবে মন্দিরের বাইরে আমরা একটি সেলফি বুথের ব্যবস্থা করে থাকি প্রত্যেক বছরই। ধর্মীয় বিষয়টিকে মুখ্য হিসেবে ধরে আমরা বাড়তি কোনো আয়োজন না রাখার চেষ্টাই করি। আমরা পূজার নিয়ম কানুনকেই বেশি গুরুত্ব দেই।

প্রজন্ম প্রত্যাশা দূর্গা পূজা কমিটির মন্ডপে দেখা যায়, প্রতিমা স্থাপনের জন্য শুধু স্টেজ তৈরি করা হয়েছে। এ মন্ডপের সাজসজ্জার প্রস্তুতি চলছে জিউর আখরায়।

সভাপতি শঙ্কর সাহা বলেন, আমাদের এই মন্ডপটি একটি ব্যবসায়িক এলাকায় হওয়ায় এখানে সকল ব্যবসায়ী এই পূজায় অংশগ্রহণ করেন। ২৬ বছর ধরে ধর্মমত নির্বিশেষে আমরা এ উৎসব উৎযাপন করি। ধর্মীয় এ উৎসবটি পালনে আমাদের মুসলিম ব্যবসায়ীরাও আমাদের সহায়তা করেন। আমাদের বিশেষ আয়োজন হিসেবে ১৯৯৮ সাল থেকে আমরা পূজার বাজেট কমিয়ে মানবসেবায় তা ব্যবহার করি।`

ডালপট্টি নতুন সার্বজনীন দূর্গা পূজা কমিটির মন্ডপে দেখা যায়, মন্ডপের আলোকসজ্জার কাজ চলছে। দুয়েকদিনের মধ্যেই সাজসজ্জার কাজ সম্পন্ন হবে বলে জানা যায়।

কোষাধ্যক্ষ দিলিপ কুমার ঘোষ বলেন, ১৫/১৬ বছর ধরে আমরা চেষ্টা করি উৎসবটি সকলে মিলে এক সঙ্গে পালন করতে। দূর্গা পূজা মানেই একটি আনন্দ আনন্দ ব্যাপার। আমরা চেষ্টা করি বাড়তি কোনো আয়োজন না করে নিয়ম মেনে সুষ্ঠু ভাবে পূজা করতে।


বিভাগ : ধর্ম


নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আরো খবর
এই বিভাগের আরও