খান সাহেব ওসমান আলী স্টেডিয়াম : আউটডোর তলিয়ে, শঙ্কায় ইনডোর

স্পেশাল করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ ০৪:১৬ পিএম, ৭ জুন ২০২১ সোমবার

খান সাহেব ওসমান আলী স্টেডিয়াম : আউটডোর তলিয়ে, শঙ্কায় ইনডোর

নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লায় আন্তর্জাতিক মানের খান সাহেব ওসমান আলী ক্রিকেট স্টেডিয়াম। বর্ষা মৌসুম শুরু হতেই স্টেডিয়ামের ভেতরে পানি ছুঁই ছুঁই অবস্থা। আর পূর্ব পাশের গেট হাটু পানিতে ডুবে গেছে। এছাড়া আউটডোরের অনুশীলনের মাঠ এখন ডোবায় পরিণত হয়েছে। তাছাড়া প্রতি বছর বর্ষা মৌসুমে পানিতে তলিয়ে যায় স্টেডিয়ামের ইনডোর। এতে করে এবারও সেই শঙ্কা দেখা দিয়েছে।

৬ জুন রোববার ফতুল্লার রামারবাগ এলাকায় অবস্থিত ওসমান আলী স্টেডিয়ামের বাইরের অংশে ঘুরে এ তথ্য জানা যায়।
জানা গেছে, স্টেডিয়ামের পূর্ব পাশের গেটের সামনে দিয়ে বাসাবাড়ির পয়ঃবর্জ্য নিষ্কাশন চলছে দীর্ঘদিন ধরেই।

স্টেডিয়ামের ভেতরে মাঠেও জমে আছে পানি। স্টেডিয়ামের বাহিরে ময়লা-আবর্জনা সহ হাটু পানি জমাট বেঁধে আছে। এছাড়া স্টেডিয়ামের বাহিরে যে মাঠটিতে খেলোয়াড়রা অনুশীলন করতেন সেই মাঠের কোমর পানিতে কচুরিপানার জট বেঁধে আছে। রাস্তাসহ কালো পানিতে ডুবে আছে।

স্টেডিয়াম এলাকার রফিক মিয়া বলেন, আশে পাশে ডোবা-নালা সবই ভরাট করে ভবন নির্মাণ করা হচ্ছে। এতে মাঠ নেই কোন এলাকায়। খান সাহেব ওসমান আলী স্টেডিয়ামের বাহিরের মাঠেই ফতুল্লার প্রতিটি এলাকার শিশু-কিশোর ও যুবকেরা এসে খেলাধুলা করত। এখন স্টেডিয়ামে কেউ খেলাধুলা করতে পারে না। মাঠের অভাবে ফতুল্লায় এখন খেলাধুলার কোনো আয়োজনও করা হয় না।

স্কুল ছাত্র সিয়াম বলে, আগে বিকেল বেলা স্টেডিয়ামের বাইরের মাঠে প্রতিদিন খেলাধুলা করতাম। কিন্তু আউটডোরের মাঠ পানিতে ডুবে আছে। তাই এলাকায় আড্ডা দিয়ে সময় অতিবাহিত করি। আর ফেসবুক চালিয়ে সময় পার করি।

সূত্র বলছে, যথাযথ রক্ষণাবেক্ষণের অভাবে প্রতিবছর স্টেডিয়ামের ইনডোর পানিতে তলিয়ে যায়। প্রয়োজনের তুলনায় স্টেডিয়ামের গ্রাউন্ড নিচু হওয়ায় এবং পানি নিষ্কাশন ব্যবস্থা অপ্রতুল থাকায় পানি জমাট বাধে। তার উপরে করোনার মত মহামারির সময়ে স্টেডিয়ামের দিকে কারো নজর দেয়ার জো নেই।

উল্লেখ্য, ২৫ হাজার দর্শক ধারণক্ষমতাসম্পন্ন খান সাহেব ওসমান আলী স্টেডিয়াম ২০০৬ সালের ২৩ মার্চ বাংলাদেশ ও কেনিয়ার ওডিআই দিয়ে যাত্রা শুরু করে। একই বছরের ২৮ এপ্রিল বাংলাদেশ ও ভারতের ওডিআই ম্যাচের মাধ্যমে শেষ হয় এর ওডিআই পরিভ্রমণ!

২০০৬ সালের ৯-১৩ এপ্রিল বাংলাদেশ ও অস্ট্রেলিয়ার টেস্ট ম্যাচের মাধ্যমে শুরু হয় টেস্টের ইতিহাস। ২০১৫ সালের ১০-১৪ জুন বাংলাদেশ ও ওয়েস্ট ইন্ডিজ টেস্ট দিয়ে শেষ হয় এই স্টেডিয়ামের টেস্ট ম্যাচের ইতিহাস। এখনও আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টি ম্যাচ মাঠে গড়ায়নি। বর্তমানে মাঠটিতে দুই-একটি ক্লাব ও বিভিন্ন টুর্নামেন্টের খেলা ছাড়া আর কোনো খেলা হয়নি।


বিভাগ : খেলাধুলা


নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আরো খবর
এই বিভাগের আরও